ঢাকা ০৬:১১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে ঠাকুরগাঁও। রুহিয়া ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলা করোনাভাইরাস এর কারণে বন্ধ থাকায় আবারও পাঁচ বছর পর ১০ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে রানীশংকৈলে নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত রায়পুরে পহেলা বৈশাখে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা নবাবগঞ্জে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ পালিত ঘাটাইলে ব্যবসায়ীর হাত-পায়ের রগ কেটে সর্বস্ব লুট টঙ্গীতে চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ীর উপর হামলা: তদন্তে গিয়ে সিসিটিভি আবদার করলো পুলিশ! আনোয়ারা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে ঈদ পূর্ণমিলনী ও মত বিনিময় সভা মোংলায় নিরুদ্দেশ মোতালেব জমাদ্দারের নাতিদের আকিকা অনুষ্ঠানে হাজারও লোকের ভিড় বহিষ্কার মোঃ রবিউল ইসলাম রবি কে দৈনিক সময়ের কন্ঠ পত্রিকা ও অনলাইন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে

পাকিস্তানের ওপর ক্ষোভে ফুঁসছে আফগানরা

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট।।

আফগানিস্তানের সরকার নিয়ন্ত্রিত এলাকায়  সহিংসতা যত বাড়ছে দেশটির নাগরিকরা ততই পাকিস্তানের ওপর ক্ষোভে ফুঁসছেন। লাখ লাখ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারী টুইটারে পাকিস্তানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি জানাচ্ছেন।

সোশ্যাল মিডিয়া ইনসাইট কোম্পানি ‘টকওয়াকার’ এর বরাতে আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার পর্যন্ত ‘স্যাঙ্কশনঅনপাকিস্তান’ (পাকিস্তানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ হোক)  হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেছেন ৭ লাখ ৩০ হাজার মানুষ। হ্যাশট্যাগ ব্যবহারকারীদের ৩৭ শতাংশ আফগানিস্তানে বসে এটা করছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ট্রেন্ড শুরু করার অন্যতম প্রবক্তা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের সাবেক সাংবাদিক হাবিব খান তোতাখিল। টুইটারে তিনি লেখেন, যদি আপনি আফগানিস্তানের নাগরিক অথবা বন্ধু হয়ে থাকেন- তাহলে আওয়াজ তুলুন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের যেকোনো প্লাটফর্ম ব্যবহার করে তিনি আফগান নাগরিকদের সমর্থনে প্রক্সি যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানাতে অনুরোধ করেন। তিনি বলেন, আফগানিস্তান আজ আক্রমণের মুখে। এই মুহূর্তে আপনাদের সহায়তা প্রয়োজন।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে আফগানিস্তানের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্কের অবনতি হয়েছে। আফগানিস্তানের আশরাফ গনি সরকারের অভিযোগ- পাকিস্তান তালেবানকে সরাসরি সহায়তা করছে। তবে পাকিস্তান বরাবরই এই অভিযোগ অস্বীকার করছে। ট্রিলিয়ন ডলার আর্থিক এবং সামরিক সহযোগিতা পাওয়া সত্ত্বেও আফগান সরকারি বাহিনী কেন তালেবানের বিরুদ্ধে ব্যর্থ হচ্ছে পাকিস্তান সেই প্রশ্ন তুলছে।

ওয়াজমা ফ্রগ নামে একজন টুইটারে লেখেন, সাড়ে তিন কোটি আফগান নাগরিকের মধ্যে পাকিস্তান এক লাখের কম তালেবানকে পছন্দ করেছে। এখন আফগানিস্তানের ঘরে ঘরে শত্রু। এটা তো থাকার কথা ছিল না। পাকিস্তান কেন আফগান সরকারকে সমর্থন  করছে না, সেই প্রশ্ন রাখেন তিনি।

দাউদ জানবিস নামে এক আফগান সাংবাদিক দেশটিতে সহিংসতার জন্য পাকিস্তানকে দোষারোপ করেন। তিনি বলেন, পাকিস্তানের অস্তিত্ব সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন এবং পরিচালনার ওপর নির্ভর করে। এই বিষয়টির সমাধান না হলে পৃথিবী কারও জন্য নিরাপদ হবে না।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে

পাকিস্তানের ওপর ক্ষোভে ফুঁসছে আফগানরা

আপডেট টাইম : ০৩:১৯:০৭ অপরাহ্ণ, বুধবার, ১১ আগস্ট ২০২১

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট।।

আফগানিস্তানের সরকার নিয়ন্ত্রিত এলাকায়  সহিংসতা যত বাড়ছে দেশটির নাগরিকরা ততই পাকিস্তানের ওপর ক্ষোভে ফুঁসছেন। লাখ লাখ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারী টুইটারে পাকিস্তানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি জানাচ্ছেন।

সোশ্যাল মিডিয়া ইনসাইট কোম্পানি ‘টকওয়াকার’ এর বরাতে আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার পর্যন্ত ‘স্যাঙ্কশনঅনপাকিস্তান’ (পাকিস্তানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ হোক)  হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেছেন ৭ লাখ ৩০ হাজার মানুষ। হ্যাশট্যাগ ব্যবহারকারীদের ৩৭ শতাংশ আফগানিস্তানে বসে এটা করছেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ট্রেন্ড শুরু করার অন্যতম প্রবক্তা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের সাবেক সাংবাদিক হাবিব খান তোতাখিল। টুইটারে তিনি লেখেন, যদি আপনি আফগানিস্তানের নাগরিক অথবা বন্ধু হয়ে থাকেন- তাহলে আওয়াজ তুলুন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের যেকোনো প্লাটফর্ম ব্যবহার করে তিনি আফগান নাগরিকদের সমর্থনে প্রক্সি যুদ্ধ বন্ধের আহ্বান জানাতে অনুরোধ করেন। তিনি বলেন, আফগানিস্তান আজ আক্রমণের মুখে। এই মুহূর্তে আপনাদের সহায়তা প্রয়োজন।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে আফগানিস্তানের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্কের অবনতি হয়েছে। আফগানিস্তানের আশরাফ গনি সরকারের অভিযোগ- পাকিস্তান তালেবানকে সরাসরি সহায়তা করছে। তবে পাকিস্তান বরাবরই এই অভিযোগ অস্বীকার করছে। ট্রিলিয়ন ডলার আর্থিক এবং সামরিক সহযোগিতা পাওয়া সত্ত্বেও আফগান সরকারি বাহিনী কেন তালেবানের বিরুদ্ধে ব্যর্থ হচ্ছে পাকিস্তান সেই প্রশ্ন তুলছে।

ওয়াজমা ফ্রগ নামে একজন টুইটারে লেখেন, সাড়ে তিন কোটি আফগান নাগরিকের মধ্যে পাকিস্তান এক লাখের কম তালেবানকে পছন্দ করেছে। এখন আফগানিস্তানের ঘরে ঘরে শত্রু। এটা তো থাকার কথা ছিল না। পাকিস্তান কেন আফগান সরকারকে সমর্থন  করছে না, সেই প্রশ্ন রাখেন তিনি।

দাউদ জানবিস নামে এক আফগান সাংবাদিক দেশটিতে সহিংসতার জন্য পাকিস্তানকে দোষারোপ করেন। তিনি বলেন, পাকিস্তানের অস্তিত্ব সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন এবং পরিচালনার ওপর নির্ভর করে। এই বিষয়টির সমাধান না হলে পৃথিবী কারও জন্য নিরাপদ হবে না।