ঢাকা ০৯:১৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
তারাকান্দায় যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল ফুলপুরে অবৈধ বালু উত্তোলন করছে ক্ষমতাশালী ব্যক্তিরা, ধ্বংসের মুখে কংশের নদীর তীরের বাসিন্দারা মহানগরের নেতা-কর্মীদের নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার মেয়র টিটুর নতুন রোড নির্মান কাজের শুভ উদ্বোধন করলেন চেয়ারম্যান মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ফোরাম সভা অনুষ্ঠীত হচ্ছে-জাতীয় প্রেস ক্লাবে প্রধানমন্ত্রীর বেঙ্গচিএ ছবি ফেইসবুকে পোস্ট করার কারণে ছাত্রদল ক্যাডার শাওন আলী গ্রেফতার ট্রেন ঘুর্ঘটনা রুখতে চার বন্ধু আবিষ্কার করেছে ডিজিটাল রেল ক্রসিং পিডিএফ এর উদ্যোগে বশেমুরবিপ্রবিতে বিশ্ব ও জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত তথ্যমন্ত্রী বলেছেন জনসভায় খালেদা জিয়ার যাওয়ার চিন্তা অলীক ও উদ্ভট আগামী ৭ জানুয়ারী থেকে নড়াইলে সুলতান মেলা শুরু

স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই চলছে গণপরিবহন

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।

গত কয়েকদিন ধরে দেশে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় নড়েচড়ে বসেছে সরকার। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদফতর, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও সচেতন মহল থেকে বারবার বলা হচ্ছে- স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। অথচ স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলছে অধিকাংশ মানুষ। বিশেষ করে গণপরিবহনের চিত্র একেবারেই উলটো। সেখানে চালক, সহকারী ও অধিকাংশ যাত্রী মাস্ক পরেন না। আবার অনেকে মাস্ক পরলেও তা থুতনিতে ঝুলিয়ে রাখে। এছাড়া গাড়ির ভেতরে মাস্ক ছাড়া হকার যখন-তখন প্রবেশ করে। হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিংবা জীবাণুনাশক ছিটাতেও দেখা যায় না। এ পরিস্থিতিতে গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করা জরুরি বলে মনে করছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

শনিবার (২০ মার্চ) রাজধানীর সাতরাস্তা বাসস্ট্যান্ড, মহাখালী, ফার্মগেট ও কাওরানবাজার বাসস্ট্যান্ড সরেজমিনে ঘুরে স্বাস্থ্যবিধি না মানার এমন চিত্র দেখা গেছে।

রাজধানীর আব্দুল্লাহপুর থেকে ফার্মগেট এসে যাত্রী তুলছিলেন বিআরটিসি বাসের সহকারী বাবুল মিয়া। দেখে গেছে- মাস্ক না পরেই যাত্রী তুলছেন, যাত্রীদের হাত ধরছেন, আবার কারো মুখের একেবারে কাছে গিয়ে কথা বলছেন তিনি। মাস্ক কোথায় জানতে চাইলে তিনি বলেন, গাড়ি ছাড়ার আগে ভাত খেয়েছিলাম, তাই আর পরা হয়নি।

একই বাসে ফার্মগেট থেকে উঠেছেন আমিনুল ইসলাম। তিনি যাবেন পুরান ঢাকার বাবু বাজারে। মাস্ক ছাড়াই বাসে উঠেছেন তিনি। ক্যামেরা দেখেই পকেট থেকে একটি রুমাল বের করে মুখে বাঁধেন। আপনার মাস্ক নেই কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, মন চাইলে মাঝে মধ্যে মুখে রুমাল বেঁধে রাখি, মাস্কের প্রয়োজন হয় না।

একইচিত্র দেখা গেছে, রাজধানীর নাবিস্কোতে। নতুন বাজার থেকে ছেড়ে আসা কমলাপুরগামী ৬ নম্বর বাসের ভেতরে গাদাগাদি করে দাঁড়িয়ে আছেন যাত্রীরা।বেশিরভাগ যাত্রীই মাস্ক ছাড়া গাড়িতে উঠেছেন। সেখানে একজন যাত্রী শাহ আলম বলেন, যারা গণপরিবহন পরিচালনা করেন তাদেরই এ বিষয়ে কোনো খেয়াল নেই। গাড়ির চালক-হেলপার যদি যাত্রীদের তাগিদ দিতো তাহলে সবাই মাস্ক পরেই গাড়িতে উঠতো। তারা নিজেরাই মাস্ক পড়েন না।

হেলথ অ্যান্ড হোপ স্পেশালাইজড হাসপাতালের পরিচালক ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরী ইত্তেফাক অনলাইনকে বলেন, ফের করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বিকল্প নেই। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলতে হবে। কোথাও কোনো জনসমাগম করা যাবে না। বিশেষ করে গণপরিবহনসহ পাবলিক প্লেসে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের আরও কঠোর হতে হবে।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

তারাকান্দায় যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল

স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই চলছে গণপরিবহন

আপডেট টাইম : ০৬:১২:২৫ পূর্বাহ্ণ, সোমবার, ২২ মার্চ ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।

গত কয়েকদিন ধরে দেশে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় নড়েচড়ে বসেছে সরকার। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য অধিদফতর, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও সচেতন মহল থেকে বারবার বলা হচ্ছে- স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। অথচ স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলছে অধিকাংশ মানুষ। বিশেষ করে গণপরিবহনের চিত্র একেবারেই উলটো। সেখানে চালক, সহকারী ও অধিকাংশ যাত্রী মাস্ক পরেন না। আবার অনেকে মাস্ক পরলেও তা থুতনিতে ঝুলিয়ে রাখে। এছাড়া গাড়ির ভেতরে মাস্ক ছাড়া হকার যখন-তখন প্রবেশ করে। হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিংবা জীবাণুনাশক ছিটাতেও দেখা যায় না। এ পরিস্থিতিতে গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করা জরুরি বলে মনে করছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

শনিবার (২০ মার্চ) রাজধানীর সাতরাস্তা বাসস্ট্যান্ড, মহাখালী, ফার্মগেট ও কাওরানবাজার বাসস্ট্যান্ড সরেজমিনে ঘুরে স্বাস্থ্যবিধি না মানার এমন চিত্র দেখা গেছে।

রাজধানীর আব্দুল্লাহপুর থেকে ফার্মগেট এসে যাত্রী তুলছিলেন বিআরটিসি বাসের সহকারী বাবুল মিয়া। দেখে গেছে- মাস্ক না পরেই যাত্রী তুলছেন, যাত্রীদের হাত ধরছেন, আবার কারো মুখের একেবারে কাছে গিয়ে কথা বলছেন তিনি। মাস্ক কোথায় জানতে চাইলে তিনি বলেন, গাড়ি ছাড়ার আগে ভাত খেয়েছিলাম, তাই আর পরা হয়নি।

একই বাসে ফার্মগেট থেকে উঠেছেন আমিনুল ইসলাম। তিনি যাবেন পুরান ঢাকার বাবু বাজারে। মাস্ক ছাড়াই বাসে উঠেছেন তিনি। ক্যামেরা দেখেই পকেট থেকে একটি রুমাল বের করে মুখে বাঁধেন। আপনার মাস্ক নেই কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, মন চাইলে মাঝে মধ্যে মুখে রুমাল বেঁধে রাখি, মাস্কের প্রয়োজন হয় না।

একইচিত্র দেখা গেছে, রাজধানীর নাবিস্কোতে। নতুন বাজার থেকে ছেড়ে আসা কমলাপুরগামী ৬ নম্বর বাসের ভেতরে গাদাগাদি করে দাঁড়িয়ে আছেন যাত্রীরা।বেশিরভাগ যাত্রীই মাস্ক ছাড়া গাড়িতে উঠেছেন। সেখানে একজন যাত্রী শাহ আলম বলেন, যারা গণপরিবহন পরিচালনা করেন তাদেরই এ বিষয়ে কোনো খেয়াল নেই। গাড়ির চালক-হেলপার যদি যাত্রীদের তাগিদ দিতো তাহলে সবাই মাস্ক পরেই গাড়িতে উঠতো। তারা নিজেরাই মাস্ক পড়েন না।

হেলথ অ্যান্ড হোপ স্পেশালাইজড হাসপাতালের পরিচালক ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরী ইত্তেফাক অনলাইনকে বলেন, ফের করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বিকল্প নেই। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলতে হবে। কোথাও কোনো জনসমাগম করা যাবে না। বিশেষ করে গণপরিবহনসহ পাবলিক প্লেসে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের আরও কঠোর হতে হবে।