ঢাকা ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
রাণীশংকৈলে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন নওগাঁর নিয়ামতপুরে শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২১শে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে ভাষা শহীদদের স্বরনে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেবহাটা উপজেলা সমিতির ও পিকনিক স্পট পরিদর্শন কালিহাতীতে মহান শহিদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত আজ সারা ভারতের বিভিন্ন যায়গার সাথে সিরাকল মহাবিদ্যালয়ে উদযাপিত হল ভাষা দিবস আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উৎযাপন ভৈরবে অমর ২১শে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সকল বীর শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়েছে কিশোরগঞ্জে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত কমলনগরে সয়াবিন ক্ষেত থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার ২১ শে ফেব্রুয়ারী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে

সিংড়ায় এএসআই সানোয়ার কর্তৃক ব্যবসায়ী কে মারপিটের প্রতিবাদে মানববন্ধন

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৪:৫৬:১৮ পূর্বাহ্ণ, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ১৫২ ০.০০০ বার পাঠক

স্টাফ রিপোর্টার শাহাবুল আলম।।

নাটোরের সিংড়ায় সিংড়া থানার এএসআই সানোয়ার হোসেন কর্তৃক চামারী ইউনিয়নের বিলদহর বাজারের ব্যবসায়ী ওসমান গনী কে বেদম মারপিট, আটক এবং হয়রানী মুলক মামলার প্রতিবাদে এবং বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে সত্য উদঘাটনের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ব্যবসায়ীর স্ত্রী, কন্যা সহ স্থানীয় জনসাধারণ।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টায় বিলদহর বাজারে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ওসমান গনির স্ত্রী আর্জিনা বেগম, জামাই জীবন হাসান, মেয়ে ফারহানা খাতুন।

ওসমান গনির স্ত্রী আর্জিনা বেগম বলেন, সকাল ১০ টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে যাবার পথে আমার স্বামীকে এএসআই সানোয়ার ধরে হ্যান্ডক্যাপ পরায় সে জানায় আমার বিরুদ্ধে কোনো ওয়ারেন্ট আছে। তখন সে বলে আমি মন্ত্রীর সাথে কথা বলেছি। তখন সে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এবং বেধরক মারপিট করতে থাকে এবং উত্তেজিত হয়ে বলে কাউকে —– টাইম নাই।

ওসমান গনির মেয়ে ফাহিমা ও ফারহানা জানান, আমার আব্বার কাছ থেকে দুদফায় ৪০ হাজার টাকা এএসআই সানোয়ার নেয়। আরো ১ লক্ষ টাকা দাবি করে আসছিলো। তাঁর বাবা কে থানায় নিয়ে গিয়ে ও পেটানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তারা।

তবে এএসআই সানোয়ার হোসেন এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য নয়। তাদের কে প্রমান করতে হবে।

চামারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রশিদুল ইসলাম মৃধা জানান, কাল এ বিষয়ে আমার পরিষদে দু পক্ষকে মিমাংসার জন্য ডাকছিলাম। এখানে আসার কথা ছিলো। পরে শুনি পুলিশ তাঁকে থানায় ধরে নিয়ে গেছে।

উল্লেখ্যঃ গতকাল রবিবার এএসআই সানোয়ার কে মারপিট এবং আদালতের নির্দেশ অমান্য করায় ওসমান গনির বিরুদ্ধে এসআই মোজাম্মেল বাদী হয়ে সিংড়া থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলা নং ৩৮।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

রাণীশংকৈলে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

সিংড়ায় এএসআই সানোয়ার কর্তৃক ব্যবসায়ী কে মারপিটের প্রতিবাদে মানববন্ধন

আপডেট টাইম : ০৪:৫৬:১৮ পূর্বাহ্ণ, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার শাহাবুল আলম।।

নাটোরের সিংড়ায় সিংড়া থানার এএসআই সানোয়ার হোসেন কর্তৃক চামারী ইউনিয়নের বিলদহর বাজারের ব্যবসায়ী ওসমান গনী কে বেদম মারপিট, আটক এবং হয়রানী মুলক মামলার প্রতিবাদে এবং বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে সত্য উদঘাটনের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ব্যবসায়ীর স্ত্রী, কন্যা সহ স্থানীয় জনসাধারণ।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টায় বিলদহর বাজারে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ওসমান গনির স্ত্রী আর্জিনা বেগম, জামাই জীবন হাসান, মেয়ে ফারহানা খাতুন।

ওসমান গনির স্ত্রী আর্জিনা বেগম বলেন, সকাল ১০ টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে যাবার পথে আমার স্বামীকে এএসআই সানোয়ার ধরে হ্যান্ডক্যাপ পরায় সে জানায় আমার বিরুদ্ধে কোনো ওয়ারেন্ট আছে। তখন সে বলে আমি মন্ত্রীর সাথে কথা বলেছি। তখন সে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এবং বেধরক মারপিট করতে থাকে এবং উত্তেজিত হয়ে বলে কাউকে —– টাইম নাই।

ওসমান গনির মেয়ে ফাহিমা ও ফারহানা জানান, আমার আব্বার কাছ থেকে দুদফায় ৪০ হাজার টাকা এএসআই সানোয়ার নেয়। আরো ১ লক্ষ টাকা দাবি করে আসছিলো। তাঁর বাবা কে থানায় নিয়ে গিয়ে ও পেটানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তারা।

তবে এএসআই সানোয়ার হোসেন এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য নয়। তাদের কে প্রমান করতে হবে।

চামারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রশিদুল ইসলাম মৃধা জানান, কাল এ বিষয়ে আমার পরিষদে দু পক্ষকে মিমাংসার জন্য ডাকছিলাম। এখানে আসার কথা ছিলো। পরে শুনি পুলিশ তাঁকে থানায় ধরে নিয়ে গেছে।

উল্লেখ্যঃ গতকাল রবিবার এএসআই সানোয়ার কে মারপিট এবং আদালতের নির্দেশ অমান্য করায় ওসমান গনির বিরুদ্ধে এসআই মোজাম্মেল বাদী হয়ে সিংড়া থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলা নং ৩৮।