ঢাকা ০৮:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
চট্রগ্রামের আলিচিত আয়াত হত্যা দেহের দুই টুকরার খোঁজ মিলেছে সাগরপাড়ে তারাকান্দায় জেলা প্রশাসকের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা নৌবাহিনী তে চাকুরীর প্রলোভনে ৩ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন ইব্রাহিম দুলাল আশুলিয়ায় চাঁদা না পেয়ে নির্মানকাজে বাঁধা, নির্মানসামগ্রী লুট বিজিবি এ্যাথলেটিকস্ প্রতিযোগীতায় ২০২২ ইং আত্রাইয়ে ধর্ষণের শিকার ৬ বছরের শিশু , মামলা হয়েছে থানায় জনগনের চলাচলের ব্যবস্থা সুগম করতে নিরালস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন মেম্বার শফি উদ্দিন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জনসভার নিরাপত্তায় থাকবে সাড়ে সাত হাজার পুলিশ বাহিনী প্রভাবশালীদের মেঘনার চর দখলের মহোৎসব ৩৭ বছর ভাত খান না ১৫ সন্তানের জননী জোহরা বিবি

বাঁশখালী কয়লা বিদ্যুত কেন্দ্রে পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষে নিহত ৪

বাঁশখালী রিপোর্টার ॥

চট্রগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা ইউনিয়নে নির্মিতব্য কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পুলিশ-শ্রমিক ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।সংঘর্ষে এ পর্যন্ত ৪ জনের গুলিবিদ্ধ লাশ বাঁশখালী হাসপতালে রাখা হলেও হতাহতের সংখ্যা অনেক বেশি দাবি করছেন শ্রমিকরা।তবে স্থানীয়রা জানান, পাওয়ার প্ল্যানেটের ভিতরে এখনো অসংখ্য আহত শ্রমিক রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে ।আজ শনিবার সকালে সংগঠিত সংঘর্ষে আহত শ্রমিকদের হাসপতাএলে নিতে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে। এদিকে কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আশপাশে হাজার হাজর লোক জডো হয়েছে। ওই এলাকার পরিস্থিতি যে কোন মূহুর্তে আবারও ভয়াবহ রুপ ধারণ করবে বলে শংকিত এলাকাবাসী।

শ্রমিকদের দাবি-দাওয়া নিয়ে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ছুডলে এ সংঘর্ষ বাঁধে।

দুপুর ১২ টার দিকে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও বাঁশখালী হাসপতালে আহত শ্রমিকদের স্বজনের কান্নায় এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে। সংঘর্ষ চলছে।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

চট্রগ্রামের আলিচিত আয়াত হত্যা দেহের দুই টুকরার খোঁজ মিলেছে সাগরপাড়ে

বাঁশখালী কয়লা বিদ্যুত কেন্দ্রে পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষে নিহত ৪

আপডেট টাইম : ০৭:৩৬:৪০ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১

বাঁশখালী রিপোর্টার ॥

চট্রগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা ইউনিয়নে নির্মিতব্য কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পুলিশ-শ্রমিক ফের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।সংঘর্ষে এ পর্যন্ত ৪ জনের গুলিবিদ্ধ লাশ বাঁশখালী হাসপতালে রাখা হলেও হতাহতের সংখ্যা অনেক বেশি দাবি করছেন শ্রমিকরা।তবে স্থানীয়রা জানান, পাওয়ার প্ল্যানেটের ভিতরে এখনো অসংখ্য আহত শ্রমিক রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে ।আজ শনিবার সকালে সংগঠিত সংঘর্ষে আহত শ্রমিকদের হাসপতাএলে নিতে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে। এদিকে কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আশপাশে হাজার হাজর লোক জডো হয়েছে। ওই এলাকার পরিস্থিতি যে কোন মূহুর্তে আবারও ভয়াবহ রুপ ধারণ করবে বলে শংকিত এলাকাবাসী।

শ্রমিকদের দাবি-দাওয়া নিয়ে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ছুডলে এ সংঘর্ষ বাঁধে।

দুপুর ১২ টার দিকে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও বাঁশখালী হাসপতালে আহত শ্রমিকদের স্বজনের কান্নায় এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে। সংঘর্ষ চলছে।