ঢাকা ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
রাণীশংকৈলে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন নওগাঁর নিয়ামতপুরে শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২১শে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে ভাষা শহীদদের স্বরনে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেবহাটা উপজেলা সমিতির ও পিকনিক স্পট পরিদর্শন কালিহাতীতে মহান শহিদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত আজ সারা ভারতের বিভিন্ন যায়গার সাথে সিরাকল মহাবিদ্যালয়ে উদযাপিত হল ভাষা দিবস আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উৎযাপন ভৈরবে অমর ২১শে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সকল বীর শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়েছে কিশোরগঞ্জে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত কমলনগরে সয়াবিন ক্ষেত থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার ২১ শে ফেব্রুয়ারী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে

আশুলিয়ায় মেম্বার কতৃক চাঁদা বাজি ঢাকা দিতে যুবলীগের গায়ে কাঁদা লেপন

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৫:১৪:১৭ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ১৫৮ ০.০০০ বার পাঠক

স্টাফ রিপোর্টার।।
আশুলিয়া থানার নরসিংহপুর লেগুনা স্টান্ড থেকে বকুল মেম্বারের নির্দেশে গাড়ি প্রতি টাকা উত্তলন করেন,বকুল মেম্বারের ভাই সাগির,রাসেল,সাগর আবুল হোসেন ও আপেল মাহমুদ,পুরা নরসিংহপুর স্টান্ড পরিচালনা করেন,বকুল মেম্বার এমন সংবাদের খবর পেয়ে ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে জানা যায়,বকুল মেম্বারের আপন ভাই সাগির মাদক মামলায় প্রায় ৪৫ দিন জেল খেটে,জামিনে মুক্তি পেয়ে একই পথে ধাপিত হয়েছেন,বিগতদিনে বকুল মেম্বর চাঁদাবাজি করেছেন এই মর্মে,দৈনিক গণকন্ঠ পত্রিকার হেডলাইনে প্রকাশ হয়,আশুলিয়ার নরসিংহপুরে ইউপি সদস্য কতৃক অটোরিকশা থেকে চাঁদাবাজি,গত কয়েকদিন আগে একটি নিউজ বাংলাদেশ প্রতিদিনে প্রকাশ হয়,সেখানে বলা হয়েছে,লেগুনা থেকে আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক কবির সরকার ও তার ইন্ধনে যুবলীগের কর্মীদ্বারা চাঁদাবাজি হয়,কিন্তুু চাঁদাবাজির মুল হোতা বকুল মেম্বার থাকছে ধরাছোঁয়ার বাহিরে।উক্ত বিষয়ে বকুল মেম্বারের সাথে কথা বললে,তিনি চাঁদাবাজির কথা সম্পূর্ণ অস্বিকার করে বলেন, আমার নামে বিগত দিনে দৈনিক গণকন্ঠ পত্রিকায় নিউজ প্রকাশ করা হয়েছে,আমি এই চাঁদা সম্পর্কে কিছুই জানিনা,তাছাড়া নরসিংহপুর স্টান্ডটি ৬ নং ওয়ার্ডের মধ্যে,আমার ৫ নং ওয়ার্ডের মধ্যে নয়,গাড়ি প্রতি চাঁদা উত্তলন করা সাগর আহম্মেদ,ইঙ্গিত দিয়ে বলেন,বকুল মেম্বারের তত্ববধায়নে,তার ভাই সাগির ও রাসেল পুরা স্টান্ডটি দেখ ভাল করেন।উক্ত বিষয়ে আশুলিয়া থানা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক কবির হোসেন সরকার বলেন,আগামীতে আশুলিয়া থানা যুবলীগের পুর্নাঙ্গ কমিটি নির্ধারন করা হবে,এমন খবরে আমার জনপ্রিয়তা দেখে, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ও কুচক্রী মহলে,আমার জনপ্রিয়তায় ঈষান্নীত হয়ে মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন,ও কাল্পনিক কাহিনীর অবতরন ঘটাইয়া,চাঁদাবাজির মত কলঙ্ক লেপন করার বৃথা চেষ্টা করেছে মাত্র,আমি কোনো চাঁদাবাজি করিনা,কোনো চাঁদাবাজের প্রশ্রয় আমি কবির দিই ও না।আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করতে কুচক্রী মহল প্রতিনিয়ত কখনো মিথ্যা কল রেকর্ড এডিটিং,কখনো তুচ্ছ কোনো বিষয় নিয়ে, যেটা সম্পর্কে আমি বিন্দুমাত্র জানিইনা,বা সম্পূর্ণ মিথ্যা দিয়ে সাজিয়ে নাটকের উপর নাটক তৈরি করে চলেছে।যতই মিথ্যা অপকৌশল অবলম্বন করে উপঢৌকন মারুক না কেনো,আমি আমার দায়িত্ব থেকে বিন্দুমাত্র পিছপা হবোনা,দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও আওয়ামী যুবলীগের ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের উদ্ধতন নেতাকর্মীদের সাথে মত বিনিময় করে সকল কাজ করে যাব ইনশাল্লাহ।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

রাণীশংকৈলে যথাযোগ্য মর্যাদায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

আশুলিয়ায় মেম্বার কতৃক চাঁদা বাজি ঢাকা দিতে যুবলীগের গায়ে কাঁদা লেপন

আপডেট টাইম : ০৫:১৪:১৭ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার।।
আশুলিয়া থানার নরসিংহপুর লেগুনা স্টান্ড থেকে বকুল মেম্বারের নির্দেশে গাড়ি প্রতি টাকা উত্তলন করেন,বকুল মেম্বারের ভাই সাগির,রাসেল,সাগর আবুল হোসেন ও আপেল মাহমুদ,পুরা নরসিংহপুর স্টান্ড পরিচালনা করেন,বকুল মেম্বার এমন সংবাদের খবর পেয়ে ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে জানা যায়,বকুল মেম্বারের আপন ভাই সাগির মাদক মামলায় প্রায় ৪৫ দিন জেল খেটে,জামিনে মুক্তি পেয়ে একই পথে ধাপিত হয়েছেন,বিগতদিনে বকুল মেম্বর চাঁদাবাজি করেছেন এই মর্মে,দৈনিক গণকন্ঠ পত্রিকার হেডলাইনে প্রকাশ হয়,আশুলিয়ার নরসিংহপুরে ইউপি সদস্য কতৃক অটোরিকশা থেকে চাঁদাবাজি,গত কয়েকদিন আগে একটি নিউজ বাংলাদেশ প্রতিদিনে প্রকাশ হয়,সেখানে বলা হয়েছে,লেগুনা থেকে আশুলিয়া থানা যুবলীগের আহবায়ক কবির সরকার ও তার ইন্ধনে যুবলীগের কর্মীদ্বারা চাঁদাবাজি হয়,কিন্তুু চাঁদাবাজির মুল হোতা বকুল মেম্বার থাকছে ধরাছোঁয়ার বাহিরে।উক্ত বিষয়ে বকুল মেম্বারের সাথে কথা বললে,তিনি চাঁদাবাজির কথা সম্পূর্ণ অস্বিকার করে বলেন, আমার নামে বিগত দিনে দৈনিক গণকন্ঠ পত্রিকায় নিউজ প্রকাশ করা হয়েছে,আমি এই চাঁদা সম্পর্কে কিছুই জানিনা,তাছাড়া নরসিংহপুর স্টান্ডটি ৬ নং ওয়ার্ডের মধ্যে,আমার ৫ নং ওয়ার্ডের মধ্যে নয়,গাড়ি প্রতি চাঁদা উত্তলন করা সাগর আহম্মেদ,ইঙ্গিত দিয়ে বলেন,বকুল মেম্বারের তত্ববধায়নে,তার ভাই সাগির ও রাসেল পুরা স্টান্ডটি দেখ ভাল করেন।উক্ত বিষয়ে আশুলিয়া থানা আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক কবির হোসেন সরকার বলেন,আগামীতে আশুলিয়া থানা যুবলীগের পুর্নাঙ্গ কমিটি নির্ধারন করা হবে,এমন খবরে আমার জনপ্রিয়তা দেখে, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ও কুচক্রী মহলে,আমার জনপ্রিয়তায় ঈষান্নীত হয়ে মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন,ও কাল্পনিক কাহিনীর অবতরন ঘটাইয়া,চাঁদাবাজির মত কলঙ্ক লেপন করার বৃথা চেষ্টা করেছে মাত্র,আমি কোনো চাঁদাবাজি করিনা,কোনো চাঁদাবাজের প্রশ্রয় আমি কবির দিই ও না।আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করতে কুচক্রী মহল প্রতিনিয়ত কখনো মিথ্যা কল রেকর্ড এডিটিং,কখনো তুচ্ছ কোনো বিষয় নিয়ে, যেটা সম্পর্কে আমি বিন্দুমাত্র জানিইনা,বা সম্পূর্ণ মিথ্যা দিয়ে সাজিয়ে নাটকের উপর নাটক তৈরি করে চলেছে।যতই মিথ্যা অপকৌশল অবলম্বন করে উপঢৌকন মারুক না কেনো,আমি আমার দায়িত্ব থেকে বিন্দুমাত্র পিছপা হবোনা,দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও আওয়ামী যুবলীগের ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের উদ্ধতন নেতাকর্মীদের সাথে মত বিনিময় করে সকল কাজ করে যাব ইনশাল্লাহ।