ঢাকা ০৩:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সারাদেশে ৫ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ শিশুসহ ২ জামালপুরে নকশি কাথা শিল্পে গ্রামীন মহিলারা আত্মকর্মসংস্থান খুঁজে পেয়েছে পাকুন্দিয়া -কিশোরগঞ্জ হাইওয়ে রোড নির্মাণ কাজের অগ্রহগতি সরেজমিনে পরিদর্শন করেন এডভোকেট মো.সোহরাব উদ্দীন এমপি ইপিজেড থানা পুলিশের অভিযানে (৫০)লিটার দেশীয় তৈরী চোলাই মদ সহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার আবারো বাংলাদেশি যুবক আশিকের বিশ্ব রেকর্ড বিমান বাহিনীর নতুন প্রধান হাসান মাহমুদ খাঁন আজ ঘূর্ণিঝড় রেমাল বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে ২৫ লাখ গ্রাহক মোংলায় ঘূর্ণিঝড় রিমেল মোকাবেলায় ব্যাপক কাজ করছে উপজেলা প্রশাসন রায়পুরে সেপটিক ট্যাংকে নেমে আবারও দুই যুবকে মৃত্যু জামালপুরে সবজি চাষে জৈব সার ব্যবহারের উদ্যোগ

ফ্রান্সে কোভিড-১৯ এ মৃত্যু এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৭:০৪:৩০ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১
  • ২১২ ০.০০০ বার পাঠক

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট।।

ফ্রান্সে প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ এ মৃত্যু এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে। ইউরোপে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর অন্যতম এই দেশটি। বিভিন্ন হাসপাতালের তথ্য নিয়ে বৃহস্পতিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ ধূসর মাইলফলকে পৌঁছানোর খবর নিশ্চিত করেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এদিন ফরাসী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জিইওডিইএস ওয়েবসাইটে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আরও ৩০০ জনের মৃত্যুর তথ্য দেওয়া হয়েছে।

“এই অগ্নিপরীক্ষা থেকে বের হওয়ার লক্ষ্যে আমাদের সমস্ত শক্তি একত্রিত করা হয়েছে, আমরা কারও চেহারা বা নাম ভুলে যাবো না,” টুইটারে এমনটাই বলেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

করোনাভাইরাসে মৃত্যু তালিকায় বিশ্বের দেশগুলোর মধ্যে অষ্টম স্থানে থাকা ফ্রান্সে শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও ৫২ লাখের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে। ৫ লাখ ৬৪ হাজারের বেশি মৃত্যু নিয়ে এ সংক্রান্ত তালিকায় সবার উপরে অবস্থান করছে যুক্তরাষ্ট্র; এরপর আছে ব্রাজিল, মেক্সিকো, ভারত, যুক্তরাজ্য, ইতালি ও রাশিয়া। এরপরেই ফ্রান্স।

রয়টার্সের হিসাবে করোনাভাইরাস এরই মধ্যে বিশ্বের ৩০ লাখের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।

গত বছরের নভেম্বরের শেষভাগে, দ্বিতীয় লকডাউনের শেষের দিকেও ফ্রান্সে ভাইরাসে মৃত্যু ছিল ৫২ হাজারের সামান্য বেশি; ৫ মাস হওয়ার আগেই তা প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেল। একমাস ধরে দেশটি কোভিড-১৯ এ প্রতিদিন গড়ে ৩০০ জনের মৃত্যু রেকর্ড করছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

বৃহস্পতিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বিভিন্ন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে ৫ হাজার ৯২৪ জন কোভিড রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন বলেও জানিয়েছে; একদিন আগেও এ সংখ্যা ছিল ৫ হাজার ৯০২।

২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ৩৮ হাজার ৪৫ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে; আগের দিন দৈনিক শনাক্ত ছিল ৪৩ হাজার ৫০৫। ফ্রান্সে এখন করোনাভাইরাসে ৬০ বা তার চেয়ে বেশি বয়সীদের মৃত্যুর হার কমে এসেছে। নভেম্বরের মাঝামাঝিতেও দেশটি প্রতি সপ্তাহে এক হাজার ৫০০র বেশি ‘সিনিয়র সিটিজেনের’ মৃত্যু দেখেছে, জানুয়ারির প্রথম ভাগে এটি নেমে ৮০০তে দাঁড়ায়। গত সপ্তাহে এ সংখ্যা ছিল ৪৮। এরপরও ফ্রান্স তাদের টিকাদান কর্মসূচীতে অবসরে যাওয়া ব্যক্তিদের ‘কেয়ার হোম’গুলোকেই অগ্রাধিকার দিয়ে আসছে।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সারাদেশে ৫ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ শিশুসহ ২

ফ্রান্সে কোভিড-১৯ এ মৃত্যু এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে

আপডেট টাইম : ০৭:০৪:৩০ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১

আন্তর্জাতিক রিপোর্ট।।

ফ্রান্সে প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ এ মৃত্যু এক লাখ ছাড়িয়ে গেছে। ইউরোপে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর অন্যতম এই দেশটি। বিভিন্ন হাসপাতালের তথ্য নিয়ে বৃহস্পতিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ ধূসর মাইলফলকে পৌঁছানোর খবর নিশ্চিত করেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এদিন ফরাসী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের জিইওডিইএস ওয়েবসাইটে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আরও ৩০০ জনের মৃত্যুর তথ্য দেওয়া হয়েছে।

“এই অগ্নিপরীক্ষা থেকে বের হওয়ার লক্ষ্যে আমাদের সমস্ত শক্তি একত্রিত করা হয়েছে, আমরা কারও চেহারা বা নাম ভুলে যাবো না,” টুইটারে এমনটাই বলেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

করোনাভাইরাসে মৃত্যু তালিকায় বিশ্বের দেশগুলোর মধ্যে অষ্টম স্থানে থাকা ফ্রান্সে শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও ৫২ লাখের কাছাকাছি পৌঁছে গেছে। ৫ লাখ ৬৪ হাজারের বেশি মৃত্যু নিয়ে এ সংক্রান্ত তালিকায় সবার উপরে অবস্থান করছে যুক্তরাষ্ট্র; এরপর আছে ব্রাজিল, মেক্সিকো, ভারত, যুক্তরাজ্য, ইতালি ও রাশিয়া। এরপরেই ফ্রান্স।

রয়টার্সের হিসাবে করোনাভাইরাস এরই মধ্যে বিশ্বের ৩০ লাখের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে।

গত বছরের নভেম্বরের শেষভাগে, দ্বিতীয় লকডাউনের শেষের দিকেও ফ্রান্সে ভাইরাসে মৃত্যু ছিল ৫২ হাজারের সামান্য বেশি; ৫ মাস হওয়ার আগেই তা প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেল। একমাস ধরে দেশটি কোভিড-১৯ এ প্রতিদিন গড়ে ৩০০ জনের মৃত্যু রেকর্ড করছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

বৃহস্পতিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বিভিন্ন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে ৫ হাজার ৯২৪ জন কোভিড রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন বলেও জানিয়েছে; একদিন আগেও এ সংখ্যা ছিল ৫ হাজার ৯০২।

২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ৩৮ হাজার ৪৫ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে; আগের দিন দৈনিক শনাক্ত ছিল ৪৩ হাজার ৫০৫। ফ্রান্সে এখন করোনাভাইরাসে ৬০ বা তার চেয়ে বেশি বয়সীদের মৃত্যুর হার কমে এসেছে। নভেম্বরের মাঝামাঝিতেও দেশটি প্রতি সপ্তাহে এক হাজার ৫০০র বেশি ‘সিনিয়র সিটিজেনের’ মৃত্যু দেখেছে, জানুয়ারির প্রথম ভাগে এটি নেমে ৮০০তে দাঁড়ায়। গত সপ্তাহে এ সংখ্যা ছিল ৪৮। এরপরও ফ্রান্স তাদের টিকাদান কর্মসূচীতে অবসরে যাওয়া ব্যক্তিদের ‘কেয়ার হোম’গুলোকেই অগ্রাধিকার দিয়ে আসছে।