ঢাকা ০৩:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
বারইখালিতে পুত্রের সামনে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করা, আসামি ফরিদ ও আসিফ গ্রেফতার নান্দাইলে বিদ্যুৎপৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু বাংলাদেশী তৈরি টুটু পিস্তল,চাইনিজ কুড়াল ৫০০ গ্রাম গাঁজা সহ ০৪ জন কিশোর গ্যাং এর সদস্য গ্রেফতার বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জে মটরসাইকেল চালককে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা, ছেলের অবস্থা আশঙ্কাজনক নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ এর মিজমিজি এলাকায় বৈধ গ্যাস লাইন পুনঃ সংযোগ এর দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন মোংলায় ২৮৪ জন বনদস্যুকে ঈদ উপহার দিলো র‌্যাব-৮ লক্ষ্মীপুরে টাকা আত্মসাতের মামলায় চেয়ারম্যান কারাগারে লক্ষ্মীপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বীজ ব্যবসায়ীর জরিমানা কুয়াকাটা সৈকতে পদ্মার ঢেউ, পর্যটকরা এখন দক্ষিণমুখী নিজ প্রতিভার বিকাশ ঘটিয়ে দর্শকদের দৃষ্টি কেড়েছে ৩য় শ্রেণির ছাত্রী লাবিবা

দেড়শ বিঘা সম্পত্তি দুই তলা বাড়ি গাড়ির মালিক পরিচয় দিয়ে বড়লোকের মেয়ে নিয়ে উধাও এক প্রতারক

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৭:১৮:০৫ পূর্বাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২২
  • ৭৪ বার পঠিত

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারের একমাত্র মেয়েকে প্রতারণা করে ভাগিয়ে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তালা উপজেলার শালিখা গ্রামের দিনমজুর মজিদ গাজীর ছেলে প্রতারক মাদক সেবি ও জাল টাকার ব্যবসায়ী আরিফুল গাজী অপকর্মটি করেছে বলে জানান মেয়ের বড় ভাই। মেয়ের বড় ভাইয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ি জানা গেছে, আনুমানিক দুই বছর পূর্বে আরিফুল সাতক্ষীরার একটি মোটরসাইকেল শোরুমে চাকরি করতো। ওই শোরুমে মোটরসাইকেল কিনতে গেলে মেয়ের বড় ভাইয়ের সাথে আরিফুলের পরিচয় হয়। আরিফুল চাকরির সুবাদে কাদাকাটি এলাকায় মোটরসাইকেলের কিস্তি আদায় করতে গিয়ে সমস্যার সম্মুখীন হয়ে মেয়ের বড় ভাইয়ের সহযোগিতা নেয় এবং তাদের ভিতর সম্পর্কটা আরো ভালো হয়। এর পর কোন এক অপকর্ম করার কারণে সাতক্ষীরার মোটরসাইকেল শোরুম হতে আরিফুলের চাকরি চলে যায়। মোটরসাইকেল শোরুমের চাকরি চলে যাওয়ার পরে আরিফুল বুধহাটায় মিনিস্টার মাইওয়ান শোরুমে চাকরি নেয়। শোরুমের কিস্তির টাকা আদায়ের জন্য আরিফুল নিয়মিত কাদাকাটি এলাকায় যাতায়াত করতে থাকে। এসময় আরিফুল মেয়ের বড় ভাইয়ের সাথে পরিচয়ের সূত্র ধরে মাঝে মাঝে ওই মেয়েদের বাড়িতে যাতায়াত শুরু করে। মেয়ের বাড়িতে গিয়ে প্রতারক আরিফুল নিজেকে (১৫০) বিঘা সম্পত্তি দুই তলা বাড়ি গাড়ি সহ অঢেল ধন-সম্পদের মালিক এর একমাত্র ছেলে পরিচয় দেয়। প্রতারক আরিফুল মেয়ের বাড়িতে এবং কাদাকাটি এলাকায় আরও বলেছেন তার পিতা একজন বিশিষ্ট ঠিকাদার। এভাবে বিভিন্ন চটকদার লোভনীয় গল্প বলে আরিফুল কাদাকাটি এলাকায় নিজেকে পরিচিত করে। গত (৩জানুয়ারি) ইংরেজি তারিখ বিকালে আরিফুল ফোনে মেয়েকে বাড়ি থেকে বাইরে ডেকে নিয়ে পালিয়ে চলে যায়। তবে মেয়ে আরিফুলের সাথে স্বেচ্ছায় চলে গেছে নাকি তাকে অন্যকোন প্রয়োজনের কথা বলে বাইরে ডেকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এ বিষয়ে কোনো তথ্য কেউ দিতে পারছেন না। এ বিষয়ে তথ্য অনুসন্ধানের জন্য সরেজমিনে আরিফুলের বাড়িতে গেলে বাড়িতে কাউকে পাওয়া যায়নি। পাড়া প্রতিবেশীদের সাথে কথা বলে জানা যায় আরিফুলের বিভিন্ন অপকর্মের ইতিহাস। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার একাধিক ব্যক্তি বলেন আরিফুল বিভিন্ন এলাকায় এ ধরনের প্রতারণা মাদক কারবার মাদক সেবন ও জাল টাকা কারবার করে বেড়ায়। তারা আরো বলেন কিছুদিন আগে আরিফুল জাল টাকাসহ ধরা খেয়েছিল এবং তার নামে জাল টাকার মামলা আছে। এলাকাবাসী আরো বলেন, আরিফুলের পিতার কিছুই নেই, তার পিতা-মাতা অন্যের খেতে দিনমজুরির কাজ করে সংসার চালায়। আরিফুল-দের বাড়ির উঠানে প্রবেশ করে দেখা যায় শালিখা নদীর চরে সরকারি জায়গায় একটা ভাঙাচোরা মাটির খুপড়ি ঘর। ঘরের মাটির দেয়াল খসে খসে পড়ছে। এলাকাবাসী আরও বলেন মেয়ে নিয়ে পালানোর পরে আরিফুলদের বাড়িতে কেউ থাকে না, আরিফুলের মা ও তার ছোট বোন প্রতিদিন সন্ধ্যায় বাড়িতে আসে এবং খুব ভোরে বাড়ি থেকে চলে যায়, ঘটনার পর থেকে আরিফুলের পিতাকে একেবারে দেখা যাচ্ছেনা। অন্যদিকে মেয়েপক্ষ তাদের একমাত্র মেয়েকে হারিয়ে পাগল প্রায়। তারা ছেলের বাড়ির সহ বিভিন্ন এলাকায় তন্নতন্ন করে মেয়েকে খুঁজে বেড়াচ্ছেন। এ বিষয়ে কোনো আইনি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে মেয়ের বড় ভাই বলেন, আমরা মান-সম্মানের ভয়ে এখনো কোনো আইনি পদক্ষেপ নেয়নি। ছেলের বাড়িতে কাউকে না পাওয়ায় এবং প্রতারক আরিফুলের ফোন বন্ধ থাকায় তাদের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। মেয়ের অভিভাবকরা তাদের একমাত্র মেয়েকে খুঁজে পেতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

জাতীয় আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

বারইখালিতে পুত্রের সামনে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করা, আসামি ফরিদ ও আসিফ গ্রেফতার

দেড়শ বিঘা সম্পত্তি দুই তলা বাড়ি গাড়ির মালিক পরিচয় দিয়ে বড়লোকের মেয়ে নিয়ে উধাও এক প্রতারক

আপডেট টাইম : ০৭:১৮:০৫ পূর্বাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২২

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি : আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারের একমাত্র মেয়েকে প্রতারণা করে ভাগিয়ে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তালা উপজেলার শালিখা গ্রামের দিনমজুর মজিদ গাজীর ছেলে প্রতারক মাদক সেবি ও জাল টাকার ব্যবসায়ী আরিফুল গাজী অপকর্মটি করেছে বলে জানান মেয়ের বড় ভাই। মেয়ের বড় ভাইয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ি জানা গেছে, আনুমানিক দুই বছর পূর্বে আরিফুল সাতক্ষীরার একটি মোটরসাইকেল শোরুমে চাকরি করতো। ওই শোরুমে মোটরসাইকেল কিনতে গেলে মেয়ের বড় ভাইয়ের সাথে আরিফুলের পরিচয় হয়। আরিফুল চাকরির সুবাদে কাদাকাটি এলাকায় মোটরসাইকেলের কিস্তি আদায় করতে গিয়ে সমস্যার সম্মুখীন হয়ে মেয়ের বড় ভাইয়ের সহযোগিতা নেয় এবং তাদের ভিতর সম্পর্কটা আরো ভালো হয়। এর পর কোন এক অপকর্ম করার কারণে সাতক্ষীরার মোটরসাইকেল শোরুম হতে আরিফুলের চাকরি চলে যায়। মোটরসাইকেল শোরুমের চাকরি চলে যাওয়ার পরে আরিফুল বুধহাটায় মিনিস্টার মাইওয়ান শোরুমে চাকরি নেয়। শোরুমের কিস্তির টাকা আদায়ের জন্য আরিফুল নিয়মিত কাদাকাটি এলাকায় যাতায়াত করতে থাকে। এসময় আরিফুল মেয়ের বড় ভাইয়ের সাথে পরিচয়ের সূত্র ধরে মাঝে মাঝে ওই মেয়েদের বাড়িতে যাতায়াত শুরু করে। মেয়ের বাড়িতে গিয়ে প্রতারক আরিফুল নিজেকে (১৫০) বিঘা সম্পত্তি দুই তলা বাড়ি গাড়ি সহ অঢেল ধন-সম্পদের মালিক এর একমাত্র ছেলে পরিচয় দেয়। প্রতারক আরিফুল মেয়ের বাড়িতে এবং কাদাকাটি এলাকায় আরও বলেছেন তার পিতা একজন বিশিষ্ট ঠিকাদার। এভাবে বিভিন্ন চটকদার লোভনীয় গল্প বলে আরিফুল কাদাকাটি এলাকায় নিজেকে পরিচিত করে। গত (৩জানুয়ারি) ইংরেজি তারিখ বিকালে আরিফুল ফোনে মেয়েকে বাড়ি থেকে বাইরে ডেকে নিয়ে পালিয়ে চলে যায়। তবে মেয়ে আরিফুলের সাথে স্বেচ্ছায় চলে গেছে নাকি তাকে অন্যকোন প্রয়োজনের কথা বলে বাইরে ডেকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এ বিষয়ে কোনো তথ্য কেউ দিতে পারছেন না। এ বিষয়ে তথ্য অনুসন্ধানের জন্য সরেজমিনে আরিফুলের বাড়িতে গেলে বাড়িতে কাউকে পাওয়া যায়নি। পাড়া প্রতিবেশীদের সাথে কথা বলে জানা যায় আরিফুলের বিভিন্ন অপকর্মের ইতিহাস। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার একাধিক ব্যক্তি বলেন আরিফুল বিভিন্ন এলাকায় এ ধরনের প্রতারণা মাদক কারবার মাদক সেবন ও জাল টাকা কারবার করে বেড়ায়। তারা আরো বলেন কিছুদিন আগে আরিফুল জাল টাকাসহ ধরা খেয়েছিল এবং তার নামে জাল টাকার মামলা আছে। এলাকাবাসী আরো বলেন, আরিফুলের পিতার কিছুই নেই, তার পিতা-মাতা অন্যের খেতে দিনমজুরির কাজ করে সংসার চালায়। আরিফুল-দের বাড়ির উঠানে প্রবেশ করে দেখা যায় শালিখা নদীর চরে সরকারি জায়গায় একটা ভাঙাচোরা মাটির খুপড়ি ঘর। ঘরের মাটির দেয়াল খসে খসে পড়ছে। এলাকাবাসী আরও বলেন মেয়ে নিয়ে পালানোর পরে আরিফুলদের বাড়িতে কেউ থাকে না, আরিফুলের মা ও তার ছোট বোন প্রতিদিন সন্ধ্যায় বাড়িতে আসে এবং খুব ভোরে বাড়ি থেকে চলে যায়, ঘটনার পর থেকে আরিফুলের পিতাকে একেবারে দেখা যাচ্ছেনা। অন্যদিকে মেয়েপক্ষ তাদের একমাত্র মেয়েকে হারিয়ে পাগল প্রায়। তারা ছেলের বাড়ির সহ বিভিন্ন এলাকায় তন্নতন্ন করে মেয়েকে খুঁজে বেড়াচ্ছেন। এ বিষয়ে কোনো আইনি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে মেয়ের বড় ভাই বলেন, আমরা মান-সম্মানের ভয়ে এখনো কোনো আইনি পদক্ষেপ নেয়নি। ছেলের বাড়িতে কাউকে না পাওয়ায় এবং প্রতারক আরিফুলের ফোন বন্ধ থাকায় তাদের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। মেয়ের অভিভাবকরা তাদের একমাত্র মেয়েকে খুঁজে পেতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।