ঢাকা ০৫:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে ঠাকুরগাঁও। রুহিয়া ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলা করোনাভাইরাস এর কারণে বন্ধ থাকায় আবারও পাঁচ বছর পর ১০ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে রানীশংকৈলে নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত রায়পুরে পহেলা বৈশাখে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা নবাবগঞ্জে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ পালিত ঘাটাইলে ব্যবসায়ীর হাত-পায়ের রগ কেটে সর্বস্ব লুট টঙ্গীতে চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ীর উপর হামলা: তদন্তে গিয়ে সিসিটিভি আবদার করলো পুলিশ! আনোয়ারা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে ঈদ পূর্ণমিলনী ও মত বিনিময় সভা মোংলায় নিরুদ্দেশ মোতালেব জমাদ্দারের নাতিদের আকিকা অনুষ্ঠানে হাজারও লোকের ভিড় বহিষ্কার মোঃ রবিউল ইসলাম রবি কে দৈনিক সময়ের কন্ঠ পত্রিকা ও অনলাইন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে

রংপুরে প্রতারণার পর দিনাজপুরের ফুলবাড়ির নিজ বাসা থেকে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট গ্রেপ্তার।

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, জেলা প্রতিনিধি, দিনাজপুর।।

রংপুরে ভুয়া নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট পরিচয় দিয়ে অবসরপ্রাপ্ত কারা কর্মকর্তাকে প্রতারণার দায়ে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) দুপুরে রংপুর নগরীর কেরানীপাড়াস্থ রংপুর পিবিআই কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান পিবিআই রংপুরের পুলিশ সুপার জাকির হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে পিবিআই পুলিশ সুপার জানান, ৬/৭ মাস আগে আনজু মিয়া নামে এক অবসরপ্রাপ্ত কারা কর্মকর্তার সাথে বিমানে ঢাকা যাবার সময় পরিচয় হয় জনৈক তাসনিম সরকার ওরফে আনিকা নামে নারীর। তিনি কথাবার্তার এক পর্যায়ে নিজেকে নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট হিসেবে গাইবান্ধায় কর্মরত আছেন বলে ওই কারাকর্মকর্তাকে পরিচয় দেন।

এরপর দু’জনে মোবাইল ফোন নম্বর বিনিময় করেন। এই পরিচয়ের সূত্র ধরে গত ২ আগষ্ট কথিত ভুয়া নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট আনিকা মোবাইল ফোনে আনজু মিয়াকে জানান, তিনি জরুরী কাজে রংপুরে এসেছেন। একটু কথা আছে বলে তাকে জেলা প্রশাসকের বাসভবনের কাছে আসতে বলেন।

ফোন পেয়ে কারা কর্মকর্তা মোটরসাইকেল চালিয়ে ডিসির বাড়ির কাছে জিলা স্কুলের কাছে আসলে ভুয়া ম্যাজিষ্ট্রেটের ইশারায় তার সঙ্গে থাকা ৪/৫জন লোক জোর করে সঙ্গে থাকা মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে সুস্থ জীবন নামে একটি মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে নিয়ে যান।

সেখানে তার সঙ্গে থাকা ৪৪ হাজার টাকা, একটি লাখ টাকা মুল্যের হাত ঘড়ি, সোনার আংটি ও মোটরসাইকেলের লাইসেন্সসহ কাগজপত্র হাতিয়ে নিয়ে একটি ঘরে তালাবদ্ধ করে চলে যান।

এ ঘটনায় কারা কর্মকর্তার স্বজনরা থানায় সাধারন ডায়রী করেন এবং পিবিআইকে বিষয়টি জানান। পরে পিবিআই খোঁজাখুঁজি করে মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্র থেকে তাকে উদ্ধার করেন। ডোপ টেষ্ট করে দেখা গেছে তিনি মাদকাসক্ত নন। পিবিআই পুলিশ সুপার জানান, এরপর কথিত নারী ম্যাজিষ্ট্রেটের ফোন ট্র্যাক করে তাকে বুধবার দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান।

পুলিশ সুপার আরও জানান, ওই নারী তার ফেসবুকে পদবী লিখেছেন নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট বগুড়া যা এখনও ওই নামে ফেসবুকে সচল আছে। ওই নারী ভুয়া ম্যাজিষ্ট্রেটসহ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পদবী ব্যবহার করে প্রতারণা করে আসছে। তার নামে ঢাকা সহ বিভিন্ন জেলায় প্রতারণার মামলা রয়েছে বলে পুলিশ সুপার জানান।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে

রংপুরে প্রতারণার পর দিনাজপুরের ফুলবাড়ির নিজ বাসা থেকে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট গ্রেপ্তার।

আপডেট টাইম : ০৬:০৩:৩২ অপরাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট ২০২১

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, জেলা প্রতিনিধি, দিনাজপুর।।

রংপুরে ভুয়া নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট পরিচয় দিয়ে অবসরপ্রাপ্ত কারা কর্মকর্তাকে প্রতারণার দায়ে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) দুপুরে রংপুর নগরীর কেরানীপাড়াস্থ রংপুর পিবিআই কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান পিবিআই রংপুরের পুলিশ সুপার জাকির হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে পিবিআই পুলিশ সুপার জানান, ৬/৭ মাস আগে আনজু মিয়া নামে এক অবসরপ্রাপ্ত কারা কর্মকর্তার সাথে বিমানে ঢাকা যাবার সময় পরিচয় হয় জনৈক তাসনিম সরকার ওরফে আনিকা নামে নারীর। তিনি কথাবার্তার এক পর্যায়ে নিজেকে নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট হিসেবে গাইবান্ধায় কর্মরত আছেন বলে ওই কারাকর্মকর্তাকে পরিচয় দেন।

এরপর দু’জনে মোবাইল ফোন নম্বর বিনিময় করেন। এই পরিচয়ের সূত্র ধরে গত ২ আগষ্ট কথিত ভুয়া নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট আনিকা মোবাইল ফোনে আনজু মিয়াকে জানান, তিনি জরুরী কাজে রংপুরে এসেছেন। একটু কথা আছে বলে তাকে জেলা প্রশাসকের বাসভবনের কাছে আসতে বলেন।

ফোন পেয়ে কারা কর্মকর্তা মোটরসাইকেল চালিয়ে ডিসির বাড়ির কাছে জিলা স্কুলের কাছে আসলে ভুয়া ম্যাজিষ্ট্রেটের ইশারায় তার সঙ্গে থাকা ৪/৫জন লোক জোর করে সঙ্গে থাকা মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে সুস্থ জীবন নামে একটি মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে নিয়ে যান।

সেখানে তার সঙ্গে থাকা ৪৪ হাজার টাকা, একটি লাখ টাকা মুল্যের হাত ঘড়ি, সোনার আংটি ও মোটরসাইকেলের লাইসেন্সসহ কাগজপত্র হাতিয়ে নিয়ে একটি ঘরে তালাবদ্ধ করে চলে যান।

এ ঘটনায় কারা কর্মকর্তার স্বজনরা থানায় সাধারন ডায়রী করেন এবং পিবিআইকে বিষয়টি জানান। পরে পিবিআই খোঁজাখুঁজি করে মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্র থেকে তাকে উদ্ধার করেন। ডোপ টেষ্ট করে দেখা গেছে তিনি মাদকাসক্ত নন। পিবিআই পুলিশ সুপার জানান, এরপর কথিত নারী ম্যাজিষ্ট্রেটের ফোন ট্র্যাক করে তাকে বুধবার দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান।

পুলিশ সুপার আরও জানান, ওই নারী তার ফেসবুকে পদবী লিখেছেন নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট বগুড়া যা এখনও ওই নামে ফেসবুকে সচল আছে। ওই নারী ভুয়া ম্যাজিষ্ট্রেটসহ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পদবী ব্যবহার করে প্রতারণা করে আসছে। তার নামে ঢাকা সহ বিভিন্ন জেলায় প্রতারণার মামলা রয়েছে বলে পুলিশ সুপার জানান।