ঢাকা ০১:৩৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জের শায়েস্তাঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ১বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার দিন দিন বেড়েই চলছে পণ্য, বাজারজুড়ে দীর্ঘশ্বাস পারমাণবিক চুক্তির দ্বারপ্রান্তে ইরান ও পশ্চিমা দেশগুলো  পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের ব্যাখ্যা চাই: মির্জা ফখরুল কসবায় চার হাজার পিস ইয়াবাসহ যুবক গ্রেফতার যশোরের শার্শার রুদ্রপুর সীমান্তে সোনারবারসহ পাচারকারী আটক গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান কাশিমপুরে ৭ বছরের এক মাদ্রাসার। ছাত্র কে বলাৎকারে এক মুদি, দোকানদার আটক আশুলিয়া থানা যুবলীগের আয়োজনে জাতিয় শোক দিবস পালন অপশাসন কী, অপশাসনের ফল কী হতে পারে, বাংলাদেশের মানুষ তা প্রত্যক্ষ করেছে ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত

রাজধানীতে সাবেক ওয়ার্ড যুবলীগ নেতাকে গুলি, অবস্থা আশঙ্কাজনক

স্টাফ রিপোর্টার।।

রাজধানীতে পূর্বশত্রুতার জেরে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন সবেক ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম (৩৫)। বর্তমানে তিনি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শনিবার (১৫ মে) সন্ধ্যা ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম খিলগাঁও ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

সাইফুল ইসলামের স্ত্রী সুমি জানান, বাসার কাছে খিলগাঁও রেলগেট এলাকায় সুমন, রিপন, রাসেল, অনিক ও কচিসহ ১০ জনের সঙ্গে কথা কাটকাটি হয় সাইফুলের। এক পর্যায়ে রিপন নামে একজন তার পেট-বুকে তিনটি গুলি করে পালিয়ে যায়। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে আসি।তিনি আরও বলেন, কী কারণে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছে এ বিষয়ে আমি বলতে পারব না।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী ইনচার্জ (এএসআই) আব্দুল্লাহ খান জানিয়েছেন, খিলগাঁও থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সাইফুল ইসলাম নামে একজন এসেছেন। আমরা জানতে পেরেছি তিনি খিলগাঁও ২ নম্বর ওয়ার্ডের যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। পূর্বশত্রুতার জেরে সাইফুলকে গুলি করে রিপন। তার বুকের ডানপাশে একটি, পেটের বামপাশে একটিসহ মোট তিনটি গুলি লাগে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ইন্সপেক্টর শেখ আমিনুল বাশার বলেন, সাইফুল ইসলাম ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের খিলগাঁওয়ের ২ নং ওয়ার্ডের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। এখন তিনি রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নন।

এর আগে ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের সবুজবাগ বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রাশেদ হাসান ঢাকা পোস্টকে বলেন, খিলগাঁও রেলগেট থেকে সবুজবাগের দিকে যেতে চায়না পার্ক নামে একটি ভবনের সামনে সাইফুল সন্ত্রাসীদের হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

তিনি বলেন, পূর্ব শত্রুতার জেরে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। সাইফুলের নামেও থানায় খুনের মামলা রয়েছে। পুরো ঘটনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

আরও রিপোর্টঃ

গত  বসরের রাজধানীর খিলগাঁও গোড়ান নূরবাগ এলাকায় বাশার তালুকদার (৩০) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করার কেন্দ্র করায়া এই   ঘটনা টি হয়েছে।

পূর্ব শত্রুতার জেরধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে পরিবারের দাবি।গতকাল বুধবার রাত ৯টার দিকে মাদানী ঝিলপার নূরবাগ পানির পাম্প সংলগ্ন রাস্তায় এই ঘটনাটি ঘটে। পরে বাদশাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে রাত সাড়ে ১০ দিকে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
মাদারীপুর সদর উপজেলার মৃত মাজেব তালুকদারের সন্তান নিহত বাশার স্ত্রীকে নিয়ে খিলগাঁও উত্তর গোড়ান এলাকায় থাকতেন।
নিহতের বড় ভাই উজ্জল তালুকদার বলেন, ‘ষড়যন্ত্র করে আমার ছোট ভাই বাশারকে মাদক দিয়ে পুলিশের কাছে ধরিয়ে দিয়েছিল স্থানীয় সাইফুল ও তার লোকজন। পরে মাদক মামলায় সে জেল খাটে। আনুমানিক দেড় মাস হয় বাশার জামিনে মুক্তি পেয়ে জেলখানা থেকে বের হয়েছে।
তিনি জানান, নুরবাগ মাদানীঝিল এর মধ্যবর্তী স্থান পানির পাম্প সংলগ্ন রাস্তায় দিয়ে হেঁটে বাসায় ফিরছিল বাশার।  হঠাৎ সাইফুলের লোকজন অতর্কিত তার ওপর হামলা করে। তাকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে আহত করে। পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢামেকে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাইফুলের লোকজনই তার নির্দেশক্রমে তার ভাই বাদশাকে হত্যা করে বলে অভিযোগ করেন উজ্জল।
খিলগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘ঘটনার বিস্তারিত জানার জন্য পুলিশ কাজ করছে।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

হবিগঞ্জের শায়েস্তাঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ১বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার

রাজধানীতে সাবেক ওয়ার্ড যুবলীগ নেতাকে গুলি, অবস্থা আশঙ্কাজনক

আপডেট টাইম : ০৬:১৬:৫৭ পূর্বাহ্ণ, রবিবার, ১৬ মে ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার।।

রাজধানীতে পূর্বশত্রুতার জেরে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন সবেক ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম (৩৫)। বর্তমানে তিনি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শনিবার (১৫ মে) সন্ধ্যা ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম খিলগাঁও ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

সাইফুল ইসলামের স্ত্রী সুমি জানান, বাসার কাছে খিলগাঁও রেলগেট এলাকায় সুমন, রিপন, রাসেল, অনিক ও কচিসহ ১০ জনের সঙ্গে কথা কাটকাটি হয় সাইফুলের। এক পর্যায়ে রিপন নামে একজন তার পেট-বুকে তিনটি গুলি করে পালিয়ে যায়। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে আসি।তিনি আরও বলেন, কী কারণে তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছে এ বিষয়ে আমি বলতে পারব না।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী ইনচার্জ (এএসআই) আব্দুল্লাহ খান জানিয়েছেন, খিলগাঁও থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সাইফুল ইসলাম নামে একজন এসেছেন। আমরা জানতে পেরেছি তিনি খিলগাঁও ২ নম্বর ওয়ার্ডের যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। পূর্বশত্রুতার জেরে সাইফুলকে গুলি করে রিপন। তার বুকের ডানপাশে একটি, পেটের বামপাশে একটিসহ মোট তিনটি গুলি লাগে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ইন্সপেক্টর শেখ আমিনুল বাশার বলেন, সাইফুল ইসলাম ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের খিলগাঁওয়ের ২ নং ওয়ার্ডের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। এখন তিনি রাজনীতির সঙ্গে জড়িত নন।

এর আগে ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের সবুজবাগ বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রাশেদ হাসান ঢাকা পোস্টকে বলেন, খিলগাঁও রেলগেট থেকে সবুজবাগের দিকে যেতে চায়না পার্ক নামে একটি ভবনের সামনে সাইফুল সন্ত্রাসীদের হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

তিনি বলেন, পূর্ব শত্রুতার জেরে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। সাইফুলের নামেও থানায় খুনের মামলা রয়েছে। পুরো ঘটনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

আরও রিপোর্টঃ

গত  বসরের রাজধানীর খিলগাঁও গোড়ান নূরবাগ এলাকায় বাশার তালুকদার (৩০) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করার কেন্দ্র করায়া এই   ঘটনা টি হয়েছে।

পূর্ব শত্রুতার জেরধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে পরিবারের দাবি।গতকাল বুধবার রাত ৯টার দিকে মাদানী ঝিলপার নূরবাগ পানির পাম্প সংলগ্ন রাস্তায় এই ঘটনাটি ঘটে। পরে বাদশাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে রাত সাড়ে ১০ দিকে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
মাদারীপুর সদর উপজেলার মৃত মাজেব তালুকদারের সন্তান নিহত বাশার স্ত্রীকে নিয়ে খিলগাঁও উত্তর গোড়ান এলাকায় থাকতেন।
নিহতের বড় ভাই উজ্জল তালুকদার বলেন, ‘ষড়যন্ত্র করে আমার ছোট ভাই বাশারকে মাদক দিয়ে পুলিশের কাছে ধরিয়ে দিয়েছিল স্থানীয় সাইফুল ও তার লোকজন। পরে মাদক মামলায় সে জেল খাটে। আনুমানিক দেড় মাস হয় বাশার জামিনে মুক্তি পেয়ে জেলখানা থেকে বের হয়েছে।
তিনি জানান, নুরবাগ মাদানীঝিল এর মধ্যবর্তী স্থান পানির পাম্প সংলগ্ন রাস্তায় দিয়ে হেঁটে বাসায় ফিরছিল বাশার।  হঠাৎ সাইফুলের লোকজন অতর্কিত তার ওপর হামলা করে। তাকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে আহত করে। পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢামেকে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাইফুলের লোকজনই তার নির্দেশক্রমে তার ভাই বাদশাকে হত্যা করে বলে অভিযোগ করেন উজ্জল।
খিলগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘ঘটনার বিস্তারিত জানার জন্য পুলিশ কাজ করছে।