ঢাকা ০৫:৫৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
মেট্রোরেল স্টেশনের ধ্বংসলীলা দেখে কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী রুশ এমআই-২৮ সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত মস্কোর দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত কালুগা অঞ্চলে আজ বৃহস্পতিবার হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয় কে হামলা চালাবে—বিএনপির নীল নকশা আগেই প্রস্তুত ছিল: কাদের ৪ দিন কোথায় কী অবস্থায় ছিলেন সমন্বয়ক আসিফ সারা দেশে হাজারো প্রাণ কেড়ে নেওয়ার ব্যাপারে সরকার কোনো কথা বলছে না: মির্জা ফখরুল সব ধরনের সহিংসতার হুমকি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র ডিএমপির তিন যুগ্ম-কমিশনারকে স্থান বদলি বাসে আগুন দিতে ৪ লাখ টাকায় চুক্তি, শ্রমিক লীগ নেতা গ্রেপ্তার রোকেয়া হলে ছাত্রলীগ নেত্রীদের হলছাড়া করল আন্দোলনকারীরা আন্দোলনকারীদের মৃত্যুর জন্য সরকারের পক্ষ থেকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে, ৩৩ নাগরিকের বিবৃতি বিবৃতিতে বলা হয়, দাবি আদায় করতে হয় জীবনের বিনিময়ে বা দমন করতে হয় হত্যা করে

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্ট্রিয়াতে দুই বাংলাদেশী প্রবাসীর মধ্যে মারামারি গ্রেফতার এক

  • আপডেট টাইম : ০৯:৩০:২৮ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
  • / ২১২ ৫০০.০০০ বার পাঠক

গত ২০শে ফেব্রুয়ারি অস্ট্রিয়ার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্ট্রেলিয়া সালজবার্গে কর্মরত নুরুল আমিন ও মইনুদ্দিনের মধ্যে মারামারি সংঘটিত হয়, উল্লেখ্য মাইনুদ্দিন প্রায় ১২ বছর অস্ট্রিয়াতে কর্মরত রয়েছে, অন্যদিকে নুরুল আমিন প্রায় সাত মাস অস্ট্রিয়াতে একটি খবরের কাগজ ডেলিভারীম্যা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন তারা উভয় একই রুমে বসবাস করে আসছিল।
মাইনুদ্দিনের একটি বাইসাইকেল রয়েছ সেটি নষ্ট হওয়ায় তারই রুমমেট নুরুল আমিনের উপর প্রায় দিনই সাইকেল নষ্ট করার দোষারোপ করে ক্ষিপ্ত হতো এবং ২০ শে ফেব্রুয়ারি এক পর্যায়ে তাদের উভয়ের মধ্যে ভাগ বিতন্ডতা বাধলে মাইনুদ্দিন ক্ষিপ্ত হয়ে নুরুল আমিনকে চড় ও কিল ঘুষি শুরু করেন এক পর্যায়ে পাক ঘর থেকে চাকু এনে মাইনুদ্দিন নুরুল আমিনকে হত্যার চেষ্টা করলে পাশের রুম থেকে অন্য কেহ পুলিশকে অভিহিত করলে তাৎক্ষণিক অস্ট্রিয়ার সালজবার্গ থানার পুলিশ এসে মাইনুদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায় পরবর্তীতে নুরুল আমিনের জবানবন্দী গ্রহণ করে তাকে উন্নত চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দেন এবং অভিযুক্ত মাইনুদ্দিন বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে অন্যদিকে নুরুল আমিন পুলিশের নিরাপত্তায় রয়েছেন।
এই ঘটনায় ইউরোপ আইন অনুযায়ী ৫৬ ধারা অনুচ্ছেদ ১২৩ অনুসারে মাইনুদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।
উল্লেখ্য, মাইনুদ্দিনের গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী জেলায় ও নুরুল আমিনের বাড়ি সিলেটে।

আরো খবর.......

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্ট্রিয়াতে দুই বাংলাদেশী প্রবাসীর মধ্যে মারামারি গ্রেফতার এক

আপডেট টাইম : ০৯:৩০:২৮ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

গত ২০শে ফেব্রুয়ারি অস্ট্রিয়ার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্ট্রেলিয়া সালজবার্গে কর্মরত নুরুল আমিন ও মইনুদ্দিনের মধ্যে মারামারি সংঘটিত হয়, উল্লেখ্য মাইনুদ্দিন প্রায় ১২ বছর অস্ট্রিয়াতে কর্মরত রয়েছে, অন্যদিকে নুরুল আমিন প্রায় সাত মাস অস্ট্রিয়াতে একটি খবরের কাগজ ডেলিভারীম্যা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন তারা উভয় একই রুমে বসবাস করে আসছিল।
মাইনুদ্দিনের একটি বাইসাইকেল রয়েছ সেটি নষ্ট হওয়ায় তারই রুমমেট নুরুল আমিনের উপর প্রায় দিনই সাইকেল নষ্ট করার দোষারোপ করে ক্ষিপ্ত হতো এবং ২০ শে ফেব্রুয়ারি এক পর্যায়ে তাদের উভয়ের মধ্যে ভাগ বিতন্ডতা বাধলে মাইনুদ্দিন ক্ষিপ্ত হয়ে নুরুল আমিনকে চড় ও কিল ঘুষি শুরু করেন এক পর্যায়ে পাক ঘর থেকে চাকু এনে মাইনুদ্দিন নুরুল আমিনকে হত্যার চেষ্টা করলে পাশের রুম থেকে অন্য কেহ পুলিশকে অভিহিত করলে তাৎক্ষণিক অস্ট্রিয়ার সালজবার্গ থানার পুলিশ এসে মাইনুদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায় পরবর্তীতে নুরুল আমিনের জবানবন্দী গ্রহণ করে তাকে উন্নত চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দেন এবং অভিযুক্ত মাইনুদ্দিন বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে অন্যদিকে নুরুল আমিন পুলিশের নিরাপত্তায় রয়েছেন।
এই ঘটনায় ইউরোপ আইন অনুযায়ী ৫৬ ধারা অনুচ্ছেদ ১২৩ অনুসারে মাইনুদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।
উল্লেখ্য, মাইনুদ্দিনের গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী জেলায় ও নুরুল আমিনের বাড়ি সিলেটে।