ঢাকা ০৯:৫২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ইপিজেড থানা পুলিশের অভিযানে (৫০)লিটার দেশীয় তৈরী চোলাই মদ সহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার আবারো বাংলাদেশি যুবক আশিকের বিশ্ব রেকর্ড বিমান বাহিনীর নতুন প্রধান হাসান মাহমুদ খাঁন আজ ঘূর্ণিঝড় রেমাল বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে ২৫ লাখ গ্রাহক মোংলায় ঘূর্ণিঝড় রিমেল মোকাবেলায় ব্যাপক কাজ করছে উপজেলা প্রশাসন রায়পুরে সেপটিক ট্যাংকে নেমে আবারও দুই যুবকে মৃত্যু জামালপুরে সবজি চাষে জৈব সার ব্যবহারের উদ্যোগ ঘূর্ণিঝড় রেমাল সতর্কতায় কোস্টগার্ডের মাইকিং টঙ্গীতে রাজনীতির ছত্রছায়ায় ফকির মার্কেটের সুলতানার মাদক ব্যবসা জমজমাট। সবকিছুই জানে, এখনো কেন গ্রেফতার হয়নি, প্রশ্ন আনারকন্যার

অব্যবহার, অবহেলায় ও অযত্নে পরিত্যাক্ত  বিরামপুর কারাগার

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৯:২০:৩৩ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১
  • ৩৬০ ০.০০০ বার পাঠক

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, জেলা প্রতিনিধি।।

দিনাজপুর জেলার দক্ষিণ পুর্ব এলাকার ৬টি উপজেলার সাধারণ জনগনের সুবিধার্থে আশির দশকে সাবেক রাষ্ট্রপতি  হোসেইন মো. এরশাদের  আমলে বিরামপুর উপজেলায় নির্মিত হয়েছিল কারাগার। ততকালীন এরশাদ সরকারের আমলে প্রতিটি উপজেলা আদালতে জনগণের মামলার বিচার কাজ পরিচালনা হয়ে আসছিল।

সরকার পরিবর্তন হওয়ার পর প্রতিটি উপজেলার আদালত আবার জেলা শহরে  ফিরিয়ে নেয়া হয়। তখন থেকেই বিরামপুর কারাগার টি অব্যবহারিত ও পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকে। যার কারনে কারাগারের চারপাশে ঝোপঝাড়ে পরিপূর্ণ হয় আর সেই এলাকা হয়ে উঠে মাদক সেবন ও অসামাজিক কার্যক্রমের আকড়া। এবং কারাগারের আশপাশের কিছু জমি চলে যায় কিছু অবৈধ দখলদারের হাতে। যে কারণে কারাগারের পাশের আবাসিক এলাকার পরিবেশ হচ্ছে নস্ট।

এবিষয়ে বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমারের সঙ্গে তার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন কারাগার টি এখন সমাজ কল্যান মন্ত্রণালয়ের অধিনে, আমরা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছি মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলে বিরামপুর সমাজ সেবা অফিস তাদের মতোকরে সেটি ব্যবহার করবে।

বিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ খায়রুল ইসলাম রাজুর নিকট এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন সমাজ কল্যান মন্ত্রনালয়ে অনুমোদন পাবার পর কারাগার টিতে শিশু শিক্ষা ও শিশুকল্যান বিষয়ক কর্মশালার উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

বিরামপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মোঃ আক্কাস আলী সাহেবের মুঠোফোনে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন যত তাড়াতাড়ি কারাগার টি সংস্কার করে সরকারি কোনো কর্মকাণ্ড পরিচালনা করবে কতৃপক্ষ, তত তাড়াতাড়ি ঐ এলাকায় সাভাবিক পরিবেশ ফিরে আসবে, আর এ ব্যপারে বিরামপুর পৌরসভা কতৃক সকল সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

বিরামপুর উপজেলার সচেতন জনগন সরকারি এই সম্পত্তিতে সরকারি কার্যক্রমের আওতায় এনে কারাগার এলাকার জমি জবরদখল মুক্ত,মাদক ও অসামাজিক কার্যকলাপ মুক্ত  সাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানান।।

দৈনিক সময়ের কন্ঠ ও দৈনিক ভোরের ধ্বনি।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ইপিজেড থানা পুলিশের অভিযানে (৫০)লিটার দেশীয় তৈরী চোলাই মদ সহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

অব্যবহার, অবহেলায় ও অযত্নে পরিত্যাক্ত  বিরামপুর কারাগার

আপডেট টাইম : ০৯:২০:৩৩ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, জেলা প্রতিনিধি।।

দিনাজপুর জেলার দক্ষিণ পুর্ব এলাকার ৬টি উপজেলার সাধারণ জনগনের সুবিধার্থে আশির দশকে সাবেক রাষ্ট্রপতি  হোসেইন মো. এরশাদের  আমলে বিরামপুর উপজেলায় নির্মিত হয়েছিল কারাগার। ততকালীন এরশাদ সরকারের আমলে প্রতিটি উপজেলা আদালতে জনগণের মামলার বিচার কাজ পরিচালনা হয়ে আসছিল।

সরকার পরিবর্তন হওয়ার পর প্রতিটি উপজেলার আদালত আবার জেলা শহরে  ফিরিয়ে নেয়া হয়। তখন থেকেই বিরামপুর কারাগার টি অব্যবহারিত ও পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকে। যার কারনে কারাগারের চারপাশে ঝোপঝাড়ে পরিপূর্ণ হয় আর সেই এলাকা হয়ে উঠে মাদক সেবন ও অসামাজিক কার্যক্রমের আকড়া। এবং কারাগারের আশপাশের কিছু জমি চলে যায় কিছু অবৈধ দখলদারের হাতে। যে কারণে কারাগারের পাশের আবাসিক এলাকার পরিবেশ হচ্ছে নস্ট।

এবিষয়ে বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমারের সঙ্গে তার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন কারাগার টি এখন সমাজ কল্যান মন্ত্রণালয়ের অধিনে, আমরা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছি মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলে বিরামপুর সমাজ সেবা অফিস তাদের মতোকরে সেটি ব্যবহার করবে।

বিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ খায়রুল ইসলাম রাজুর নিকট এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন সমাজ কল্যান মন্ত্রনালয়ে অনুমোদন পাবার পর কারাগার টিতে শিশু শিক্ষা ও শিশুকল্যান বিষয়ক কর্মশালার উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

বিরামপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মোঃ আক্কাস আলী সাহেবের মুঠোফোনে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন যত তাড়াতাড়ি কারাগার টি সংস্কার করে সরকারি কোনো কর্মকাণ্ড পরিচালনা করবে কতৃপক্ষ, তত তাড়াতাড়ি ঐ এলাকায় সাভাবিক পরিবেশ ফিরে আসবে, আর এ ব্যপারে বিরামপুর পৌরসভা কতৃক সকল সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

বিরামপুর উপজেলার সচেতন জনগন সরকারি এই সম্পত্তিতে সরকারি কার্যক্রমের আওতায় এনে কারাগার এলাকার জমি জবরদখল মুক্ত,মাদক ও অসামাজিক কার্যকলাপ মুক্ত  সাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানান।।

দৈনিক সময়ের কন্ঠ ও দৈনিক ভোরের ধ্বনি।