ঢাকা ০৭:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
আগামী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ইসরায়েলে হামলা চালাতে পারে ইরান হাজারীবাগের ঝাউচরের মোড় এলাকার অগ্নি নবনির্বাচিত আইরিশ প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন পাকুন্দিয়া থানা পুলিশের অভিযানে ২বছর কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার ১ খালেদা জিয়ার বাসভবনে বিএনপির শীর্ষ নেতারা কেএনএফের প্রধান নাথান বমের স্ত্রীকে তাৎক্ষণিক বদলি রাজধানী ঢাকায় মসজিদে গাউছুল আজমে ঈদ জামাতে ফিলিস্তিন-কাশ্মীরিদের জন্য বিশেষ দোয়া নরসিংদী জেলা বাসীকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নরসিংদী জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক কোস্টগার্ড কর্তৃক পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে লঞ্চ ও খেয়া ঘাট সমূহে নিরাপত্তা টহল প্রদান রাজধানীর বায়তুল মোকাররমে “মাসব্যাপী ইফতার বিতরণ কর্মসুচি-২০২৪” পালিত

মোস্তাফিজের দারুণ বোলিংয়ে রাজস্থানের প্রথম জয়

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৭:১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১
  • ২৭৩ ০.০০০ বার পাঠক

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

মোস্তাফিজুর রহমান ও জয়দেব উনাদকাটের দারুণ বোলিংয়ের পরও ম্যাচে হার দেখছিল রাজস্থান রয়্যালস। তবে ডেভিড মিলার ও শেষদিকে ক্রিস মরিসের ঝড়ো ব্যাটে দিল্লী ক্যাপিটালসকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে রাজস্থান।

নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথম জয় পেয়েছে দলটি।

বৃহস্পতিবার আইপিএলের ১৪তম আসরের সপ্তম ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করা দিল্লী নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৭ রান করে। জবাবে ইনিংসের ২ বল বাকি থাকতে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫০ করে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় রাজস্থান।

১৪৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৩৬ রানে টপঅর্ডারের ৪ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে রাজস্থান। তবে ম্যাচের হাল ডেভিড মিলার ধরলেও অন্য প্রান্তে উইকেট পড়তে থাকে। দেখেশুনে খেলতে থাকা প্রোটিয়া হিটার মিলার দলের ভালো সংগ্রহ দাঁড় করিয়ে ব্যক্তিগত ৬২ রানে ফেরেন। আবেশ খানের বলে আউট হওয়ার আগে তিনি ৪৩ বলে ৭টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকান।

তবে শেষদিকে উনাদকাটের সঙ্গে ২৩ বলে ৪৬ রানের জুটি গড়ে দলকে জয় এনে দেন মরিস। দক্ষিণ আফ্রিকান এই অলরাউন্ডার ১৮ বলে ৪টি ছক্কায় ৩৬ রানে অপরাজি থাকেন। ৭ বলে ১১ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন উনাদকাট। মাঝে রাহুল তেওয়াটিয়ার ব্যাট থেকে ১৭ বরে ১৯ রান আসে।

দিল্লী বোলারদের মধ্যে আবেশ খান সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট পান। এছাড়া ক্রিস ওকস ও কাগিসো রাবাদা ২টি করে উইকেট দখল করেন।

টস হেরে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে উনাদকাটের তোপে দিশেহারা হয়ে পড়ে দিল্লীর ব্যাটসম্যানরা। টপঅর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান পৃথ্বী শ, শিখর ধাওয়ান ও আজিঙ্কা রাহানেকে তুলে নেন এই বাঁহাতি। এরপর ঝলক দেখান মোস্তাফিজও। তিনি মার্কাস স্টোইনিস ও টম কারানকে মাঠ ছাড়া করান। দলটির ব্যাটিংয়ে সর্বোচ্চ ৩২ বলে ৫১ করে রান আউট হন অধিনায়ক ঋষভ পন্থ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২১ রান করেন কারান।

রাজস্থান বোলার উনাদকাট ৪ ওভারে মাত্র ১৫ রান দিয়ে ৩টি উইকেট দখল করেন। ম্যাচ সেরার পুরস্কারও তার হাতে ওঠে। বাংলাদেশ তারকা মোস্তাফিজ ৪ ওভারে ২৯ রানের বিনিময়ে ২টি উইকেট পান। এছাড়া মরিস একটি উইকেট নেন।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

আগামী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ইসরায়েলে হামলা চালাতে পারে ইরান

মোস্তাফিজের দারুণ বোলিংয়ে রাজস্থানের প্রথম জয়

আপডেট টাইম : ০৭:১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

মোস্তাফিজুর রহমান ও জয়দেব উনাদকাটের দারুণ বোলিংয়ের পরও ম্যাচে হার দেখছিল রাজস্থান রয়্যালস। তবে ডেভিড মিলার ও শেষদিকে ক্রিস মরিসের ঝড়ো ব্যাটে দিল্লী ক্যাপিটালসকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে রাজস্থান।

নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথম জয় পেয়েছে দলটি।

বৃহস্পতিবার আইপিএলের ১৪তম আসরের সপ্তম ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করা দিল্লী নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৭ রান করে। জবাবে ইনিংসের ২ বল বাকি থাকতে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৫০ করে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় রাজস্থান।

১৪৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৩৬ রানে টপঅর্ডারের ৪ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে রাজস্থান। তবে ম্যাচের হাল ডেভিড মিলার ধরলেও অন্য প্রান্তে উইকেট পড়তে থাকে। দেখেশুনে খেলতে থাকা প্রোটিয়া হিটার মিলার দলের ভালো সংগ্রহ দাঁড় করিয়ে ব্যক্তিগত ৬২ রানে ফেরেন। আবেশ খানের বলে আউট হওয়ার আগে তিনি ৪৩ বলে ৭টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকান।

তবে শেষদিকে উনাদকাটের সঙ্গে ২৩ বলে ৪৬ রানের জুটি গড়ে দলকে জয় এনে দেন মরিস। দক্ষিণ আফ্রিকান এই অলরাউন্ডার ১৮ বলে ৪টি ছক্কায় ৩৬ রানে অপরাজি থাকেন। ৭ বলে ১১ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন উনাদকাট। মাঝে রাহুল তেওয়াটিয়ার ব্যাট থেকে ১৭ বরে ১৯ রান আসে।

দিল্লী বোলারদের মধ্যে আবেশ খান সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট পান। এছাড়া ক্রিস ওকস ও কাগিসো রাবাদা ২টি করে উইকেট দখল করেন।

টস হেরে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে উনাদকাটের তোপে দিশেহারা হয়ে পড়ে দিল্লীর ব্যাটসম্যানরা। টপঅর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান পৃথ্বী শ, শিখর ধাওয়ান ও আজিঙ্কা রাহানেকে তুলে নেন এই বাঁহাতি। এরপর ঝলক দেখান মোস্তাফিজও। তিনি মার্কাস স্টোইনিস ও টম কারানকে মাঠ ছাড়া করান। দলটির ব্যাটিংয়ে সর্বোচ্চ ৩২ বলে ৫১ করে রান আউট হন অধিনায়ক ঋষভ পন্থ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২১ রান করেন কারান।

রাজস্থান বোলার উনাদকাট ৪ ওভারে মাত্র ১৫ রান দিয়ে ৩টি উইকেট দখল করেন। ম্যাচ সেরার পুরস্কারও তার হাতে ওঠে। বাংলাদেশ তারকা মোস্তাফিজ ৪ ওভারে ২৯ রানের বিনিময়ে ২টি উইকেট পান। এছাড়া মরিস একটি উইকেট নেন।