ঢাকা ০৫:৪০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে ঠাকুরগাঁও। রুহিয়া ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলা করোনাভাইরাস এর কারণে বন্ধ থাকায় আবারও পাঁচ বছর পর ১০ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে রানীশংকৈলে নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত রায়পুরে পহেলা বৈশাখে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা নবাবগঞ্জে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ পালিত ঘাটাইলে ব্যবসায়ীর হাত-পায়ের রগ কেটে সর্বস্ব লুট টঙ্গীতে চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ীর উপর হামলা: তদন্তে গিয়ে সিসিটিভি আবদার করলো পুলিশ! আনোয়ারা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে ঈদ পূর্ণমিলনী ও মত বিনিময় সভা মোংলায় নিরুদ্দেশ মোতালেব জমাদ্দারের নাতিদের আকিকা অনুষ্ঠানে হাজারও লোকের ভিড় বহিষ্কার মোঃ রবিউল ইসলাম রবি কে দৈনিক সময়ের কন্ঠ পত্রিকা ও অনলাইন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে

পাকিস্তানের ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ৩০

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট।।

পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে দু’টি ট্রেনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় কমপক্ষে ৩০ জন যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অর্ধশতাধিক যাত্রী। আজ সোমবার সকালে লাইনচ্যুৎ একটি ট্রেনের সঙ্গে আরেকটি দ্রুতগামী ট্রেনের সংঘর্ষে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মিল্লাত এক্সপ্রেস ট্রেনটি লাইনচ্যুৎ হয়। এতে দ্রুতগামী স্যার সৈয়দ এক্সপ্রেস ট্রেনটি ধাক্কা দেয়। দুর্ঘটনার পর গ্রামের মানুষ, উদ্ধারকর্মী এবং পুলিশ সদস্যরা আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান।

কেন ট্রেনটি লাইনচ্যুৎ হয়েছে এবং সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলো তা এ পর্যন্ত পরিষ্কার নয়। উল্লেখ্য, পাকিস্তানে ট্রেন দুর্ঘটনা সাধারণ বিষয়। দেশটির সরকার ট্রেনের সিগন্যাল সিস্টেম এবং রেললাইনের উন্নয়নে তেমন একটা নজর দেয় না। ফলে দুর্ঘটনা বেড়েই চলছে।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে

পাকিস্তানের ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ৩০

আপডেট টাইম : ০৫:১২:০৮ পূর্বাহ্ণ, সোমবার, ৭ জুন ২০২১

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট।।

পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে দু’টি ট্রেনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় কমপক্ষে ৩০ জন যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অর্ধশতাধিক যাত্রী। আজ সোমবার সকালে লাইনচ্যুৎ একটি ট্রেনের সঙ্গে আরেকটি দ্রুতগামী ট্রেনের সংঘর্ষে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মিল্লাত এক্সপ্রেস ট্রেনটি লাইনচ্যুৎ হয়। এতে দ্রুতগামী স্যার সৈয়দ এক্সপ্রেস ট্রেনটি ধাক্কা দেয়। দুর্ঘটনার পর গ্রামের মানুষ, উদ্ধারকর্মী এবং পুলিশ সদস্যরা আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান।

কেন ট্রেনটি লাইনচ্যুৎ হয়েছে এবং সংঘর্ষের ঘটনা ঘটলো তা এ পর্যন্ত পরিষ্কার নয়। উল্লেখ্য, পাকিস্তানে ট্রেন দুর্ঘটনা সাধারণ বিষয়। দেশটির সরকার ট্রেনের সিগন্যাল সিস্টেম এবং রেললাইনের উন্নয়নে তেমন একটা নজর দেয় না। ফলে দুর্ঘটনা বেড়েই চলছে।