ঢাকা ০৪:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
কোটা সংস্কারের পক্ষে সরকার নীতিগতভাবে একমত: আইনমন্ত্রী ঘোষণার পর মানছেন না কোটা আন্দোলনকারীরা আমার ভাইদের ফেরত দেওয়া হোক আগে রায়পুরে বালু উত্তোলনে ভাঙন আতঙ্ক সরকারের কাছ থেকে দৃশ্যমান পদক্ষেপ ও সমাধানের পথ তৈরির প্রত্যাশা করে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন শনির আখড়া-যাত্রাবাড়ী সড়কে চলছে সংঘর্ষ, যান চলালাচল অচল করে দিচ্ছেন ফেসবুক লাইভে এসে পদত্যাগের ঘোষণা ছাত্রলীগ নেতার উত্তরায় গুলিতে নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষার্থী নিহত কমপ্লিট শাটডাউন ঢাকার সঙ্গে সব জেলার যোগাযোগ বন্ধ, টার্মিনাল থেকে ছাড়ছে না কোনো বাস ফুলবাড়ীর দৌলতপুর ইউনিয়নে গরু চুরির হিড়িক দেশবাসীর প্রতি মির্জা ফখরুলের আহ্বান, শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঢাবি, ৬টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ

মরে গেলেও নির্বাচন চালিয়ে যাবো: তৈমূর

সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ১০:০২:৩৯ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২২
  • / ১৮৩ ৫০০.০০০ বার পাঠক

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি।।
ভোটের আগমুহূর্তেও নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার ও হয়রানির অভিযোগ করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার। এসব গ্রেপ্তার ও হয়রানি বন্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি। এছাড়া মরে গেলেও নির্বাচন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তৈমূর আলম খন্দকার।

শনিবার দুপুরে শহরের মাসদাইরে নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তৈমূর আলম খন্দকার এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গতকাল শুক্রবার রাতে আমার দলের কর্মী-সমর্থকসহ ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। পুলিশ বিএনপির নেতা-কর্মীদের হেফাজতের মামলায় ও মাদক মামলায় গ্রেপ্তার করছে। এভাবে সুষ্ঠু ভোটের পরিবেশ নষ্ট হলে প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে। নির্বাচন কমিশন, ডিসি-এসপিদের নিরপেক্ষ থেকে সুষ্ঠু ভোটের আহ্বান জানান তিনি।

তৈমূর আলম খন্দকার অভিযোগ করেন, পুলিশ তার পক্ষের লোকজনের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করছে। এভাবে গ্রেপ্তার ও হয়রানি করা হলে কীভাবে সুষ্ঠু ভোট হবে, সে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

তিনি বলেন, যত অত্যাচার-নির্যাতন করা হবে, ততোই ভোটাররা একতাবদ্ধ হবে।

নির্বাচনে আমরা বিজয়ী হবো, অবশ্যই আমরা মাঠ ছাড়বো না। নির্বাচনের মাঠে যা-ই হোক না কেন, মাঠে থাকবো। গ্রেপ্তার হলে হবো। মরে গেলেও নির্বাচন চালিয়ে যাবো।

এক প্রশ্নের জবাবে তৈমূর বলেন, আমি কোন ভোটকেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছি না। পুলিশের আচরণকে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছি। প্রশাসনের আচরণকে ঝুঁকিপূর্ণ ও নির্বাচন কমিশনের আচরণকে ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করছি।ভোটকেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা স্থাপন এবং নির্বাচন কমিশন ও ডিসি-এসপিদের নিরপেক্ষ থেকে সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণের দাবি জানান এই মেয়র প্রার্থী।
সংবাদ সম্মেলনে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামালসহ দলের অঙ্গসংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আরো খবর.......

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মরে গেলেও নির্বাচন চালিয়ে যাবো: তৈমূর

আপডেট টাইম : ১০:০২:৩৯ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২২

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি।।
ভোটের আগমুহূর্তেও নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার ও হয়রানির অভিযোগ করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার। এসব গ্রেপ্তার ও হয়রানি বন্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি। এছাড়া মরে গেলেও নির্বাচন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তৈমূর আলম খন্দকার।

শনিবার দুপুরে শহরের মাসদাইরে নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তৈমূর আলম খন্দকার এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, গতকাল শুক্রবার রাতে আমার দলের কর্মী-সমর্থকসহ ১০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। পুলিশ বিএনপির নেতা-কর্মীদের হেফাজতের মামলায় ও মাদক মামলায় গ্রেপ্তার করছে। এভাবে সুষ্ঠু ভোটের পরিবেশ নষ্ট হলে প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে। নির্বাচন কমিশন, ডিসি-এসপিদের নিরপেক্ষ থেকে সুষ্ঠু ভোটের আহ্বান জানান তিনি।

তৈমূর আলম খন্দকার অভিযোগ করেন, পুলিশ তার পক্ষের লোকজনের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করছে। এভাবে গ্রেপ্তার ও হয়রানি করা হলে কীভাবে সুষ্ঠু ভোট হবে, সে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

তিনি বলেন, যত অত্যাচার-নির্যাতন করা হবে, ততোই ভোটাররা একতাবদ্ধ হবে।

নির্বাচনে আমরা বিজয়ী হবো, অবশ্যই আমরা মাঠ ছাড়বো না। নির্বাচনের মাঠে যা-ই হোক না কেন, মাঠে থাকবো। গ্রেপ্তার হলে হবো। মরে গেলেও নির্বাচন চালিয়ে যাবো।

এক প্রশ্নের জবাবে তৈমূর বলেন, আমি কোন ভোটকেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছি না। পুলিশের আচরণকে ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছি। প্রশাসনের আচরণকে ঝুঁকিপূর্ণ ও নির্বাচন কমিশনের আচরণকে ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করছি।ভোটকেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা স্থাপন এবং নির্বাচন কমিশন ও ডিসি-এসপিদের নিরপেক্ষ থেকে সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণের দাবি জানান এই মেয়র প্রার্থী।
সংবাদ সম্মেলনে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামালসহ দলের অঙ্গসংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।