ঢাকা ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জের শায়েস্তাঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ১বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার দিন দিন বেড়েই চলছে পণ্য, বাজারজুড়ে দীর্ঘশ্বাস পারমাণবিক চুক্তির দ্বারপ্রান্তে ইরান ও পশ্চিমা দেশগুলো  পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের ব্যাখ্যা চাই: মির্জা ফখরুল কসবায় চার হাজার পিস ইয়াবাসহ যুবক গ্রেফতার যশোরের শার্শার রুদ্রপুর সীমান্তে সোনারবারসহ পাচারকারী আটক গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান কাশিমপুরে ৭ বছরের এক মাদ্রাসার। ছাত্র কে বলাৎকারে এক মুদি, দোকানদার আটক আশুলিয়া থানা যুবলীগের আয়োজনে জাতিয় শোক দিবস পালন অপশাসন কী, অপশাসনের ফল কী হতে পারে, বাংলাদেশের মানুষ তা প্রত্যক্ষ করেছে ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত

সাদমান-শান্তর ব্যাটে লিড সাড়ে তিনশ পার টাইগারদের

খেলার রিপোর্ট।।।

প্রথম ইনিংসের ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে দ্বিতীয় ইনিংসে রানের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশের টপঅর্ডার। দুই ওপেনার সাদমান ইসলাম ও সাইফ হাসানের পর তিন নম্বরে নাজমুল হোসেন শান্তুও করছেন সাবলীল ব্যাটিং। যার সুবাদে বাংলাদেশের লিড সাড়ে তিনশ ছাড়িয়ে গেছে।

চতুর্থ দিনের প্রথম সেশন শেষে বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ১ উইকেটে ১৬৯ রান। প্রথম ইনিংসে এগিয়ে থাকা ১৯২ রানের সুবাদে এখন লিড বেড়ে হয়েছে ৩৬১ রান।

আগের দিন ১৭ ওভার খেলে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪৫ রান করেছিল বাংলাদেশ। আজকের প্রথম সেশনে ৩২ ওভার ব্যাটিং করে ১ উইকেট হারিয়ে ওভারপ্রতি প্রায় ৪ গড়ে তুলেছে ১২৪ রান। সাইফ আউট হয়েছেন ৪৩ রান করে। সাদমান ৭২ ও শান্ত অপরাজিত রয়েছেন ৪৫ রানে।

আজকের দিনের শুরু থেকেই ইতিবাচক ব্যাটিং করছিলেন সাইফ ও সাদমান। দুজনের ব্যাট থেকেই এসেছে দৃষ্টিনন্দন কিছু শট। একপর্যায়ে মনে হচ্ছিল, দুজনই খেলবেন বড় ইনিংস। কিন্তু রিচার্ড এনগারাভার করা দিনের ১৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে দলীয় ৮৮ রানের মাথায় বিদায়ঘণ্টা বাজে সাইফের।

অফস্ট্যাম্পের বাইরের ডেলিভারিতে জায়গায় দাঁড়িয়ে স্কয়ার কাট খেলেছিলেন সাইফ। কিন্তু সেখানে প্রস্তুত ছিলেন ডিয়ন মায়ার্স। বলটি তালুবন্দী করে সমাপ্তি ঘটান সাইফের ৬ চারের মারে খেলা ৯৫ বলে ৪৩ রানের ইনিংসের। সম্ভাবনা জাগিয়েও ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি করা হয়নি এ ডানহাতি ওপেনারের।

সাইফ ফিরে গেলেও অন্যপ্রান্তে অবিচল থাকেন সাদমান। দারুণ কিছু শটে তুলে নেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় হাফসেঞ্চুরি। অন্যদিকে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন শান্ত। এরই মধ্যে ২ চারের পাশাপাশি হাঁকিয়েছেন ২টি বড় ছক্কা। তিনি পৌঁছে গেছেন হাফসেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে।

উল্লেখ্য, জিম্বাবুয়ের সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড হলো পাকিস্তানের সাথে। প্রায় ২৩ বছর আগে ১৯৯৮ সালে ১৬২ রান তাড়া করে ৭ উইকেটে জিতেছিল তারা। এর বাইরে রান তাড়া করে আর ৪টি ম্যাচ জিতেছে জিম্বাবুয়ে। চতুর্থ ইনিংসে মাত্র তিনবার তিনশর বেশি রান করেছে রোডেশিয়ানরা।

এছাড়া সাম্প্রতিক সময় রান খরায় ভোগা জিম্বাবুইয়ানরা টেস্ট ক্রিকেটে শেষ ৪০০ রান করেছিল দেড় বছর আগে, সেই ২০২০ সালের জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এবং সেটা এই হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে। প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৪০৬ রানের পর শেষ ৫ টেস্টে একবারও ৪০০ করতে পারেনি তারা।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

হবিগঞ্জের শায়েস্তাঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ১বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার

সাদমান-শান্তর ব্যাটে লিড সাড়ে তিনশ পার টাইগারদের

আপডেট টাইম : ১০:৫৭:০২ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ১০ জুলাই ২০২১

খেলার রিপোর্ট।।।

প্রথম ইনিংসের ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে দ্বিতীয় ইনিংসে রানের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশের টপঅর্ডার। দুই ওপেনার সাদমান ইসলাম ও সাইফ হাসানের পর তিন নম্বরে নাজমুল হোসেন শান্তুও করছেন সাবলীল ব্যাটিং। যার সুবাদে বাংলাদেশের লিড সাড়ে তিনশ ছাড়িয়ে গেছে।

চতুর্থ দিনের প্রথম সেশন শেষে বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ১ উইকেটে ১৬৯ রান। প্রথম ইনিংসে এগিয়ে থাকা ১৯২ রানের সুবাদে এখন লিড বেড়ে হয়েছে ৩৬১ রান।

আগের দিন ১৭ ওভার খেলে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪৫ রান করেছিল বাংলাদেশ। আজকের প্রথম সেশনে ৩২ ওভার ব্যাটিং করে ১ উইকেট হারিয়ে ওভারপ্রতি প্রায় ৪ গড়ে তুলেছে ১২৪ রান। সাইফ আউট হয়েছেন ৪৩ রান করে। সাদমান ৭২ ও শান্ত অপরাজিত রয়েছেন ৪৫ রানে।

আজকের দিনের শুরু থেকেই ইতিবাচক ব্যাটিং করছিলেন সাইফ ও সাদমান। দুজনের ব্যাট থেকেই এসেছে দৃষ্টিনন্দন কিছু শট। একপর্যায়ে মনে হচ্ছিল, দুজনই খেলবেন বড় ইনিংস। কিন্তু রিচার্ড এনগারাভার করা দিনের ১৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে দলীয় ৮৮ রানের মাথায় বিদায়ঘণ্টা বাজে সাইফের।

অফস্ট্যাম্পের বাইরের ডেলিভারিতে জায়গায় দাঁড়িয়ে স্কয়ার কাট খেলেছিলেন সাইফ। কিন্তু সেখানে প্রস্তুত ছিলেন ডিয়ন মায়ার্স। বলটি তালুবন্দী করে সমাপ্তি ঘটান সাইফের ৬ চারের মারে খেলা ৯৫ বলে ৪৩ রানের ইনিংসের। সম্ভাবনা জাগিয়েও ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি করা হয়নি এ ডানহাতি ওপেনারের।

সাইফ ফিরে গেলেও অন্যপ্রান্তে অবিচল থাকেন সাদমান। দারুণ কিছু শটে তুলে নেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় হাফসেঞ্চুরি। অন্যদিকে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন শান্ত। এরই মধ্যে ২ চারের পাশাপাশি হাঁকিয়েছেন ২টি বড় ছক্কা। তিনি পৌঁছে গেছেন হাফসেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে।

উল্লেখ্য, জিম্বাবুয়ের সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড হলো পাকিস্তানের সাথে। প্রায় ২৩ বছর আগে ১৯৯৮ সালে ১৬২ রান তাড়া করে ৭ উইকেটে জিতেছিল তারা। এর বাইরে রান তাড়া করে আর ৪টি ম্যাচ জিতেছে জিম্বাবুয়ে। চতুর্থ ইনিংসে মাত্র তিনবার তিনশর বেশি রান করেছে রোডেশিয়ানরা।

এছাড়া সাম্প্রতিক সময় রান খরায় ভোগা জিম্বাবুইয়ানরা টেস্ট ক্রিকেটে শেষ ৪০০ রান করেছিল দেড় বছর আগে, সেই ২০২০ সালের জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এবং সেটা এই হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে। প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৪০৬ রানের পর শেষ ৫ টেস্টে একবারও ৪০০ করতে পারেনি তারা।