ঢাকা ১১:২৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ জুন ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
নান্দাইলে প্রতিবন্ধি নজরুলকে হুইলচেয়ার উপহার পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে ইপিজেড থানা জাতীয় শ্রমিকলীগের উদগ্যে মোটরসাইকেল র‌্যালী ও মিষ্টি বিতরণ অনুষ্ঠিত আমার টাকায় আমার সেতু, বাংলাদেশ পদ্মা সেতু প্রতিপাদ্য কে সমনে রেখে মেহেন্দিগঞ্জ থানা পুলিশ বাহিনীর আয়োজন নান্দাইলে পদ্মাসেতু উদ্বোধন উপলক্ষে উপজেলা আ’লীগের আনন্দ র্যালী অনুষ্ঠিত বিসিএস ডাক্তারের বিরুদ্ধে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ দ্বিতীয় স্ত্রীর এক নজরে পদ্মা সেতু নাম : পদ্মা সেতু, আছ সফল দক্ষিণ অঞ্চলের জনগণ পদ্ম সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে বিরামপুরে আনন্দ র‍্যালী পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে মোংলা উপজেলা প্রশাসনের আনন্দ মিছিল পাথরঘাটার রায়হানপুরে গভীর রাতে ডাকাতে হামলা, আহত -৪ পদ্মা সেতু পারাপারে প্রথম টোল প্রদান করলেন সেতুর স্থপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

রাজনৈতিক জীবনে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন রাসেল মাদবর

বিশেষ প্রতিনিধি।।

ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানার আশুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল মাদবর,রাজনৈতিক জীবনে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন,তিনি সততা দক্ষতার সাথে অনিয়ম দুর্নীতি গুড়িয়ে দিয়ে নেতাকর্মী ও আমজনতাদের মনের মনিকোঠায় জায়গা করে নিতে সক্ষম হয়েছেন,জনপ্রতিনিধিরা ভোটের পূর্বে জনগণকে প্রতিশ্রুতির ফুলঝুড়ি দেন।কিন্তু অধিকাংশ প্রতিনিধি ক্ষমতা পাওয়ার পর সেই প্রতিশ্রুতি ভুলে যান বা ব্যর্থ হন।সবচেয়ে কঠিন হয়ে দাঁড়ায় বিভিন্ন কর্মকান্ডে জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করা।আর মানুষের জন্য সুবিচার প্রতিষ্ঠা তো ভাবাই যায় না।জনপ্রতিনিধিদের ক্ষেত্রে এটি একটি কঠিনতর অধ্যায় বিচারকের চেয়ারে বসে সুবিচার প্রতিষ্ঠা করা।
এ সকল কঠিক অধ্যায়গুলো পেরিয়ে স্থানীয় জনগণের কাছে ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের কাছে একজন দক্ষ মানুষ হিসাবে নিজকে পরিনত করেছেন,ঢাকা জেলা জুড়ে তার সততা ও দক্ষতার পরিচয় ফুটে উঠেছে।এই জননন্দিত তরুন রাজনৈতিক রাসেল মাদবর তার দায়িত্বের শুরু থেকে জনতা রাজনৈতিক নেতা প্রশাসনের নজর কেড়েছেন।তিনি এলাকার মাদক নির্মুল,বাল্যবিবাহ রোধ, নারী নির্যাতন,জমিজমা সক্রান্ত সকল বিরোধ,কলাহ ইত্যাদি খুব দক্ষতার সাথে সমাধান করে দৃষ্টান্ত রেখেছেন।
মানুষের কঠিন বিপদে তিনি জীবন বাজী রেখে পাশে দাড়িয়েছেন।চলতি বছর করোনাকালীন মহামারী পরিস্থিতি মহাবিপদ চলাকালেও তিনি দিনরাত বিরামহীন ভাবে গ্রামে গ্রামে মানুষের জন্য কাজ করেছেন।সম্প্রতি করোনা ভাইরাস ও ডেঙ্গুর সংক্রামণে মানুষের জীবন ও সমাজকে বিপর্যস্থ বিষন্ন করে তুলেছ এখানেও তিনি জীবন বাজী রেখে সমাজকে ও মানুষকে নিরাপদ করতে নিরলসভাবে কাজ করে সমগ্র ঢাকা জেলার মধ্যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন এই নন্দিত যুবলীগ নেতা রাসেল মাদবর,প্রতিটা মানুষের কৃতকর্মে ভুল ভ্রান্তি তো থাকবে আবার পিছনে সমালোচক থাকবেই। তাছাড়া এই সমাজে তো হিংসুক ও নিন্দুকের অভাব নেই। কিন্তু সর্বপরি আলোকিত সমাজ ও দেশ গঠনে যাদের ভূমিকা বা দৃষ্টান্ত রয়েছে,সেটি আলোর মতই সামনে উঠে আসবে বলে মনে করেন ঢাকা জেলা সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তের বর্তমান সুশীল সমাজ,তবে রাসেল মাদবর বলেন প্রিয় এলাকাবাসী আমার রাজনৈতিক জীবনে ও সার্বিক বিষয়ে যদি কারো কোনো অভিযোগ অনুযোগ বা পরামর্শ থাকে তাহলে আমাকে নির্দ্বিধায় নিঃসন্দেহে নিঃসংকোচে বলতে পারেন আমি তা আমার সাধ্যমত সমাধানের চেষ্টা করে যাব ইনশাআল্লাহ,আমি চাই মানব কল্যানে কাজ করতে আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নাই,আসুন দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সকল ভেদাভেদ ভুলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করি,আমি রাসেল আপনাদেরই ভাই জানিনা আপনাদের বিশ্বাস আস্থা ভালোবাসার প্রতিদান কতটুকু দিতে পেরেছি বা পারবো আমি আলোতে মুগ্ধ তুষ্ট নই তুষ্ট আলোর উৎস সুর্যে,আমি গরীব অসহায় নির্যাতীত নিপীড়িত জনতার পাশে থেকে তাদের ভালোবাসায় আজীবন কাজ করতে চাই,জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু,রাসেল মাদবর সাধারণ সম্পাদক আশুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ।

জাতীয় আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নান্দাইলে প্রতিবন্ধি নজরুলকে হুইলচেয়ার উপহার

রাজনৈতিক জীবনে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন রাসেল মাদবর

আপডেট টাইম : ০৬:৩৭:৪৮ পূর্বাহ্ণ, রবিবার, ৫ জুন ২০২২

বিশেষ প্রতিনিধি।।

ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানার আশুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল মাদবর,রাজনৈতিক জীবনে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন,তিনি সততা দক্ষতার সাথে অনিয়ম দুর্নীতি গুড়িয়ে দিয়ে নেতাকর্মী ও আমজনতাদের মনের মনিকোঠায় জায়গা করে নিতে সক্ষম হয়েছেন,জনপ্রতিনিধিরা ভোটের পূর্বে জনগণকে প্রতিশ্রুতির ফুলঝুড়ি দেন।কিন্তু অধিকাংশ প্রতিনিধি ক্ষমতা পাওয়ার পর সেই প্রতিশ্রুতি ভুলে যান বা ব্যর্থ হন।সবচেয়ে কঠিন হয়ে দাঁড়ায় বিভিন্ন কর্মকান্ডে জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করা।আর মানুষের জন্য সুবিচার প্রতিষ্ঠা তো ভাবাই যায় না।জনপ্রতিনিধিদের ক্ষেত্রে এটি একটি কঠিনতর অধ্যায় বিচারকের চেয়ারে বসে সুবিচার প্রতিষ্ঠা করা।
এ সকল কঠিক অধ্যায়গুলো পেরিয়ে স্থানীয় জনগণের কাছে ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের কাছে একজন দক্ষ মানুষ হিসাবে নিজকে পরিনত করেছেন,ঢাকা জেলা জুড়ে তার সততা ও দক্ষতার পরিচয় ফুটে উঠেছে।এই জননন্দিত তরুন রাজনৈতিক রাসেল মাদবর তার দায়িত্বের শুরু থেকে জনতা রাজনৈতিক নেতা প্রশাসনের নজর কেড়েছেন।তিনি এলাকার মাদক নির্মুল,বাল্যবিবাহ রোধ, নারী নির্যাতন,জমিজমা সক্রান্ত সকল বিরোধ,কলাহ ইত্যাদি খুব দক্ষতার সাথে সমাধান করে দৃষ্টান্ত রেখেছেন।
মানুষের কঠিন বিপদে তিনি জীবন বাজী রেখে পাশে দাড়িয়েছেন।চলতি বছর করোনাকালীন মহামারী পরিস্থিতি মহাবিপদ চলাকালেও তিনি দিনরাত বিরামহীন ভাবে গ্রামে গ্রামে মানুষের জন্য কাজ করেছেন।সম্প্রতি করোনা ভাইরাস ও ডেঙ্গুর সংক্রামণে মানুষের জীবন ও সমাজকে বিপর্যস্থ বিষন্ন করে তুলেছ এখানেও তিনি জীবন বাজী রেখে সমাজকে ও মানুষকে নিরাপদ করতে নিরলসভাবে কাজ করে সমগ্র ঢাকা জেলার মধ্যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন এই নন্দিত যুবলীগ নেতা রাসেল মাদবর,প্রতিটা মানুষের কৃতকর্মে ভুল ভ্রান্তি তো থাকবে আবার পিছনে সমালোচক থাকবেই। তাছাড়া এই সমাজে তো হিংসুক ও নিন্দুকের অভাব নেই। কিন্তু সর্বপরি আলোকিত সমাজ ও দেশ গঠনে যাদের ভূমিকা বা দৃষ্টান্ত রয়েছে,সেটি আলোর মতই সামনে উঠে আসবে বলে মনে করেন ঢাকা জেলা সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তের বর্তমান সুশীল সমাজ,তবে রাসেল মাদবর বলেন প্রিয় এলাকাবাসী আমার রাজনৈতিক জীবনে ও সার্বিক বিষয়ে যদি কারো কোনো অভিযোগ অনুযোগ বা পরামর্শ থাকে তাহলে আমাকে নির্দ্বিধায় নিঃসন্দেহে নিঃসংকোচে বলতে পারেন আমি তা আমার সাধ্যমত সমাধানের চেষ্টা করে যাব ইনশাআল্লাহ,আমি চাই মানব কল্যানে কাজ করতে আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নাই,আসুন দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সকল ভেদাভেদ ভুলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করি,আমি রাসেল আপনাদেরই ভাই জানিনা আপনাদের বিশ্বাস আস্থা ভালোবাসার প্রতিদান কতটুকু দিতে পেরেছি বা পারবো আমি আলোতে মুগ্ধ তুষ্ট নই তুষ্ট আলোর উৎস সুর্যে,আমি গরীব অসহায় নির্যাতীত নিপীড়িত জনতার পাশে থেকে তাদের ভালোবাসায় আজীবন কাজ করতে চাই,জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু,রাসেল মাদবর সাধারণ সম্পাদক আশুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ।