ঢাকা ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ইংল্যান্ড বিএনপি’র সভাপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পিসা বিএনপি’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পারভেজ মোশারফ কোস্টগার্ড কর্তৃক বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান কিশোরগঞ্জে দৈনিক নাগরিক ভাবনার ৪র্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত যুব উন্নয়ন থেকে দর্জি বিজ্ঞান প্রশিক্ষণ নিয়ে জামালপুরের যুব মহিলারা আত্ম নির্ভরশীল এমপি হবার শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রতিপাদ্য নিয়ে ময়মনসিংহ রেলওয়ে ষ্টেশনে চাঞ্চল্যকর খুনের প্রধান আসামী মোহাম্মদ আলী গ্রেফতার ইপিজেড থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে(দুইশত চার) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার পাকুন্দিয়ায় ৬ষ্ট বার্ষিকী ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্টিত টঙ্গীতে কিশোর গ্যাং লিডার মাইদুল গ্রেফতার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্ট্রিয়াতে দুই বাংলাদেশী প্রবাসীর মধ্যে মারামারি গ্রেফতার এক

অবৈধ গ্যাস সরবরাহ চক্রের ১৭ সদস্য গ্রেফতার

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৪:২৪:৫১ অপরাহ্ণ, রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১
  • ২৬৮ ০.০০০ বার পাঠক

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

ফেনীতে সিএনজি ফিলিং স্টেশন থেকে অবৈধভাবে গ্যাস সরবরাহ এবং ভ্রাম্যমাণ কাভার্ডভ্যানে করে বিক্রয়কারী চক্রের ১৭ জন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে কুমিল্লার র‌্যাব-১১ সিপিসি-২। রোববার ফেনী সদরের দেবীপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৪০০ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে ৬০২টি সিলিন্ডারসহ ৫টি কাভার্ডভ্যান।

রোববার বিকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ কুমিল্লার অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ফেনী সদরের উত্তর শর্শদী খানেরবাড়ি গ্রামের আবু তাহের, ছাগলনাইয়ার পশ্চিম সবুগ্রাম গ্রামের সাইদুর রহমান, আধার মানিক গ্রামের সাইদুল ইসলাম রনি, লক্ষ্মীপুর গ্রামের গোপী, হরি গ্রামের শিবু, যাদব কুমার দাস, লক্ষ্মীপুরের রামগতির শিক্ষাগ্রাম গ্রামের মো. হামীমসহ ১৭ জন।

মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন জানান, রোববার ভোরে ফেনী সদরের দেবীপুর এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে মেসার্স প্রাইম সিএনজি ফিলিং স্টেশন লি. হতে সিলিন্ডারে অবৈধভাবে সিএনজি গ্যাস সরবরাহের সময় ওই ১৭ জনকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। ওই চক্রটি মূলত সিএনজি ফিলিং স্টেশনের আড়ালে সরাসরি গাড়িতে জ্বালানি সরবরাহ করার পাশাপাশি বিশেষ প্রক্রিয়ায় কাভার্ডভ্যানের ভেতর সিলিন্ডার স্থাপন করে মিটার ব্যতীত মূল গ্যাস লাইন থেকে গ্যাস মজুদ করে। এরপর তা অবৈধভাবে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, কুমিল্লা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে বিক্রি করে। বিশেষ করে যেসব এলাকায় গ্যাস সংযোগ নেই, সেসব এলাকার বিভিন্ন কারখানায় এই গ্যাস চড়া মূল্যে বিক্রি করতো তারা।

তিনি আরও জানান, চক্রটি গ্যাস সংগ্রহ করে বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ সিএনজি স্টেশন স্থাপন করে প্রতি ঘনফুট গ্যাস প্রচলিত বাজার মূল্যের চেয়ে অধিক মূল্যে বিক্রি করে আসছিল। এভাবে অবৈধভাবে গ্যাস চোরাই পথে সরবরাহ ও বিক্রির সময় বড় ধরনের বিস্ফোরণ ঘটতে পারে। পাশাপাশি মিটার ব্যতীত এভাবে গ্যাস বিক্রির ফলে সরকার বিপুল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

ইংল্যান্ড বিএনপি’র সভাপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পিসা বিএনপি’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পারভেজ মোশারফ

অবৈধ গ্যাস সরবরাহ চক্রের ১৭ সদস্য গ্রেফতার

আপডেট টাইম : ০৪:২৪:৫১ অপরাহ্ণ, রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

ফেনীতে সিএনজি ফিলিং স্টেশন থেকে অবৈধভাবে গ্যাস সরবরাহ এবং ভ্রাম্যমাণ কাভার্ডভ্যানে করে বিক্রয়কারী চক্রের ১৭ জন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে কুমিল্লার র‌্যাব-১১ সিপিসি-২। রোববার ফেনী সদরের দেবীপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৪০০ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে ৬০২টি সিলিন্ডারসহ ৫টি কাভার্ডভ্যান।

রোববার বিকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ কুমিল্লার অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ফেনী সদরের উত্তর শর্শদী খানেরবাড়ি গ্রামের আবু তাহের, ছাগলনাইয়ার পশ্চিম সবুগ্রাম গ্রামের সাইদুর রহমান, আধার মানিক গ্রামের সাইদুল ইসলাম রনি, লক্ষ্মীপুর গ্রামের গোপী, হরি গ্রামের শিবু, যাদব কুমার দাস, লক্ষ্মীপুরের রামগতির শিক্ষাগ্রাম গ্রামের মো. হামীমসহ ১৭ জন।

মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন জানান, রোববার ভোরে ফেনী সদরের দেবীপুর এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে মেসার্স প্রাইম সিএনজি ফিলিং স্টেশন লি. হতে সিলিন্ডারে অবৈধভাবে সিএনজি গ্যাস সরবরাহের সময় ওই ১৭ জনকে হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। ওই চক্রটি মূলত সিএনজি ফিলিং স্টেশনের আড়ালে সরাসরি গাড়িতে জ্বালানি সরবরাহ করার পাশাপাশি বিশেষ প্রক্রিয়ায় কাভার্ডভ্যানের ভেতর সিলিন্ডার স্থাপন করে মিটার ব্যতীত মূল গ্যাস লাইন থেকে গ্যাস মজুদ করে। এরপর তা অবৈধভাবে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, কুমিল্লা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে বিক্রি করে। বিশেষ করে যেসব এলাকায় গ্যাস সংযোগ নেই, সেসব এলাকার বিভিন্ন কারখানায় এই গ্যাস চড়া মূল্যে বিক্রি করতো তারা।

তিনি আরও জানান, চক্রটি গ্যাস সংগ্রহ করে বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ সিএনজি স্টেশন স্থাপন করে প্রতি ঘনফুট গ্যাস প্রচলিত বাজার মূল্যের চেয়ে অধিক মূল্যে বিক্রি করে আসছিল। এভাবে অবৈধভাবে গ্যাস চোরাই পথে সরবরাহ ও বিক্রির সময় বড় ধরনের বিস্ফোরণ ঘটতে পারে। পাশাপাশি মিটার ব্যতীত এভাবে গ্যাস বিক্রির ফলে সরকার বিপুল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।