ঢাকা ১২:৩৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগ এর সদস্য নির্বাচিত (২০২২) এর গনসংবর্ধনা চট্টগ্রামের আলোচিত শিশু আয়াত হত্যা: আসামি আবির দুই দিনের রিমান্ডে ফুলবাড়ীতে অগ্নিকাণ্ডে বিদেশি গরু সহ বাড়ি পুড়ে ভস্মীভূত। ক্ষয়ক্ষতি প্রায় ৯ লক্ষ টাকা কাশিমপুর প্রেসক্লাবে কার্ডধারী সাংবাদিক নেতা মাজহারুল ইসলাম প্রতিক সন্দ্বীপে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান  সংবর্ধনা মোংলা পৌর যুবলীগের সভাপতি/ সম্পাদকের অসাংগঠনিক কার্যকলাপের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন ঠাকুরগাঁওয়ে হানিফ কোচের ধাক্কায় সড়কে প্রাণ গেল বাবা-মা ও মেয়ের বিএমএসএফ নিজস্ব গঠনতন্ত্রে পরিচালিত ট্রাস্টিনামা দলিলের অন্তর্ভুক্ত নয় -সাধারণ সভায় নেতৃবৃন্দ শহর সমাজসেবা কার্যালয়(২)খুলনার কার্যক্রম উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি স্বাবলম্বী করতে মন্ত্রণালয় দৃষ্টি দিবেন কি?

সপ্তম শেনীর ছাত্রী কে ৯ মাসের গর্ভবতী কালিহাতী পৌর এলাকায়

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৬:২২:১৯ পূর্বাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১
  • ১৮৫ বার পঠিত

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :
টাঙ্গাইলের কালিহাতী পৌর এলাকায় ৯ মাসের গর্ভবতী সপ্তম শেনীর ছাত্রীকে সাড়ে ৪ লাখ টাকা বিনিময়ে প্রভাবশালী মহল গ্রামছাড়া করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কালিহাতী পৌর সভার উত্তর বেতডোবা এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয়রা জানান, পৌরসভার প্রভাবশালী ষষ্টি পাল(৫০), রনি পালের ছেলে মিঠু পাল (২২) ও নিতাই পালের ছেলে প্রশান্ত পাল (২১) একই এলাকার সপ্তম শেনীর ছাত্রীকে জোর পুর্বক একা পেয়ে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ফলে ১৩ বছরের শিশুটি ৯ মাসের গর্ভবতী হয়ে পড়েছে।

ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর গত মঙ্গলবার রাতে বিষয়টি মীমাংসার জন্য স্থানীয় কাউন্সিলরের মাধ্যমে সাড়ে ৪ লাখ টাকা বিনিময়ে ওই গর্ভবতী সপ্তম শেনীর ছাত্রীকে গ্রামছেড়ে অন্যত্র স্থানে রাখার সিদ্ধান্ত দেন। স্থানীয়রা জানান, ওই ৯ মাসের গর্ভবতী শিশুটিকে বাচ্চা নষ্ট করার জন্য তাকে এলাকা ছাড়ে অন্যত্র এলাকায় রেখেছে। গর্ভবতী করার সময় ওই শিশুটিও দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে মনে করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কালিহাতী পৌর সভার কাউন্সিলর অজয় কুমার লিটন দে বলেন, ‘ঘটনাটি শুনেছি তবে মীমাংসার বিষয়ে জানিনা। সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য বলেন তিনি। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন অভিযুক্ত ষষ্টি পাল, মিঠু পাল, প্রশান্ত পাল। তাদের বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তবে ষষ্টি পালের স্ত্রী জানান, স্থানীয় মাতাব্বররা মীমাংসা করে দিয়েছে।এদিকে ৯ মাসের গর্ভবতী শিশুটিকে বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, তাকে অন্যত্র স্থানে লুকিয়ে রেখেছে বাচ্চা প্রসব করানের জন্য। কালিহাতী থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন বলেন, এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। এ বিষয়ে কালিহাতী থানা তদন্ত (ওসি) নজরুল ইসলাম বিস্তারিত খোঁজ নিতে ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা পাওয়া গেছে বলে জানান।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগ এর সদস্য নির্বাচিত (২০২২) এর গনসংবর্ধনা

সপ্তম শেনীর ছাত্রী কে ৯ মাসের গর্ভবতী কালিহাতী পৌর এলাকায়

আপডেট টাইম : ০৬:২২:১৯ পূর্বাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :
টাঙ্গাইলের কালিহাতী পৌর এলাকায় ৯ মাসের গর্ভবতী সপ্তম শেনীর ছাত্রীকে সাড়ে ৪ লাখ টাকা বিনিময়ে প্রভাবশালী মহল গ্রামছাড়া করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কালিহাতী পৌর সভার উত্তর বেতডোবা এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয়রা জানান, পৌরসভার প্রভাবশালী ষষ্টি পাল(৫০), রনি পালের ছেলে মিঠু পাল (২২) ও নিতাই পালের ছেলে প্রশান্ত পাল (২১) একই এলাকার সপ্তম শেনীর ছাত্রীকে জোর পুর্বক একা পেয়ে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ফলে ১৩ বছরের শিশুটি ৯ মাসের গর্ভবতী হয়ে পড়েছে।

ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর গত মঙ্গলবার রাতে বিষয়টি মীমাংসার জন্য স্থানীয় কাউন্সিলরের মাধ্যমে সাড়ে ৪ লাখ টাকা বিনিময়ে ওই গর্ভবতী সপ্তম শেনীর ছাত্রীকে গ্রামছেড়ে অন্যত্র স্থানে রাখার সিদ্ধান্ত দেন। স্থানীয়রা জানান, ওই ৯ মাসের গর্ভবতী শিশুটিকে বাচ্চা নষ্ট করার জন্য তাকে এলাকা ছাড়ে অন্যত্র এলাকায় রেখেছে। গর্ভবতী করার সময় ওই শিশুটিও দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে মনে করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কালিহাতী পৌর সভার কাউন্সিলর অজয় কুমার লিটন দে বলেন, ‘ঘটনাটি শুনেছি তবে মীমাংসার বিষয়ে জানিনা। সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য বলেন তিনি। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন অভিযুক্ত ষষ্টি পাল, মিঠু পাল, প্রশান্ত পাল। তাদের বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তবে ষষ্টি পালের স্ত্রী জানান, স্থানীয় মাতাব্বররা মীমাংসা করে দিয়েছে।এদিকে ৯ মাসের গর্ভবতী শিশুটিকে বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, তাকে অন্যত্র স্থানে লুকিয়ে রেখেছে বাচ্চা প্রসব করানের জন্য। কালিহাতী থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন বলেন, এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। এ বিষয়ে কালিহাতী থানা তদন্ত (ওসি) নজরুল ইসলাম বিস্তারিত খোঁজ নিতে ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা পাওয়া গেছে বলে জানান।