ঢাকা ০৩:৫১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ইংল্যান্ড বিএনপি’র সভাপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পিসা বিএনপি’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পারভেজ মোশারফ কোস্টগার্ড কর্তৃক বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান কিশোরগঞ্জে দৈনিক নাগরিক ভাবনার ৪র্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত যুব উন্নয়ন থেকে দর্জি বিজ্ঞান প্রশিক্ষণ নিয়ে জামালপুরের যুব মহিলারা আত্ম নির্ভরশীল এমপি হবার শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রতিপাদ্য নিয়ে ময়মনসিংহ রেলওয়ে ষ্টেশনে চাঞ্চল্যকর খুনের প্রধান আসামী মোহাম্মদ আলী গ্রেফতার ইপিজেড থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে(দুইশত চার) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার পাকুন্দিয়ায় ৬ষ্ট বার্ষিকী ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্টিত টঙ্গীতে কিশোর গ্যাং লিডার মাইদুল গ্রেফতার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্ট্রিয়াতে দুই বাংলাদেশী প্রবাসীর মধ্যে মারামারি গ্রেফতার এক

নিরাপদ গর্ভপাতের দাবিতে লাতিন আমেরিকায় নারীদের বিক্ষোভ

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৫:০৬:৩৭ পূর্বাহ্ণ, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ১৬৪ ০.০০০ বার পাঠক

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।

আন্তর্জাতিক গর্ভপাত দিবস উপলক্ষে, নিরাপদ ও আইনি গর্ভপাতের দাবিতে লাতিন আমেরিকার বেশ কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ করেছেন নারীরা।

লাতিন আমেরিকার হাতেগোনা কয়েকটি অঞ্চলে সম্পূর্ণভাবে গর্ভপাতের অনুমোদন রয়েছে। বেশিরভাগ অঞ্চলে গর্ভপাত কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, শাস্তি হিসেবে ৪০ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে। মেক্সিকো সিটিতে নারীরা পুলিশি বাধায় বিক্ষোভ করেন। এ মাসের শুরুতে মেক্সিকোর সুপ্রিম কোর্ট ঘোষণা করেন, গর্ভপাতকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা অসাংবিধানিক এবং এর কিছুক্ষণ পরেই সরকার বলেছিল যে গর্ভধারণ বন্ধের অভিযোগে যারা কারাবন্দি রয়েছে তাদের মুক্তি দেওয়া হবে।

প্রতি বছর লাতিন আমেরিকার হাজার হাজার নারী অনিরাপদ গর্ভপাতের ফলে মারা যান। অঞ্চলগুলোতে বয়ঃসন্ধিকালীন গর্ভধারণ ও যৌন সহিংসতা অতিমাত্রায় বেড়েছে। অন্যদিকে কলম্বিয়ায় গর্ভপাতকে শুধু একটি ক্ষেত্রে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। যদি ধর্ষণের ফলে কেউ গর্ভপাতের পথ বেছে নেয় তাহলে দেশটিতে কোনো আপত্তি নেই। এর ফলে অন্তঃসত্ত্বা নারীর জীবন ঝুঁকিতে থাকে। মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) কলম্বিয়ার বাগোতা শহরে ৮০০ নারী প্রতিবাদে অংশ নেন। একই দাবিতে চিলিতেও বিক্ষোভ করেছেন নারীরা। চিলিতে হাউস অব কংগ্রেস একটি বিতর্ক শেষে গর্ভধারণের ১৪ সপ্তাহের মধ্যে গর্ভপাত করার সম্মতি দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া এল সালভাদোরের বহু নারী সবুজ পতাকা উত্তোলন করেন এবং সান সালভাদোরের মধ্য দিয়ে কংগ্রেসের পথে দেশের ‘কঠোর’ গর্ভপাত আইন শিথিল করার দাবিতে মিছিল করেন। বিক্ষোভে নারীরা ‘গর্ভপাত আমাদের অধিকার, আমাদের সিদ্ধান্ত’, ‘আইনি, নিরাপদ ও মুক্ত গর্ভপাত চাই’ সংবলিত ব্যানার প্রদর্শন করেন। সালভাদোরের প্রেসিডেন্ট নায়েব বুকলে এই মাসের শুরুর দিকে গর্ভপাত আইনে সংশোধনের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন। ২০টিরও বেশি লাতিন আমেরিকান দেশ এখনও গর্ভপাতকে সমর্থন করে না। যার মধ্যে রয়েছে এল সালভাদর। সেখানে কয়েকজন নারীকে গর্ভপাতের অভিযোগে ৪০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।

লাতিন আমেরিকা বলতে উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের এমন অঞ্চলগুলোকে বোঝায় যেখানকার জনগণ লাতিন ভাষা থেকে উদ্ভূত রোমান্স ভাষাসমূহে কথা বলে। রোমান্স ভাষা বলতে মূলত স্পেনীয় এবং পর্তুগিজ ভাষাকে বোঝায়। উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের ২০টি দেশ এই অঞ্চলের মধ্যে পড়ে। এগুলোর মধ্যে দক্ষিণ আমেরিকার ১০টি, মধ্য আমেরিকার ৬টি, ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের ৩টি ও উত্তর আমেরিকা মহাদেশের ১টি দেশ রয়েছে।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

ইংল্যান্ড বিএনপি’র সভাপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পিসা বিএনপি’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পারভেজ মোশারফ

নিরাপদ গর্ভপাতের দাবিতে লাতিন আমেরিকায় নারীদের বিক্ষোভ

আপডেট টাইম : ০৫:০৬:৩৭ পূর্বাহ্ণ, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।

আন্তর্জাতিক গর্ভপাত দিবস উপলক্ষে, নিরাপদ ও আইনি গর্ভপাতের দাবিতে লাতিন আমেরিকার বেশ কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ করেছেন নারীরা।

লাতিন আমেরিকার হাতেগোনা কয়েকটি অঞ্চলে সম্পূর্ণভাবে গর্ভপাতের অনুমোদন রয়েছে। বেশিরভাগ অঞ্চলে গর্ভপাত কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, শাস্তি হিসেবে ৪০ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে। মেক্সিকো সিটিতে নারীরা পুলিশি বাধায় বিক্ষোভ করেন। এ মাসের শুরুতে মেক্সিকোর সুপ্রিম কোর্ট ঘোষণা করেন, গর্ভপাতকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা অসাংবিধানিক এবং এর কিছুক্ষণ পরেই সরকার বলেছিল যে গর্ভধারণ বন্ধের অভিযোগে যারা কারাবন্দি রয়েছে তাদের মুক্তি দেওয়া হবে।

প্রতি বছর লাতিন আমেরিকার হাজার হাজার নারী অনিরাপদ গর্ভপাতের ফলে মারা যান। অঞ্চলগুলোতে বয়ঃসন্ধিকালীন গর্ভধারণ ও যৌন সহিংসতা অতিমাত্রায় বেড়েছে। অন্যদিকে কলম্বিয়ায় গর্ভপাতকে শুধু একটি ক্ষেত্রে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। যদি ধর্ষণের ফলে কেউ গর্ভপাতের পথ বেছে নেয় তাহলে দেশটিতে কোনো আপত্তি নেই। এর ফলে অন্তঃসত্ত্বা নারীর জীবন ঝুঁকিতে থাকে। মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) কলম্বিয়ার বাগোতা শহরে ৮০০ নারী প্রতিবাদে অংশ নেন। একই দাবিতে চিলিতেও বিক্ষোভ করেছেন নারীরা। চিলিতে হাউস অব কংগ্রেস একটি বিতর্ক শেষে গর্ভধারণের ১৪ সপ্তাহের মধ্যে গর্ভপাত করার সম্মতি দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া এল সালভাদোরের বহু নারী সবুজ পতাকা উত্তোলন করেন এবং সান সালভাদোরের মধ্য দিয়ে কংগ্রেসের পথে দেশের ‘কঠোর’ গর্ভপাত আইন শিথিল করার দাবিতে মিছিল করেন। বিক্ষোভে নারীরা ‘গর্ভপাত আমাদের অধিকার, আমাদের সিদ্ধান্ত’, ‘আইনি, নিরাপদ ও মুক্ত গর্ভপাত চাই’ সংবলিত ব্যানার প্রদর্শন করেন। সালভাদোরের প্রেসিডেন্ট নায়েব বুকলে এই মাসের শুরুর দিকে গর্ভপাত আইনে সংশোধনের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন। ২০টিরও বেশি লাতিন আমেরিকান দেশ এখনও গর্ভপাতকে সমর্থন করে না। যার মধ্যে রয়েছে এল সালভাদর। সেখানে কয়েকজন নারীকে গর্ভপাতের অভিযোগে ৪০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে।

লাতিন আমেরিকা বলতে উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের এমন অঞ্চলগুলোকে বোঝায় যেখানকার জনগণ লাতিন ভাষা থেকে উদ্ভূত রোমান্স ভাষাসমূহে কথা বলে। রোমান্স ভাষা বলতে মূলত স্পেনীয় এবং পর্তুগিজ ভাষাকে বোঝায়। উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের ২০টি দেশ এই অঞ্চলের মধ্যে পড়ে। এগুলোর মধ্যে দক্ষিণ আমেরিকার ১০টি, মধ্য আমেরিকার ৬টি, ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের ৩টি ও উত্তর আমেরিকা মহাদেশের ১টি দেশ রয়েছে।