ঢাকা ০৭:২০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
জামালপুরে কৃষিতে বেড়েছে আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার কালিয়াকৈর বাইপাসে সড়ক দুর্ঘটনায় স্বামী স্ত্রীর মৃত্যু রায়পুরে সেপটি ট্যাংকিতে নেমে ২জনে মৃত্যু মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে ঠাকুরগাঁও। রুহিয়া ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলা করোনাভাইরাস এর কারণে বন্ধ থাকায় আবারও পাঁচ বছর পর ১০ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে রানীশংকৈলে নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত রায়পুরে পহেলা বৈশাখে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা নবাবগঞ্জে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ পালিত ঘাটাইলে ব্যবসায়ীর হাত-পায়ের রগ কেটে সর্বস্ব লুট টঙ্গীতে চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ীর উপর হামলা: তদন্তে গিয়ে সিসিটিভি আবদার করলো পুলিশ!

জলদ্ধতা নিরাশন ও মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করছি-পৌর মেয়র আককাস আলী।

এস এম মাসুদ রানা বিরামপুর (দিনাজপুর)  প্রতিনিধি ।।

গত কয়েকদিনের বৃষ্টির পানির কারণে বিরামপুর পৌর শহরের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় বৃষ্টির পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় এতে করে পৌরবাসীর চলাচলে সাময়িক অসুবিধা হচ্চে সেই কথা লোক মারফত জানতে পারলে তাৎক্ষনিক তার সমাধানের ব্যবস্থা নিলেন- পৌর মেয়র আককাস আলী।

জলাবদ্ধতার কারণে পৌরবাসীর চলাচলে সাময়িক যে অসুবিধা হয়েছে তার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন পৌর মেয়র। পৌর এলাকায় যে সকল স্থানে জলাবদ্ধতার কারণে দীর্ঘদিন পানি ও কাদার জন্য পৌরবাসীর অসুবিধা হয়েছে সে সকল স্থানে তরিদগতিতে পৌরবাসীর চলাচল করার উপযোগী করতে বালি-রাবিশ ও ইটের কুচি দ্বারা মানুষ, রিক্সা-ভ্যান,মটরসাইকেলসহ গাড়ী চলাচলের উপযোগী করে গড়ে তুলেছেন-পৌর মেয়র আককাস আলী।

(৬ জুলাই) মঙ্গলবার সকালে বিকেল পর্যন্ত সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় যে, দিনাজপুর-

গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কস্থ উপজেলা পরিষদের গেট থেকে উপজেলা পরিষদ যাওয়ার পর্যন্ত রাস্তা,জেলা পরিষদের ডাকবাংলা সংলগ্ন রাস্তা,মেসার্স আনোয়ার হোসেন মিঞার মিল সংলগ্ন রাস্তাসহ পৌর শহরের বিভিন্ন জায়গায় পুরোদমে দীর্ঘদিন থেকে জলাবদ্ধতার পানি জমে থাকা জায়গায় গুলোতে বালু-রাবিশ ও ইটের কুচি দিয়ে সংষ্কারের কাজ চলছে।

জানতে চাইলে পৌর মেয়র অধ্যক্ষ আককাস আলী বলেন-বর্তমান পৌর পরিষদ এই পৌরসভাকে একটি আধুনিক শহর যুগউপযোগী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

পৌরসভার বসবাসরত মানুষের চাহিদা হচ্ছে লাইটিং,রাস্তা-ঘাট,ড্রেণ নির্মাণ,জলাবদ্ধতা নিরাশন সংষ্কার ও পরিষ্কার পরিছন্নতা। আর এ গুলোকে প্রাধান্য দিয়ে পর্যায়ক্রমে পৌর এলাকায় সব এলাকাতে উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে এবং ভবিষ্যতে ও করা হবে বলে জানান। জলাবদ্ধতা নিরাশন সম্পর্কে চানতে চাইলে তিনি বলেন,গেল কয়েকদিনের বৃষ্টির পানির কারণে পৌর এলাকায় কিছু কিছু স্থানে দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। সেই জলাবদ্ধতা জায়গাগুলো চিহৃ করা হয়েছে,ইতিমধ্যে সেই জায়গায় গুলো কাজ শুরু হয়েছে এবং কিছু কিছু জায়গায় কাজ শেষও হয়েছে। পৌরবাসীর উদ্দেশ্য বলেন,যেখানে জনদুর্ভোগ,জলাবদ্ধতা,চলাচলে অউপযোগী

সহ যে কোন সমস্যার কথা আমাকে এবং আমার পরিষদের কাউন্সিলরদেরকে জানান, আমি ও আমার পরিষদ যথাসাধ্য চেষ্টা করবো তার সু-সমাধান করার। তিনি আরো বলেন, পৌরসভার রাস্তা-ঘাট,ড্রেণের রক্ষণা বেক্ষণ ও পরিষ্কার পরিছন্নতা রাখতে পৌরবাসীকেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। এই শহর আপনার আমার সকলের। আসুন আমরা সবাই মিলে এই শহরকে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সুন্দর ভাবে গড়ে তুলি।

তিনি আরো বলেন,দিনাজপুর-৬ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিকের দিক নির্দেশনায় আমি ও আমার পরিষদ নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন এবং বিরামপুরকে আধুনিক, উন্নত, বাসযোগ্য, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন,জলদ্ধতা নিরাশন ও মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ শুরু করছি। এজন্য বিরামপুর পৌরবাসীর পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মাননীয় সংসদ সদস্যকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

জামালপুরে কৃষিতে বেড়েছে আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার

জলদ্ধতা নিরাশন ও মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করছি-পৌর মেয়র আককাস আলী।

আপডেট টাইম : ০১:২০:০৯ অপরাহ্ণ, বুধবার, ৭ জুলাই ২০২১

এস এম মাসুদ রানা বিরামপুর (দিনাজপুর)  প্রতিনিধি ।।

গত কয়েকদিনের বৃষ্টির পানির কারণে বিরামপুর পৌর শহরের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় বৃষ্টির পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় এতে করে পৌরবাসীর চলাচলে সাময়িক অসুবিধা হচ্চে সেই কথা লোক মারফত জানতে পারলে তাৎক্ষনিক তার সমাধানের ব্যবস্থা নিলেন- পৌর মেয়র আককাস আলী।

জলাবদ্ধতার কারণে পৌরবাসীর চলাচলে সাময়িক যে অসুবিধা হয়েছে তার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন পৌর মেয়র। পৌর এলাকায় যে সকল স্থানে জলাবদ্ধতার কারণে দীর্ঘদিন পানি ও কাদার জন্য পৌরবাসীর অসুবিধা হয়েছে সে সকল স্থানে তরিদগতিতে পৌরবাসীর চলাচল করার উপযোগী করতে বালি-রাবিশ ও ইটের কুচি দ্বারা মানুষ, রিক্সা-ভ্যান,মটরসাইকেলসহ গাড়ী চলাচলের উপযোগী করে গড়ে তুলেছেন-পৌর মেয়র আককাস আলী।

(৬ জুলাই) মঙ্গলবার সকালে বিকেল পর্যন্ত সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় যে, দিনাজপুর-

গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কস্থ উপজেলা পরিষদের গেট থেকে উপজেলা পরিষদ যাওয়ার পর্যন্ত রাস্তা,জেলা পরিষদের ডাকবাংলা সংলগ্ন রাস্তা,মেসার্স আনোয়ার হোসেন মিঞার মিল সংলগ্ন রাস্তাসহ পৌর শহরের বিভিন্ন জায়গায় পুরোদমে দীর্ঘদিন থেকে জলাবদ্ধতার পানি জমে থাকা জায়গায় গুলোতে বালু-রাবিশ ও ইটের কুচি দিয়ে সংষ্কারের কাজ চলছে।

জানতে চাইলে পৌর মেয়র অধ্যক্ষ আককাস আলী বলেন-বর্তমান পৌর পরিষদ এই পৌরসভাকে একটি আধুনিক শহর যুগউপযোগী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

পৌরসভার বসবাসরত মানুষের চাহিদা হচ্ছে লাইটিং,রাস্তা-ঘাট,ড্রেণ নির্মাণ,জলাবদ্ধতা নিরাশন সংষ্কার ও পরিষ্কার পরিছন্নতা। আর এ গুলোকে প্রাধান্য দিয়ে পর্যায়ক্রমে পৌর এলাকায় সব এলাকাতে উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে এবং ভবিষ্যতে ও করা হবে বলে জানান। জলাবদ্ধতা নিরাশন সম্পর্কে চানতে চাইলে তিনি বলেন,গেল কয়েকদিনের বৃষ্টির পানির কারণে পৌর এলাকায় কিছু কিছু স্থানে দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। সেই জলাবদ্ধতা জায়গাগুলো চিহৃ করা হয়েছে,ইতিমধ্যে সেই জায়গায় গুলো কাজ শুরু হয়েছে এবং কিছু কিছু জায়গায় কাজ শেষও হয়েছে। পৌরবাসীর উদ্দেশ্য বলেন,যেখানে জনদুর্ভোগ,জলাবদ্ধতা,চলাচলে অউপযোগী

সহ যে কোন সমস্যার কথা আমাকে এবং আমার পরিষদের কাউন্সিলরদেরকে জানান, আমি ও আমার পরিষদ যথাসাধ্য চেষ্টা করবো তার সু-সমাধান করার। তিনি আরো বলেন, পৌরসভার রাস্তা-ঘাট,ড্রেণের রক্ষণা বেক্ষণ ও পরিষ্কার পরিছন্নতা রাখতে পৌরবাসীকেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। এই শহর আপনার আমার সকলের। আসুন আমরা সবাই মিলে এই শহরকে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সুন্দর ভাবে গড়ে তুলি।

তিনি আরো বলেন,দিনাজপুর-৬ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিকের দিক নির্দেশনায় আমি ও আমার পরিষদ নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন এবং বিরামপুরকে আধুনিক, উন্নত, বাসযোগ্য, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন,জলদ্ধতা নিরাশন ও মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ শুরু করছি। এজন্য বিরামপুর পৌরবাসীর পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মাননীয় সংসদ সদস্যকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।