ঢাকা ০২:৪৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি কালিয়াকৈরে পালিত হলো প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী-২০২৪ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী মেলা অনুষ্ঠিত রায়পুরে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত সেভ দ্য রোডের ১৫ দিনব্যাপী সচেতনতা ক্যাম্পেইন সমাপ্ত জামালপুরে কৃষককূল লাউ চাষে স্বাবম্বিতা অর্জন করেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অস্ত্রাগারের ভিডিও সম্প্রচার এক পুলিশ সুপারকে বাধ্যতামূলক অবসর মাদক কারবার-মানি লন্ডারিংয়ে বদির দুই ভাইয়ের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে ঠাকুরগাঁওয়ে চেতনা নাশক স্প্রে ব্যবহার করে চুরি এলাকায় আতঙ্ক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন মামলা সুষ্ঠু তদন্তের দাবি কলেজ ছাত্রকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর দাবি

জিম্বাবুয়েতে ফের ব্যর্থ বাবর, আবিদ-আজহারের ব্যাটে সেঞ্চুরি

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও দুর্দান্ত ব্যাট করেছে পাকিস্তান।

সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন টপঅর্ডারের দুই ব্যাটসম্যান আজহার আলি ও আবিদ আলি। ১২৬ রান করে আজহারের ব্যাট থেমে গেলেও ক্রিজে টিকে আছেন আবিদ।এই দুই ব্যাটসম্যানের বিশাল জুটিতে প্রথম দিন শক্ত অবস্থানেই পৌঁছে গেছে পাকিস্তান।

আজহার-আবিদ সেঞ্চুরি পেলেও দ্বিতীয় টেস্টেও ব্যর্থ হয়েছেন অধিনায়ক বাবর আজম।

প্রথম ম্যাচের পর দ্বিতীয়টির প্রথম ইনিংসেও হাসেনি তার ব্যাট। মাত্র ২ রান করেই সাজঘরে ফিরেছেন। পেসার মুজুরাবানির বলে পরাস্ত হয়ে সাজঘরে ফেরেন বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান।

হারারে স্পোর্টস ক্লাবে শুক্রবার টস জিতে আগে ব্যাটিং নেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর। শুরুটা ভালো হয়নি সফরকারীদের। দলীয় ১২ রানেই সাজঘরে ফিরে যান ইমরান বাট। বাঁহাতি পেসার রিচার্ড এনগারাভারে ডেলিভারিতে তিরিপানাওয়ের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। এরপর ওপেনার আজহারের সঙ্গে জুটি গড়তে নামেন আবিদ। 

৭৫ ওভারের ম্যারাথন জুটিতে ২৩৬ রান যোগ করেন আজহার-আবিদ। ক্যারিয়ারের ১৮তম সেঞ্চুরি হাঁকান আজহার। এর পর পর আবিদ করেন তার ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি।

দিনের শেষদিকে ভেলকি দেখান জিম্বাবুয়ের পেসার ব্লেসিং মুজুরাবানি। ৮১তম ওভারে নতুন বল নিয়েই আজহার-আবিদের মেরাথন জুটিতে ব্রেকথ্রু আনেন।

নতুন বলে মাত্র তৃতীয় ওভারেই আজহার আলিকে সাজঘরে ফেরান মুজুরাবানি। আউট হওয়ার আগে ২৪০ বলে ১৭ বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় ১২৬ রান করেন আজহার আলি। আজহারের বিদায়ের পর আবিদের সঙ্গে জুটি গড়তে আসেন অধিনায়ক বাবর।

কিন্তু মাত্র ৮ বল টেকেন। মাত্র ২ রান করে মুজুরাবানির শিকারে পরিণত হন তিনি। অধিনায়কের মূল্যবান উইকেটটি তুলেও মন ভরেনি মুজুরাবানির। পরের ওভারেই মাত্র ৫ রানে ব্যাট করা ফাওয়াদ আলমকে সাজঘরে ফেরান তিনি।

অর্থাৎ দিনের শেষ ২০ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে পাকিস্তান।

৯০ ওভার শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৪ উইকেট হারিয়ে ২৬৮ রান। ২৪৬ বল মোকাবিলা করে ১১২ রানে অপরাজিত আবিদ আলি। নাইটওয়াচম্যান হিসেবে নামেন সাজিদ খান। আজ জিম্বাবুয়ের পক্ষে সফলতম বোলার ব্লেসিং মুজুরাবানি। ১৯ ওভারে মাত্র ৪১ রান দিয়ে তিনটি উইকেট শিকার করেছেন এই পেসার।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি

জিম্বাবুয়েতে ফের ব্যর্থ বাবর, আবিদ-আজহারের ব্যাটে সেঞ্চুরি

আপডেট টাইম : ০৬:১৩:২৪ অপরাহ্ণ, শুক্রবার, ৭ মে ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও দুর্দান্ত ব্যাট করেছে পাকিস্তান।

সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন টপঅর্ডারের দুই ব্যাটসম্যান আজহার আলি ও আবিদ আলি। ১২৬ রান করে আজহারের ব্যাট থেমে গেলেও ক্রিজে টিকে আছেন আবিদ।এই দুই ব্যাটসম্যানের বিশাল জুটিতে প্রথম দিন শক্ত অবস্থানেই পৌঁছে গেছে পাকিস্তান।

আজহার-আবিদ সেঞ্চুরি পেলেও দ্বিতীয় টেস্টেও ব্যর্থ হয়েছেন অধিনায়ক বাবর আজম।

প্রথম ম্যাচের পর দ্বিতীয়টির প্রথম ইনিংসেও হাসেনি তার ব্যাট। মাত্র ২ রান করেই সাজঘরে ফিরেছেন। পেসার মুজুরাবানির বলে পরাস্ত হয়ে সাজঘরে ফেরেন বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান।

হারারে স্পোর্টস ক্লাবে শুক্রবার টস জিতে আগে ব্যাটিং নেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর। শুরুটা ভালো হয়নি সফরকারীদের। দলীয় ১২ রানেই সাজঘরে ফিরে যান ইমরান বাট। বাঁহাতি পেসার রিচার্ড এনগারাভারে ডেলিভারিতে তিরিপানাওয়ের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। এরপর ওপেনার আজহারের সঙ্গে জুটি গড়তে নামেন আবিদ। 

৭৫ ওভারের ম্যারাথন জুটিতে ২৩৬ রান যোগ করেন আজহার-আবিদ। ক্যারিয়ারের ১৮তম সেঞ্চুরি হাঁকান আজহার। এর পর পর আবিদ করেন তার ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি।

দিনের শেষদিকে ভেলকি দেখান জিম্বাবুয়ের পেসার ব্লেসিং মুজুরাবানি। ৮১তম ওভারে নতুন বল নিয়েই আজহার-আবিদের মেরাথন জুটিতে ব্রেকথ্রু আনেন।

নতুন বলে মাত্র তৃতীয় ওভারেই আজহার আলিকে সাজঘরে ফেরান মুজুরাবানি। আউট হওয়ার আগে ২৪০ বলে ১৭ বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় ১২৬ রান করেন আজহার আলি। আজহারের বিদায়ের পর আবিদের সঙ্গে জুটি গড়তে আসেন অধিনায়ক বাবর।

কিন্তু মাত্র ৮ বল টেকেন। মাত্র ২ রান করে মুজুরাবানির শিকারে পরিণত হন তিনি। অধিনায়কের মূল্যবান উইকেটটি তুলেও মন ভরেনি মুজুরাবানির। পরের ওভারেই মাত্র ৫ রানে ব্যাট করা ফাওয়াদ আলমকে সাজঘরে ফেরান তিনি।

অর্থাৎ দিনের শেষ ২০ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে পাকিস্তান।

৯০ ওভার শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ৪ উইকেট হারিয়ে ২৬৮ রান। ২৪৬ বল মোকাবিলা করে ১১২ রানে অপরাজিত আবিদ আলি। নাইটওয়াচম্যান হিসেবে নামেন সাজিদ খান। আজ জিম্বাবুয়ের পক্ষে সফলতম বোলার ব্লেসিং মুজুরাবানি। ১৯ ওভারে মাত্র ৪১ রান দিয়ে তিনটি উইকেট শিকার করেছেন এই পেসার।