ঢাকা ০৪:২৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সারাদেশে ৫ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ শিশুসহ ২ জামালপুরে নকশি কাথা শিল্পে গ্রামীন মহিলারা আত্মকর্মসংস্থান খুঁজে পেয়েছে পাকুন্দিয়া -কিশোরগঞ্জ হাইওয়ে রোড নির্মাণ কাজের অগ্রহগতি সরেজমিনে পরিদর্শন করেন এডভোকেট মো.সোহরাব উদ্দীন এমপি ইপিজেড থানা পুলিশের অভিযানে (৫০)লিটার দেশীয় তৈরী চোলাই মদ সহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার আবারো বাংলাদেশি যুবক আশিকের বিশ্ব রেকর্ড বিমান বাহিনীর নতুন প্রধান হাসান মাহমুদ খাঁন আজ ঘূর্ণিঝড় রেমাল বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে ২৫ লাখ গ্রাহক মোংলায় ঘূর্ণিঝড় রিমেল মোকাবেলায় ব্যাপক কাজ করছে উপজেলা প্রশাসন রায়পুরে সেপটিক ট্যাংকে নেমে আবারও দুই যুবকে মৃত্যু জামালপুরে সবজি চাষে জৈব সার ব্যবহারের উদ্যোগ

আমতলীতে মাদ্রাসার ছাত্রী ধর্ষণের শিকার

পাথরঘাটা  প্রতিনিধি

বরগুনার আমতলীর গেন্ডামারা গ্রামে সপ্তম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ধর্ষক কামাল হোসেনকে (২৫) গ্রেফতার করেছে।

ওই ছাত্রী তার মাকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য যাচ্ছিল। এ সুযোগে তাকে একা পেয়ে লম্পট কামাল পিছু নেয়।
পথিমধ্যে নির্জন মাঠে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা ওইদিনই সন্ধ্যায় তালতলী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। ওইদিনই পুলিশ ধর্ষক কামালকে গ্রেফতার করে।
শুক্রবার পুলিশ ওই ছাত্রীর জবানবন্দি রেকর্ড করে ও ধর্ষক কামালকে আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করে। আদালতের বিচারক ওই ছাত্রীর জবানবন্দি শেষে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ও ধর্ষক কামালকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

ওই ছাত্রীর মা বলেন, লম্পট কামাল মুন্সি প্রায়ই আমার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করতো। কিন্তু আমার মেয়ে তার প্রস্তাবে সারা দেয়নি। বৃহস্পতিবার আমাকে এগিয়ে নিয়ে আসার সুযোগে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে এবং ধর্ষক কামালকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সারাদেশে ৫ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ শিশুসহ ২

আমতলীতে মাদ্রাসার ছাত্রী ধর্ষণের শিকার

আপডেট টাইম : ০৬:৩১:১৩ পূর্বাহ্ণ, রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১

পাথরঘাটা  প্রতিনিধি

বরগুনার আমতলীর গেন্ডামারা গ্রামে সপ্তম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ধর্ষক কামাল হোসেনকে (২৫) গ্রেফতার করেছে।

ওই ছাত্রী তার মাকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য যাচ্ছিল। এ সুযোগে তাকে একা পেয়ে লম্পট কামাল পিছু নেয়।
পথিমধ্যে নির্জন মাঠে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা ওইদিনই সন্ধ্যায় তালতলী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। ওইদিনই পুলিশ ধর্ষক কামালকে গ্রেফতার করে।
শুক্রবার পুলিশ ওই ছাত্রীর জবানবন্দি রেকর্ড করে ও ধর্ষক কামালকে আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করে। আদালতের বিচারক ওই ছাত্রীর জবানবন্দি শেষে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ও ধর্ষক কামালকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

ওই ছাত্রীর মা বলেন, লম্পট কামাল মুন্সি প্রায়ই আমার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করতো। কিন্তু আমার মেয়ে তার প্রস্তাবে সারা দেয়নি। বৃহস্পতিবার আমাকে এগিয়ে নিয়ে আসার সুযোগে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান বলেন, ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে এবং ধর্ষক কামালকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।