ঢাকা ১১:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
কোটা সংস্কারের পক্ষে সরকার নীতিগতভাবে একমত: আইনমন্ত্রী ঘোষণার পর মানছেন না কোটা আন্দোলনকারীরা আমার ভাইদের ফেরত দেওয়া হোক আগে রায়পুরে বালু উত্তোলনে ভাঙন আতঙ্ক সরকারের কাছ থেকে দৃশ্যমান পদক্ষেপ ও সমাধানের পথ তৈরির প্রত্যাশা করে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন শনির আখড়া-যাত্রাবাড়ী সড়কে চলছে সংঘর্ষ, যান চলালাচল অচল করে দিচ্ছেন ফেসবুক লাইভে এসে পদত্যাগের ঘোষণা ছাত্রলীগ নেতার উত্তরায় গুলিতে নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষার্থী নিহত কমপ্লিট শাটডাউন ঢাকার সঙ্গে সব জেলার যোগাযোগ বন্ধ, টার্মিনাল থেকে ছাড়ছে না কোনো বাস ফুলবাড়ীর দৌলতপুর ইউনিয়নে গরু চুরির হিড়িক দেশবাসীর প্রতি মির্জা ফখরুলের আহ্বান, শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঢাবি, ৬টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ

ভারতে প্রবেশ করলেই সাত দিনের কোয়ারেন্টাইন

সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৬:৩০:১৩ অপরাহ্ণ, শুক্রবার, ৭ জানুয়ারি ২০২২
  • / ২০১ ৫০০.০০০ বার পাঠক

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট।।

ভারতে ক্রমেই বেড়ে চলেছে করোনার দাপট। হু হু করে বাড়ছে নতুন স্ট্রেন ওমিক্রনে সংক্রমিতের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে বিদেশ থেকে দেশে আসা পর্যটকদের জন্য নিয়ম পরিবর্তন করল ভারত।

শুক্রবার কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, সব আন্তর্জাতিক পর্যটককে ভারতে নামার পর এক সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। যারা কোভিড সংক্রমণের ঝুঁকিবহুল দেশ থেকে আসবেন, তাদের বিমানবন্দরে কোভিড পরীক্ষা করানো বাধ্যতামূলক। রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তবেই ছাড়া যাবে বিমানবন্দর।

সরকারের নতুন নির্দেশনার ব্যাপারে কোনো আপস করা হবে না বলে স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ঝুঁকিবহুল দেশ থেকে আসা যাত্রীদের ক্ষেত্রে, রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও সাত দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক। এরপর অষ্টম দিনে নতুন করে আরটি-পিসিআর টেস্ট করাতে হবে। কেউ পজিটিভ এলে তাদের নমুনা জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য পাঠানো হবে এবং তাদের কোনো আইসোলেশন সেন্টারে রাখা হবে। এ ব্যাপারে প্রতিটি প্রদেশকেও সতর্ক থাকতে হবে।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, ঝুঁকিপূর্ণ নয়, এমন দেশ থেকে আসা যাত্রীদের ক্ষেত্রেও বেছে বেছে বিমানবন্দরেই করোনা পরীক্ষা করে দেখা হবে। মোট ২ শতাংশ যাত্রীদের ক্ষেত্রে স্বতঃপ্রণোদিত ভাবেই এই পরীক্ষা করা হবে। তবে সবার ক্ষেত্রেই প্রথম সাত দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক। কেবল বিমানবন্দরই নয়, একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে সমুদ্র বন্দরের ক্ষেত্রেও। তবে এই সব নিয়মের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে পাঁচ বছর বা তার নিচে থাকা শিশুদের। কিন্তু তাদের ক্ষেত্রেও যদি করোনার লক্ষণ দেখা যায় সেক্ষেত্রে পরীক্ষা করা হবে।

ভারতে দ্রুত গতিতে করোনা ভাইরাস ছড়াচ্ছে। সপ্তাহখানেক আগেও যেখানে দৈনিক সংক্রমণ ৭ হাজারের আশেপাশে ছিল, সেখানে শুক্রবার ৭ মাস পর প্রথমবার সংক্রমণ ১ লক্ষ পার হয়েছে। শুধু তাই নয়, একদিনে দেশে সক্রিয় কেস বেড়েছে প্রায় ৮৫ হাজার।এমন পরিস্থিতিতে বিদেশি যাত্রীদের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বনের পদক্ষেপ করল কেন্দ্র সরকার।

আরো খবর.......

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ভারতে প্রবেশ করলেই সাত দিনের কোয়ারেন্টাইন

আপডেট টাইম : ০৬:৩০:১৩ অপরাহ্ণ, শুক্রবার, ৭ জানুয়ারি ২০২২

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট।।

ভারতে ক্রমেই বেড়ে চলেছে করোনার দাপট। হু হু করে বাড়ছে নতুন স্ট্রেন ওমিক্রনে সংক্রমিতের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে বিদেশ থেকে দেশে আসা পর্যটকদের জন্য নিয়ম পরিবর্তন করল ভারত।

শুক্রবার কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, সব আন্তর্জাতিক পর্যটককে ভারতে নামার পর এক সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। যারা কোভিড সংক্রমণের ঝুঁকিবহুল দেশ থেকে আসবেন, তাদের বিমানবন্দরে কোভিড পরীক্ষা করানো বাধ্যতামূলক। রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তবেই ছাড়া যাবে বিমানবন্দর।

সরকারের নতুন নির্দেশনার ব্যাপারে কোনো আপস করা হবে না বলে স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ঝুঁকিবহুল দেশ থেকে আসা যাত্রীদের ক্ষেত্রে, রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও সাত দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক। এরপর অষ্টম দিনে নতুন করে আরটি-পিসিআর টেস্ট করাতে হবে। কেউ পজিটিভ এলে তাদের নমুনা জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য পাঠানো হবে এবং তাদের কোনো আইসোলেশন সেন্টারে রাখা হবে। এ ব্যাপারে প্রতিটি প্রদেশকেও সতর্ক থাকতে হবে।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, ঝুঁকিপূর্ণ নয়, এমন দেশ থেকে আসা যাত্রীদের ক্ষেত্রেও বেছে বেছে বিমানবন্দরেই করোনা পরীক্ষা করে দেখা হবে। মোট ২ শতাংশ যাত্রীদের ক্ষেত্রে স্বতঃপ্রণোদিত ভাবেই এই পরীক্ষা করা হবে। তবে সবার ক্ষেত্রেই প্রথম সাত দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক। কেবল বিমানবন্দরই নয়, একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে সমুদ্র বন্দরের ক্ষেত্রেও। তবে এই সব নিয়মের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে পাঁচ বছর বা তার নিচে থাকা শিশুদের। কিন্তু তাদের ক্ষেত্রেও যদি করোনার লক্ষণ দেখা যায় সেক্ষেত্রে পরীক্ষা করা হবে।

ভারতে দ্রুত গতিতে করোনা ভাইরাস ছড়াচ্ছে। সপ্তাহখানেক আগেও যেখানে দৈনিক সংক্রমণ ৭ হাজারের আশেপাশে ছিল, সেখানে শুক্রবার ৭ মাস পর প্রথমবার সংক্রমণ ১ লক্ষ পার হয়েছে। শুধু তাই নয়, একদিনে দেশে সক্রিয় কেস বেড়েছে প্রায় ৮৫ হাজার।এমন পরিস্থিতিতে বিদেশি যাত্রীদের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বনের পদক্ষেপ করল কেন্দ্র সরকার।