ঢাকা ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
পানি নিস্কাশনের রাস্তা বন্ধ করে পুকুর নির্মানের কারনে প্রায় শত বিঘা ফসলী জমি পানির নীচে ইবি শিক্ষার্থীকে গলাটিপে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় বেগম জাহানারা হান্নান উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩য় বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্টিত জামালপুরে ভেজাল কীটনাশকে বাজার সয়লাব, কৃষি শিল্প ধ্বংসের পাঁয়তারা মোংলায় সিবিএ নির্বাচন নিয়ে শ্রমিক-কর্মচারীদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে নওগাঁ প্রাইভেট কার থেকে ৭২ কেজি গাঁজাসহ এক জন গ্রেপ্তার ভাষা সৈনিক মোস্তফা এম এ মতিন সাহিত্য পুরস্কার পেলেন হোসেনপুরের কবি শাহ আলম বিল্লাল গুজরাটের পোরবন্দরের জলসীমায় ২২০০০হাজার, কোটি টাকার মাদকদ্রব্য আটক করেছে নৌবাহিনী ও এনসিবি, গ্রেপ্তার পাঁচ পাক নাগরিক রায়পুরে অসামাজিক কার্যকলাপে আটক ৫ রাজধানীর ৪ হাসপাতালে র‍্যাবের অভিযান

মির্জাপুরে মাদককারবারীদের নিউজ প্রকাশ করায় তথ্যদাঁতা ও সাংবাদিক কে হুমকি

বিশেষ প্রতিনিধি।।

টাংগাইল জেলার মির্জাপুর থানায় বিশিষ্ট মাদককারবারীদের বিরুদ্ধে নিউজ করায় তথ্যদাঁতা ও সাংবাদিকদের হুমকি,মির্জাপুর থানার বিভিন্ন অন্চলে চুরি ছিনতাই যেন প্রতিদিনের নিত্যনতুন ঘটনা।মাদকের কারণে এলাকায় চুরি,ডাকাতি,ছিনতাই বেড়ে চলেছে।এমন তথ্য যাচাই করে বিগত ৮ ই নভেম্বর (২০২১)দৈনিক সময়ের কন্ঠ পত্রিকায় নিউজ প্রকাশ করা হলে,মাদককারবারীদের সিন্ডিকেট সন্ত্রাসবাহিনীরা সাংবাদিকদের প্রাননাশের হুমকি দিলেন,মাদককারবারীদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করার প্রস্তুতি চলছেও বলে জানাযায়,দির্ঘদিন ধরে মির্জাপুর থানার সত্তদাগর এলাকার ৪ নং ওয়ার্ড সরকারি রেল লাইনের উপরে প্রতিনিয়ত মাদক ব্যবসা জমজমাট করে যাচ্ছেন মাদক ব্যবসায়ী( ১) মোঃ লাভলু মিস্ত্রি পিতাঃ শুকুর আলী ,(২), শাহেদ আলী পিতাঃ জাহের আলী ,(৩) রাজু পিতাঃ শরীফ আলী ,(৪)বিদেশী,পিতাঃ হেন্ডন আলী(৫) বেল্লাল,পিতাঃ জনু মিয়া,(৬) মাসুদ রানা,পিতাঃ অজ্ঞাত এদের লিডার শোয়েব আলী ফকির,কিছু প্রশাসনের অসাধু ব্যাক্তি এদের ব্যাপারে যেনেও না জানার ভান করেন,এরা দেশের নোংরা কিট,এরা ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে এমন কোনো দুর্নীতির কাজ নয় যে এরা করেনা,এদেরকে আইনের আওতায় আনতে
প্রশাসনের সুূদৃষ্টি কামনা করেন এলাকার সচেতন মহল,এরা কিছুদিন পূর্বে ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে ছিনতাই কালে ব্যর্থ হয়ে পালিয়ে যায়।রিকশায় থাকা দুইজন যাত্রী চিৎকার করলে এলাকাবাসী বেরিয়ে এসে ছিনতাইকারী দের ধাওয়া করে,পরে তারা পালিয়ে যেতে সক্ষম হন।চোরের কবল থেকে রেহাই পায়নি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের সরকারি কোয়ার্টার,পৌরসভার মেয়র,কাউন্সিলর, সাংবাদিক,ব্যবসায়ী সহ সাধারন জনগন।মাদকের বিস্তার থেকে রক্ষার জন্য এলাকাবাসীর সহযোগিতা বড়ই প্রয়োজন।মাদক ব্যবসায়ী, মাদক বিক্রেতা ও মাদক সেবনকারীদের গ্রেফতার করে জেল-জরিমানা দেওয়া হচ্ছে,তবুও এদের বিনষ্ট করা সম্ভব হচ্ছেনা,কিছু লেবাসধারী সমাজের মধ্যমনি অসাধু ব্যাক্তি এদের সাথে সংযুক্ত থাকার কারনে,সমাজ থেকে মাদক নির্মুল করতে বিঘ্ন হচ্ছে, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, জনপ্রতিনিধি,সুশীল সমাজ ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে মাদকের কুফল নিয়ে মতবিনিময় সভা শুরু হয়েছে।জনগন আশা করছে সবার সহযোগিতায় মির্জাপুর থেকে অনতিবিলম্বে মাদকক মুক্তসহ আইন-শৃঙ্খলার উন্নয়ন সম্ভব হবে।
মুক্তিযোদ্ধা নুর হোসেন বলেন,বিভিন্ন বাসাবাড়ি ও প্রতিষ্ঠানে চুরির কারণ হচ্ছে মাদক ক্রয়-বিক্রয় ও সেবনকারী।মাদক একটি সামাজিক অপরাধ। মাদক থেকে রক্ষার জন্য অভিভাবকদের সচেতন ও তাদের সন্তানদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে সঠিক পথে পরিচালিত করতে হবে।সাংবাদিক গনে অনতিবিলম্বে উক্ত মাদককারবারীদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্যদিয়ে মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত প্রতিবেদন ও সমগ্র তথ্য প্রেরন করে,মাদক কারবারীদের চিহিন্নীত করে মাদক নির্মুল করতে সহযোগীতা করবেন বলে জানিয়েছেন।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

পানি নিস্কাশনের রাস্তা বন্ধ করে পুকুর নির্মানের কারনে প্রায় শত বিঘা ফসলী জমি পানির নীচে

মির্জাপুরে মাদককারবারীদের নিউজ প্রকাশ করায় তথ্যদাঁতা ও সাংবাদিক কে হুমকি

আপডেট টাইম : ০৫:৫১:২৪ অপরাহ্ণ, শনিবার, ২০ নভেম্বর ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি।।

টাংগাইল জেলার মির্জাপুর থানায় বিশিষ্ট মাদককারবারীদের বিরুদ্ধে নিউজ করায় তথ্যদাঁতা ও সাংবাদিকদের হুমকি,মির্জাপুর থানার বিভিন্ন অন্চলে চুরি ছিনতাই যেন প্রতিদিনের নিত্যনতুন ঘটনা।মাদকের কারণে এলাকায় চুরি,ডাকাতি,ছিনতাই বেড়ে চলেছে।এমন তথ্য যাচাই করে বিগত ৮ ই নভেম্বর (২০২১)দৈনিক সময়ের কন্ঠ পত্রিকায় নিউজ প্রকাশ করা হলে,মাদককারবারীদের সিন্ডিকেট সন্ত্রাসবাহিনীরা সাংবাদিকদের প্রাননাশের হুমকি দিলেন,মাদককারবারীদের বিরুদ্ধে থানায় জিডি করার প্রস্তুতি চলছেও বলে জানাযায়,দির্ঘদিন ধরে মির্জাপুর থানার সত্তদাগর এলাকার ৪ নং ওয়ার্ড সরকারি রেল লাইনের উপরে প্রতিনিয়ত মাদক ব্যবসা জমজমাট করে যাচ্ছেন মাদক ব্যবসায়ী( ১) মোঃ লাভলু মিস্ত্রি পিতাঃ শুকুর আলী ,(২), শাহেদ আলী পিতাঃ জাহের আলী ,(৩) রাজু পিতাঃ শরীফ আলী ,(৪)বিদেশী,পিতাঃ হেন্ডন আলী(৫) বেল্লাল,পিতাঃ জনু মিয়া,(৬) মাসুদ রানা,পিতাঃ অজ্ঞাত এদের লিডার শোয়েব আলী ফকির,কিছু প্রশাসনের অসাধু ব্যাক্তি এদের ব্যাপারে যেনেও না জানার ভান করেন,এরা দেশের নোংরা কিট,এরা ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নাম ভাঙ্গিয়ে এমন কোনো দুর্নীতির কাজ নয় যে এরা করেনা,এদেরকে আইনের আওতায় আনতে
প্রশাসনের সুূদৃষ্টি কামনা করেন এলাকার সচেতন মহল,এরা কিছুদিন পূর্বে ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে ছিনতাই কালে ব্যর্থ হয়ে পালিয়ে যায়।রিকশায় থাকা দুইজন যাত্রী চিৎকার করলে এলাকাবাসী বেরিয়ে এসে ছিনতাইকারী দের ধাওয়া করে,পরে তারা পালিয়ে যেতে সক্ষম হন।চোরের কবল থেকে রেহাই পায়নি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের সরকারি কোয়ার্টার,পৌরসভার মেয়র,কাউন্সিলর, সাংবাদিক,ব্যবসায়ী সহ সাধারন জনগন।মাদকের বিস্তার থেকে রক্ষার জন্য এলাকাবাসীর সহযোগিতা বড়ই প্রয়োজন।মাদক ব্যবসায়ী, মাদক বিক্রেতা ও মাদক সেবনকারীদের গ্রেফতার করে জেল-জরিমানা দেওয়া হচ্ছে,তবুও এদের বিনষ্ট করা সম্ভব হচ্ছেনা,কিছু লেবাসধারী সমাজের মধ্যমনি অসাধু ব্যাক্তি এদের সাথে সংযুক্ত থাকার কারনে,সমাজ থেকে মাদক নির্মুল করতে বিঘ্ন হচ্ছে, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, জনপ্রতিনিধি,সুশীল সমাজ ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে মাদকের কুফল নিয়ে মতবিনিময় সভা শুরু হয়েছে।জনগন আশা করছে সবার সহযোগিতায় মির্জাপুর থেকে অনতিবিলম্বে মাদকক মুক্তসহ আইন-শৃঙ্খলার উন্নয়ন সম্ভব হবে।
মুক্তিযোদ্ধা নুর হোসেন বলেন,বিভিন্ন বাসাবাড়ি ও প্রতিষ্ঠানে চুরির কারণ হচ্ছে মাদক ক্রয়-বিক্রয় ও সেবনকারী।মাদক একটি সামাজিক অপরাধ। মাদক থেকে রক্ষার জন্য অভিভাবকদের সচেতন ও তাদের সন্তানদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে সঠিক পথে পরিচালিত করতে হবে।সাংবাদিক গনে অনতিবিলম্বে উক্ত মাদককারবারীদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্যদিয়ে মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত প্রতিবেদন ও সমগ্র তথ্য প্রেরন করে,মাদক কারবারীদের চিহিন্নীত করে মাদক নির্মুল করতে সহযোগীতা করবেন বলে জানিয়েছেন।