ঢাকা ০৬:১৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
তথ্য প্রকাশ হওয়ার পর রাজস্ব কর্মকর্তার মতিউর রহমানের অবৈধ সম্পদের খোঁজ মিলেছে এবার দুদক ভারতের সঙ্গে সই হতে পারে ১০টির বেশি চুক্তি ও এমওইউ প্রধানমন্ত্রী নয়াদিল্লি যাচ্ছে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংক থেকে বাংলাদেশিদের অর্থ তুলে নেওয়ার হার গত কয়েক বছর ধরে বাড়ছে ভাঙা কালভার্টের সড়কে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত দেশের ক্ষতি চায় বিএনপি’ভারতের সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক সৃষ্টি করে রাশিয়ার দুটি জ্বালানি ডিপোতে ড্রোন হামলায় আগুন যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেনজীর ও আছাদুজ্জামানের সম্পদ নিয়ে এবার মুখ খুললেন বছরে ৯২ হাজার কোটি টাকা পাচার হয়: সাবেক পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী মতিউর রহমান একজন জাতীয় রাজস্ব কর্মকর্তা। বর্তমানে কাস্টমস তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদের পাহাড় রয়েছে

২২ লাখ টাকার টেন্ডারের কাজ ৩ লক্ষ টাকায়  শেষ করতে চাচ্ছেন, কন্টাকটর জাকারিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

নরসিংদী জেলায় নরসিংদী সদর উপজেলার পলাশ নির্বাচনী এলাকার আমদিয়া ইউনিয়নের ০৯ নং ওয়ার্ড

কমিউনিটি ক্লিনিক এর নিম্ন  মানের ইট, সিমেন্ট বালি, খোয়া রড দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন কন্টাকটর জাকারিয়া।

নি¤œ মানের মালামাল দিয়ে কাজ করায় সচেতন এলাকাবাসীর প্রতিবাদে প্রায় ২০-২৫ দিন কাজ বন্ধ থাকে।

হঠাৎ করে রাতের আধারে ঐ নি¤œ মানের মালামাল দিয়ে কাজ শুরু করেন। সময়ের  অনুসন্ধানকে ওয়ার্ড

আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আমানউল্লাহ মুঠোফোনে বলেন যে, আমদিয়া ইউনিয়নের ০৯ নং ওয়ার্ড

কমিউনিটি ক্লিনিকের কাজ নিম্ন  মানের মালামাল দিয়ে করতেছেন, সময়ের অনুসন্ধানের প্রতিবেদক সরজমিনে

গিয়ে তদন্ত করে দেখেন নিম্ন  মানের সরঞ্জাম দিয়ে কাজ চলছে। অত্র প্রতিবেদককে এলাকাবাসী জানান যে এক

বস্তা সিমেন্টের সাথে দশ বস্তা বালি পুরাতন ও নিম্ন  মানের ইট ও রড দিয়ে রাতের আধারে দ্রæত গতিতে কাজ

চালিয়ে যাচ্ছেন। সময়ের অনুসন্ধানের প্রতিবেদক কন্টাকটর জাকারিয়াকে ফোন দিলে সে ফোন রিসিভ করেনি।

তারপর স্থানীয় লোকজন মরফত জানা গেল জাকারিয়ার শ্যালক হাসান এই কাজ পরিচালনা করছেন। হাসানকে

খবর পাঠালে সে গটনা স্থলে আসে না। অতপর প্রতিবেদক হাসানকে মুঠো ফোনে নিম্ন  মানের কাজ সমন্ধে

জানতে চাইলে সে উচ্চস্বরে বলেন, আমরা ব্যবসা করতে এসেছি ব্যবসা করবো না? স্থানীয় সংসদ সদস্যকে

বিষয়টি জানালে তিনি বলেন আমি নিম্ন মানের কাজ করার কথা কখনো বলতে পারি না, ভালো ভাবে কাজ

করতে হবে, এবং উপজেলা  স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা  কর্মকর্তা ডঃ  মোঃ আবু কাউছের সুমন এর  সাথে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন এলাকাবাসীর

অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমি কাজটি বন্ধ করে দিয়েছিলাম এবং ভালো মানের মালামাল দিয়ে পুনরায় কাজটি

করার জন্য বলেছিলাম। তিনি একথাও বলেন যে, আমি আগামীকাল নিজে সরজমিনে গিয়ে দেখে তদন্ত করে কাজ বন্ধ করে দিব।

ভিডিওটি দেখুন

চোখ রাখুন সময়ের অনুসন্ধানে।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

তথ্য প্রকাশ হওয়ার পর রাজস্ব কর্মকর্তার মতিউর রহমানের অবৈধ সম্পদের খোঁজ মিলেছে এবার দুদক

২২ লাখ টাকার টেন্ডারের কাজ ৩ লক্ষ টাকায়  শেষ করতে চাচ্ছেন, কন্টাকটর জাকারিয়া

আপডেট টাইম : ১২:২২:২৬ অপরাহ্ণ, বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

নরসিংদী জেলায় নরসিংদী সদর উপজেলার পলাশ নির্বাচনী এলাকার আমদিয়া ইউনিয়নের ০৯ নং ওয়ার্ড

কমিউনিটি ক্লিনিক এর নিম্ন  মানের ইট, সিমেন্ট বালি, খোয়া রড দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন কন্টাকটর জাকারিয়া।

নি¤œ মানের মালামাল দিয়ে কাজ করায় সচেতন এলাকাবাসীর প্রতিবাদে প্রায় ২০-২৫ দিন কাজ বন্ধ থাকে।

হঠাৎ করে রাতের আধারে ঐ নি¤œ মানের মালামাল দিয়ে কাজ শুরু করেন। সময়ের  অনুসন্ধানকে ওয়ার্ড

আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আমানউল্লাহ মুঠোফোনে বলেন যে, আমদিয়া ইউনিয়নের ০৯ নং ওয়ার্ড

কমিউনিটি ক্লিনিকের কাজ নিম্ন  মানের মালামাল দিয়ে করতেছেন, সময়ের অনুসন্ধানের প্রতিবেদক সরজমিনে

গিয়ে তদন্ত করে দেখেন নিম্ন  মানের সরঞ্জাম দিয়ে কাজ চলছে। অত্র প্রতিবেদককে এলাকাবাসী জানান যে এক

বস্তা সিমেন্টের সাথে দশ বস্তা বালি পুরাতন ও নিম্ন  মানের ইট ও রড দিয়ে রাতের আধারে দ্রæত গতিতে কাজ

চালিয়ে যাচ্ছেন। সময়ের অনুসন্ধানের প্রতিবেদক কন্টাকটর জাকারিয়াকে ফোন দিলে সে ফোন রিসিভ করেনি।

তারপর স্থানীয় লোকজন মরফত জানা গেল জাকারিয়ার শ্যালক হাসান এই কাজ পরিচালনা করছেন। হাসানকে

খবর পাঠালে সে গটনা স্থলে আসে না। অতপর প্রতিবেদক হাসানকে মুঠো ফোনে নিম্ন  মানের কাজ সমন্ধে

জানতে চাইলে সে উচ্চস্বরে বলেন, আমরা ব্যবসা করতে এসেছি ব্যবসা করবো না? স্থানীয় সংসদ সদস্যকে

বিষয়টি জানালে তিনি বলেন আমি নিম্ন মানের কাজ করার কথা কখনো বলতে পারি না, ভালো ভাবে কাজ

করতে হবে, এবং উপজেলা  স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা  কর্মকর্তা ডঃ  মোঃ আবু কাউছের সুমন এর  সাথে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন এলাকাবাসীর

অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমি কাজটি বন্ধ করে দিয়েছিলাম এবং ভালো মানের মালামাল দিয়ে পুনরায় কাজটি

করার জন্য বলেছিলাম। তিনি একথাও বলেন যে, আমি আগামীকাল নিজে সরজমিনে গিয়ে দেখে তদন্ত করে কাজ বন্ধ করে দিব।

ভিডিওটি দেখুন

চোখ রাখুন সময়ের অনুসন্ধানে।