ঢাকা ০৪:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
সংবাদ শিরোনাম ::
আদিবাসীদের সাথে মত বিনিময় করেন গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার কাশিমপুরে প্রতিপক্ষ কে ফাঁসাতে নিজেদের ঘর নিজেরাই ভাংচুর হোমনা ইসলামিয়া ডেন্টাল কেয়ারে ইন্ট্রাওয়াল ক্যামেরা উদ্বোধন করা হয়েছে পীরগঞ্জে সাংবাদিকতয় অবদান রাখায় সম্মাননা পেলেন বিপ্লব সিলেটের স্কলার্সহোম এবারের এইচএসসি ফলাফলে অতীতের সব রেকর্ডের শীর্ষে নড়াইলে বাংলাদেশ পুলিশের কনস্টেবল পদে নিয়োগ পরীক্ষার ৩য় দিনের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন কাশিমপুরে ১ কেজি গাঁজা সহ ৪ মাদক কারবারি গ্রেফতার মামলার ফাঁদে বন্দর ত্যাগ করতে পারছে না কয়লা নিয়ে আসা দুটি বিদেশি জাহাজ গোবিন্দগঞ্জে ইমামদের করণীয় ও ভূমিকা শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুুষ্ঠিত শেরপুরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যা মামলায় যুবকের মৃত্যুদণ্ড

কারাগারে কোন নির্যাতন হয়নি-কার্টুনিস্ট কিশোর প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।

কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরকে নির্যাতন প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বিবিসিকে বলেছেন, কারাগারে কোন নির্যাতন হয়নি এবং অন্য কোথাও হয়ে থাকলে তা খতিয়ে দেখা হবে।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ১০ মাস বন্দী ছিলেন কিশোর। মুক্তি পাওয়ার পরদিন শুক্রবার চিকিৎসার জন্য রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

কিশোরের পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তিনি মুক্তি পাওয়ার পর তার কান দিয়ে পুঁজ পড়ছিল এবং শরীরে নির্যাতনের চিকিৎসা হয়নি। সে জন্য তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এর মাঝে শুক্রবার দেশের দুটি দৈনিকে ওঠে এসেছে আটকের পর কিশোরের ওপর নির্যাতনের ভয়াবহ খবর।

সেখানে কিশোর বলেছেন, গত বছরের ২ মে তাকে বাসা থেকে তুলে নিয়েছিল ১৬/১৭ জনের একটি দল। ৬৯ ঘণ্টা তাকে কোথায় রাখা হয়েছিল, তা তিনি বলতে পারেননি। সে সময় একটি স্যাঁতসেঁতে ঘরে আটকে রেখে চড় দিয়ে কান ফাটিয়ে দেওয়াসহ তার ওপর নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরেছেন। কিন্তু মামলার এজাহারে বলা হয়, র্যাব তাকে গত বছরের ৫ই মে আটক করে।

নির্যাতন প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কারাগারে আহমেদ কবির কিশোরের ওপর নির্যাতনের কোন ঘটনা ঘটেনি। অন্য কোথাও ঘটে থাকলে তা খতিয়ে দেখা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

“ওনাকে কোথায় নির্যাতন করলো, আমরা জানবো কী – আটক অবস্থায় তো কোন নির্যাতন হয়নি। এখন কোথায় হয়েছে – আমি তাদের স্টেটমেন্ট…। আমাদের জেলখানায় কোন নির্যাতন কাউকে করা হয় নাই। আমরা না দেখে বলতে পারবো না।”

কিন্তু কার্টুনিস্টকে বাসা থেকে যখন তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, তারপর নির্যাতনের ভয়াবহ যে বর্ণনা তিনি দিয়েছেন এবং সংবাদমাধ্যমে যা প্রকাশিত হয়েছে- সেগুলো এবং তাকে কারা তুলে নিয়েছিল- এসব খতিয়ে দেখা হবে কিনা, এই প্রশ্ন করা হলে আসাদুজ্জামান খান বলেন, “সেটা আমি দেখবো। আমাদের জানা মতে, আমাদের জেলখানায় তাকে কোন নির্যাতন করা হয়নি।”

কিন্তু আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তুলে নেওয়ার পরই তাকে নির্যাতন করা হয়েছে, সেই অভিযোগ কিশোর করেছেন। উত্তরে মন্ত্রী বলেন, “ওটা আমাকে দেখতে হবে। না দেখে আমি কিছু বলতে পারবো না।”

কিশোরের অভিযোগ প্রসঙ্গে মানবাধিকার কর্মী এলিনা খান বলেন, এ ধরনের আটক ব্যক্তিদের ওপর নির্যাতনের ঘটনা ঘটলে অনেকেই তা প্রকাশ করতে সাহস পান না। দু-একজন তা প্রকাশ করলেও তার পর কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয় না বলে উল্লেখ করেন তিনি।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

আদিবাসীদের সাথে মত বিনিময় করেন গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার

কারাগারে কোন নির্যাতন হয়নি-কার্টুনিস্ট কিশোর প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট টাইম : ০৯:১৬:১৬ পূর্বাহ্ণ, শনিবার, ৬ মার্চ ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।

কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরকে নির্যাতন প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বিবিসিকে বলেছেন, কারাগারে কোন নির্যাতন হয়নি এবং অন্য কোথাও হয়ে থাকলে তা খতিয়ে দেখা হবে।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ১০ মাস বন্দী ছিলেন কিশোর। মুক্তি পাওয়ার পরদিন শুক্রবার চিকিৎসার জন্য রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

কিশোরের পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তিনি মুক্তি পাওয়ার পর তার কান দিয়ে পুঁজ পড়ছিল এবং শরীরে নির্যাতনের চিকিৎসা হয়নি। সে জন্য তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এর মাঝে শুক্রবার দেশের দুটি দৈনিকে ওঠে এসেছে আটকের পর কিশোরের ওপর নির্যাতনের ভয়াবহ খবর।

সেখানে কিশোর বলেছেন, গত বছরের ২ মে তাকে বাসা থেকে তুলে নিয়েছিল ১৬/১৭ জনের একটি দল। ৬৯ ঘণ্টা তাকে কোথায় রাখা হয়েছিল, তা তিনি বলতে পারেননি। সে সময় একটি স্যাঁতসেঁতে ঘরে আটকে রেখে চড় দিয়ে কান ফাটিয়ে দেওয়াসহ তার ওপর নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরেছেন। কিন্তু মামলার এজাহারে বলা হয়, র্যাব তাকে গত বছরের ৫ই মে আটক করে।

নির্যাতন প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কারাগারে আহমেদ কবির কিশোরের ওপর নির্যাতনের কোন ঘটনা ঘটেনি। অন্য কোথাও ঘটে থাকলে তা খতিয়ে দেখা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

“ওনাকে কোথায় নির্যাতন করলো, আমরা জানবো কী – আটক অবস্থায় তো কোন নির্যাতন হয়নি। এখন কোথায় হয়েছে – আমি তাদের স্টেটমেন্ট…। আমাদের জেলখানায় কোন নির্যাতন কাউকে করা হয় নাই। আমরা না দেখে বলতে পারবো না।”

কিন্তু কার্টুনিস্টকে বাসা থেকে যখন তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, তারপর নির্যাতনের ভয়াবহ যে বর্ণনা তিনি দিয়েছেন এবং সংবাদমাধ্যমে যা প্রকাশিত হয়েছে- সেগুলো এবং তাকে কারা তুলে নিয়েছিল- এসব খতিয়ে দেখা হবে কিনা, এই প্রশ্ন করা হলে আসাদুজ্জামান খান বলেন, “সেটা আমি দেখবো। আমাদের জানা মতে, আমাদের জেলখানায় তাকে কোন নির্যাতন করা হয়নি।”

কিন্তু আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তুলে নেওয়ার পরই তাকে নির্যাতন করা হয়েছে, সেই অভিযোগ কিশোর করেছেন। উত্তরে মন্ত্রী বলেন, “ওটা আমাকে দেখতে হবে। না দেখে আমি কিছু বলতে পারবো না।”

কিশোরের অভিযোগ প্রসঙ্গে মানবাধিকার কর্মী এলিনা খান বলেন, এ ধরনের আটক ব্যক্তিদের ওপর নির্যাতনের ঘটনা ঘটলে অনেকেই তা প্রকাশ করতে সাহস পান না। দু-একজন তা প্রকাশ করলেও তার পর কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয় না বলে উল্লেখ করেন তিনি।