ঢাকা ১০:৫৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
ফুটপাত দখলমুক্ত অভিমানে (চসিক) বাঘায় নামাজ পড়া অবস্থায় যুবককে ছুরিকাঘাত জখম একজন কাউন্সিলরও যদি বলে আমাকে চায় না- আমি থাকব না: আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  বামনায় শুভসংঘের দপ্তর সম্পাদকের ওপর কিশোর গ্যাং এর হামলা, গ্রেফতার ১  নাসিরনগরে শহীদ নূরুল ইসলাম ফারুকী স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে ঈদ-এ মিলাদুন্নবী উদযাপন রংপুরের পীরগঞ্জে (মাভাকা) সেচ্ছাসেবী সংগঠনের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত চাঁদা বাজী বন্দর দাবিতে প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ মিছিল স্থান যাত্রাবাড়ী ট্রাক স্ট্যান্ড ব্রাহ্মণবাড়িয়া আশুগঞ্জ থেকে ২০৩ বোতল ফেন্সিডিল’সহ ০৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক নিউজ এর পর পৌর ভূমি অফিসে ডিসির অভিযান, ৪ দালাল আটক স্ত্রীকে মারধর স্বামীর, আসামি প্রতিবেশী!

বেড খালি নেই ঢামেকের করোনা ইউনিটে

স্টাফ রিপোর্টার।।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের নতুন ভবনের করোনা ইউনিটে এখন প্রচুর রোগী। বেড খালি না থাকায় নতুন রোগীদের জায়গা দেওয়া যাচ্ছে না।

বেশ কয়েকদিন ধরে সাসপেক্টেড করোনা ও করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। এতে প্রচুর রোগী ঢামেকে ভর্তি হচ্ছে। মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) ঢামেকের মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. হাফিজ সরকারের সঙ্গে কথা হলে এ তথ্য জানান।

হাফিজ সরকার বলেন, বেশ কয়েকদিন ধরে করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। আমাদের হাসপাতালেও ভর্তি হচ্ছে প্রচুর রোগী। হাসপাতালের নতুন ভবনের তৃতীয় তলা থেকে ১০তলা পর্যন্ত করোনা রোগী ভর্তি হয়। ফেব্রুয়ারি মাসে রোগীর সংখ্যা কম ছিল। বেড খালি না থাকায় নতুন রোগীদের জায়গা দেওয়া যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, নতুন ভবনে করোনা সাসপেক্টেড রোগীদের ভর্তি করে আলাদা রাখা হয়। এছাড়া করোনা রোগীদের সরাসরিও ভর্তি করা হয়।

ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমুল হক বলেন, করোনা রোগীর সংখ্যা প্রচুর বেড়ে গেছে। আমরা সবাইকে শয্যা দিতে পারছি না। যারা খুবই ক্রিটিক্যাল রোগী তাদের ভর্তি নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া করোনা আক্রান্ত সব রোগীকেই অক্সিজেন দেওয়া হয়। আমাদের সেন্ট্রাল অক্সিজেনের মাধ্যমে সবাই অক্সিজেন পেয়ে থাকে।

ঢামেক হাসপাতালের ভাইরোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সুলতানা শাহানা বানু বলেন, রোগীর সংখ্যা এখন প্রচুর। আমাদের প্রতিদিন প্রচুর স্যাম্পল সংগ্রহ করতে হয়। ফেব্রুয়ারি মাসে কিছুটা কমে গিয়েছিল। ওই সময় প্রতিদিন মেশিন রান করত একবার আর এখন রান করে তিনবার। একবার রান করার সময় ৯৬টি স্যাম্পল দেওয়া হয় মেশিনে।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ফুটপাত দখলমুক্ত অভিমানে (চসিক)

বেড খালি নেই ঢামেকের করোনা ইউনিটে

আপডেট টাইম : ০৪:২২:৫৬ অপরাহ্ণ, মঙ্গলবার, ২৩ মার্চ ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার।।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের নতুন ভবনের করোনা ইউনিটে এখন প্রচুর রোগী। বেড খালি না থাকায় নতুন রোগীদের জায়গা দেওয়া যাচ্ছে না।

বেশ কয়েকদিন ধরে সাসপেক্টেড করোনা ও করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। এতে প্রচুর রোগী ঢামেকে ভর্তি হচ্ছে। মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) ঢামেকের মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. হাফিজ সরকারের সঙ্গে কথা হলে এ তথ্য জানান।

হাফিজ সরকার বলেন, বেশ কয়েকদিন ধরে করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে গেছে। আমাদের হাসপাতালেও ভর্তি হচ্ছে প্রচুর রোগী। হাসপাতালের নতুন ভবনের তৃতীয় তলা থেকে ১০তলা পর্যন্ত করোনা রোগী ভর্তি হয়। ফেব্রুয়ারি মাসে রোগীর সংখ্যা কম ছিল। বেড খালি না থাকায় নতুন রোগীদের জায়গা দেওয়া যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, নতুন ভবনে করোনা সাসপেক্টেড রোগীদের ভর্তি করে আলাদা রাখা হয়। এছাড়া করোনা রোগীদের সরাসরিও ভর্তি করা হয়।

ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমুল হক বলেন, করোনা রোগীর সংখ্যা প্রচুর বেড়ে গেছে। আমরা সবাইকে শয্যা দিতে পারছি না। যারা খুবই ক্রিটিক্যাল রোগী তাদের ভর্তি নেওয়া হচ্ছে। এছাড়া করোনা আক্রান্ত সব রোগীকেই অক্সিজেন দেওয়া হয়। আমাদের সেন্ট্রাল অক্সিজেনের মাধ্যমে সবাই অক্সিজেন পেয়ে থাকে।

ঢামেক হাসপাতালের ভাইরোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. সুলতানা শাহানা বানু বলেন, রোগীর সংখ্যা এখন প্রচুর। আমাদের প্রতিদিন প্রচুর স্যাম্পল সংগ্রহ করতে হয়। ফেব্রুয়ারি মাসে কিছুটা কমে গিয়েছিল। ওই সময় প্রতিদিন মেশিন রান করত একবার আর এখন রান করে তিনবার। একবার রান করার সময় ৯৬টি স্যাম্পল দেওয়া হয় মেশিনে।