ঢাকা ১০:০৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
তারাকান্দায় যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল ফুলপুরে অবৈধ বালু উত্তোলন করছে ক্ষমতাশালী ব্যক্তিরা, ধ্বংসের মুখে কংশের নদীর তীরের বাসিন্দারা মহানগরের নেতা-কর্মীদের নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার মেয়র টিটুর নতুন রোড নির্মান কাজের শুভ উদ্বোধন করলেন চেয়ারম্যান মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম ফোরাম সভা অনুষ্ঠীত হচ্ছে-জাতীয় প্রেস ক্লাবে প্রধানমন্ত্রীর বেঙ্গচিএ ছবি ফেইসবুকে পোস্ট করার কারণে ছাত্রদল ক্যাডার শাওন আলী গ্রেফতার ট্রেন ঘুর্ঘটনা রুখতে চার বন্ধু আবিষ্কার করেছে ডিজিটাল রেল ক্রসিং পিডিএফ এর উদ্যোগে বশেমুরবিপ্রবিতে বিশ্ব ও জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত তথ্যমন্ত্রী বলেছেন জনসভায় খালেদা জিয়ার যাওয়ার চিন্তা অলীক ও উদ্ভট আগামী ৭ জানুয়ারী থেকে নড়াইলে সুলতান মেলা শুরু

থালা বাটি নিয়ে রাস্তায় মোটরসাইকেল চালকরা

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।

অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবা চালুর দাবিতে খালি থালা নিয়ে মোটরসাইকেল চালকরা মানববন্ধন করছেন। তাদের নানা দুর্ভোগ ও কষ্টের কথা তুলে বক্তব্য রাখছেন। ‘হয় অন্নের ব্যবস্থা নয় রাইড শেয়ারিং চালু করতে হবে’- বলে দাবি জানান দেশের তরুণ রাইডারেরা।

আজ রবিবার (৪ এপ্রিল) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রাস্তায় সকাল থেকে এ মানববন্ধন করছেন তারা। রাইডারদের দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন। করোনা সংক্রমণরোধে গত বুধবার (৩১ মার্চ) রাইড শেয়ারিং সেবায় মোটরসাইকেলের মাধ্যমে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।

মানববন্ধনে খালি থালা নিয়ে বসে এ কর্মসূচি পালন করেন মোটরসাইকেল চালকেরা। তারা বলেন, দেশে যখন কর্মসংস্থানের চরম সমস্যার সময়ে দেশের তরুণেরা রাইড শেয়ারিং করে একটা আশার আলো দেখতে পেয়েছিলেন। কোনোরকম খেয়ে পরে বেঁচে ছিলেন। কিন্তু সরকারের হঠকারি সিদ্ধান্ত আবার তাদের পথে বসিয়েছে।

বক্তারা বলেন, বাড়িতে গেলে বাচ্চা কান্না করে জিজ্ঞাসা করে- বাবা চকলেট এনেছো। মা জিজ্ঞাসা করেন ওষুধ এনেছি কি না। কোথায় পাবো ওষুধ, চকলেট আর খাবার কেনার অর্থ।

আমরা তো অন্যায় কিছু করছি না। আমাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে তারপর আমাদের কর্ম কেড়ে নেন। নইলে এমন সিদ্ধান্তে আমাদের নিঃস্ব করে দেবেন না।

সরকারের উদ্দেশ্যে বক্তারা বলেন, করোনার ভয় আমাদেরও আছে। আমরাও নিরাপদে থাকতে চাই। কিন্তু না খেয়ে কি নিরাপদে থাকা যায়? উপার্জন করে জীবিকা নির্বাহ করতে চাই সেটা যদি না করতে দেন তাহলে আমাদের জীবিকা নির্বাহের ব্যবস্থা করে দেন। বন্ধ করার দায়িত্ব নেবেন আর বেঁচে থাকার দায়িত্ব নেবেন না তা হয় না।

বক্তারা বলেন, আমাদের এখন কাজে ব্যস্ত থাকার কথা। কিন্তু পথে বসে নিজেদের দাবি বাস্তবায়নের জন্যে চিৎকার করতে হচ্ছে। পরিবার কীভাবে চালাব, সেই চিন্তায় সময় পার করতে হচ্ছে।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

তারাকান্দায় যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল

থালা বাটি নিয়ে রাস্তায় মোটরসাইকেল চালকরা

আপডেট টাইম : ১১:৫৬:১৬ পূর্বাহ্ণ, রবিবার, ৪ এপ্রিল ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।

অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং সেবা চালুর দাবিতে খালি থালা নিয়ে মোটরসাইকেল চালকরা মানববন্ধন করছেন। তাদের নানা দুর্ভোগ ও কষ্টের কথা তুলে বক্তব্য রাখছেন। ‘হয় অন্নের ব্যবস্থা নয় রাইড শেয়ারিং চালু করতে হবে’- বলে দাবি জানান দেশের তরুণ রাইডারেরা।

আজ রবিবার (৪ এপ্রিল) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রাস্তায় সকাল থেকে এ মানববন্ধন করছেন তারা। রাইডারদের দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন। করোনা সংক্রমণরোধে গত বুধবার (৩১ মার্চ) রাইড শেয়ারিং সেবায় মোটরসাইকেলের মাধ্যমে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।

মানববন্ধনে খালি থালা নিয়ে বসে এ কর্মসূচি পালন করেন মোটরসাইকেল চালকেরা। তারা বলেন, দেশে যখন কর্মসংস্থানের চরম সমস্যার সময়ে দেশের তরুণেরা রাইড শেয়ারিং করে একটা আশার আলো দেখতে পেয়েছিলেন। কোনোরকম খেয়ে পরে বেঁচে ছিলেন। কিন্তু সরকারের হঠকারি সিদ্ধান্ত আবার তাদের পথে বসিয়েছে।

বক্তারা বলেন, বাড়িতে গেলে বাচ্চা কান্না করে জিজ্ঞাসা করে- বাবা চকলেট এনেছো। মা জিজ্ঞাসা করেন ওষুধ এনেছি কি না। কোথায় পাবো ওষুধ, চকলেট আর খাবার কেনার অর্থ।

আমরা তো অন্যায় কিছু করছি না। আমাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে তারপর আমাদের কর্ম কেড়ে নেন। নইলে এমন সিদ্ধান্তে আমাদের নিঃস্ব করে দেবেন না।

সরকারের উদ্দেশ্যে বক্তারা বলেন, করোনার ভয় আমাদেরও আছে। আমরাও নিরাপদে থাকতে চাই। কিন্তু না খেয়ে কি নিরাপদে থাকা যায়? উপার্জন করে জীবিকা নির্বাহ করতে চাই সেটা যদি না করতে দেন তাহলে আমাদের জীবিকা নির্বাহের ব্যবস্থা করে দেন। বন্ধ করার দায়িত্ব নেবেন আর বেঁচে থাকার দায়িত্ব নেবেন না তা হয় না।

বক্তারা বলেন, আমাদের এখন কাজে ব্যস্ত থাকার কথা। কিন্তু পথে বসে নিজেদের দাবি বাস্তবায়নের জন্যে চিৎকার করতে হচ্ছে। পরিবার কীভাবে চালাব, সেই চিন্তায় সময় পার করতে হচ্ছে।