ঢাকা ০৭:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
মেট্রোরেল স্টেশনের ধ্বংসলীলা দেখে কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী রুশ এমআই-২৮ সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত মস্কোর দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত কালুগা অঞ্চলে আজ বৃহস্পতিবার হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয় কে হামলা চালাবে—বিএনপির নীল নকশা আগেই প্রস্তুত ছিল: কাদের ৪ দিন কোথায় কী অবস্থায় ছিলেন সমন্বয়ক আসিফ সারা দেশে হাজারো প্রাণ কেড়ে নেওয়ার ব্যাপারে সরকার কোনো কথা বলছে না: মির্জা ফখরুল সব ধরনের সহিংসতার হুমকি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র ডিএমপির তিন যুগ্ম-কমিশনারকে স্থান বদলি বাসে আগুন দিতে ৪ লাখ টাকায় চুক্তি, শ্রমিক লীগ নেতা গ্রেপ্তার রোকেয়া হলে ছাত্রলীগ নেত্রীদের হলছাড়া করল আন্দোলনকারীরা আন্দোলনকারীদের মৃত্যুর জন্য সরকারের পক্ষ থেকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে, ৩৩ নাগরিকের বিবৃতি বিবৃতিতে বলা হয়, দাবি আদায় করতে হয় জীবনের বিনিময়ে বা দমন করতে হয় হত্যা করে

হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি আপডেট নিয়ে ভাইবার সিইও’র ক্ষোভ প্রকাশ

  • আপডেট টাইম : ০৭:২৬:৪৬ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২১
  • / ৩৩৬ ৫০০.০০০ বার পাঠক

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

ব্যবহারকারীদের বিকল্প প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারের  আহ্বান বিনামূল্যে এবং সহজে যোগাযোগের জন্য বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় অ্যাপ রাকুতেন

ভাইবার হোয়াটসঅ্যাপের সর্বশেষ গোপনীয়তা সংক্রান্তআপডেট নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। আগে হোয়াটসঅ্যাপ

ব্যবহারকারীরা তাদের ফোন নাম্বার ফেসবুকের সাথে শেয়ার করবে কিনা তা নির্বাচন করার সুযোগ পেত। কিন্তু

সামনে এটি ব্যবহারকারীদের জন্য বাধ্যতামূলক করা হবে। ব্যবহারকারীদের অবশ্যই ৩০ দিনের মধ্যে নতুন

শর্তাদিতে সম্মতি প্রদান করতে হবে, অন্যথায় তারা তাদের অ্যাকাউন্ট আর ব্যবহার করতে পারবেন না।

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের এই দোদুল্যমান অবস্থা বোঝার জন্য আমরা ২০১৮ সালে হোয়াটসঅ্যাপের সহ-

প্রতিষ্ঠাতা ব্রায়ান অ্যাক্টনের পার্মি ওলসেনের সাথে ফোর্বসে দেয়া সাক্ষাৎকারটি পড়ে দেখতে পারি। ওই

সাক্ষাৎকারে তিনি তার চলে যাওয়ার পেছনের কারণ নিয়ে আলোচনা করেছিলেন এবং তার টুইটে সবাইকে ফেসবুক

ডিলিট করে দেয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘আমি আমার ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা অনেক বড়

স্বার্থের জন্য বিক্রি করেছি। আমি এ সিদ্ধান্তনিয়েছি এবং এর সাথে আমাকে আপস করতে হয়েছে। এখন

প্রতিদিনই আমি বিষয়টি নিয়ে ভাবছি।’

সর্বশেষ আপডেটের মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ফেসবুকের সাথে একীভূত যাওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। ফেসবুক

এবং হোয়াটসঅ্যাপের এই এক হয়ে যাওয়ার ফলে মেসেজিং অ্যাপ ব্যবহারকারীদের আগের তুলনায় অনেক বেশি

মানিটাইজ করা হচ্ছে। বিষয়টি ব্যক্তিগত মেসেজিং করতে যারা আগ্রহী, তাদের জন্য বেশ উদ্বেগজনক।

৪ জানুয়ারি, ২০২১ -এর আপডেটের আগ পর্যন্ত, হোয়াটসঅ্যাপের চুক্তি সংক্রান্তশর্তাদিতে বলা হতো- ‘আপনার

গোপনীয়তার প্রতি আমরা সর্বাত্মকভাবে শ্রদ্ধাশীল। হোয়াটসঅ্যাপের যাত্রার শুরু থেকেই আমরা গোপনীয়তা

সংক্রান্তনীতিমালা মাথায় রেখে আমাদের সেবা তৈরি করতে চেয়েছি।’

‘আপনার হোয়াটসঅ্যাপের মেসেজগুলো অন্যদের দেখার জন্য ফেসবুকে শেয়ার করা হবে না। ফেসবুক আমাদের

সেবা পরিচালনা ও প্রদানে সহায়তা করা ব্যতীত অন্য কোন উদ্দেশ্যে আপনার হোয়াটসঅ্যাপের মেসেজ ব্যবহার

করবে না।’

স্বাভাবিকভাবেই এই দুইটি বিবৃতি ইতিমধ্যে মুছে ফেলা হয়েছে।

তথ্য সংক্রান্তগোপনীয়তা নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপের এই অনিশ্চয়তাপূর্ণ নীতির সম্পূর্ণ বিপরীতে ভাইবার অনন্য নজির

স্থাপন করেছে। ব্যবহারকারীদের তথ্যের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা সুনিশ্চিত করতে ভাইবারে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফিচার

রয়েছে। এই ফিচারগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- বিনামূল্যে ব্যক্তিগত কল এবং চ্যাটের জন্য ডিফল্টস্বরূপ এন্ড-

টু-এন্ড এনক্রিপশন, যেখানে বিশেষ কোন সেটিংসের প্রয়োজন নেই। ভাইবারে অংশগ্রহণকারী ব্যতীত ভাইবার

নিজেও কোনো ব্যবহারকারীর কল এবং চ্যাট অ্যাক্সেস করতে পারবে না।

প্রেরিত কোন মেসেজ ভাইবার সংরক্ষণ করে না এবং ক্লাউড ব্যাকআপ ডিফল্টভাবে বন্ধ থাকে। যেসব

ব্যবহারকারীরা তাদের বার্তা ব্যাক আপ রাখতে চান, তারা চাইলে ক্লাউড ব্যাকআপ সক্রিয় করতে পারেন। তবে,

ভাইবার ব্যবহারকারীদের মেসেজ এবং কলের কোন অনুলিপি রাখে না। ভাইবার স্ক্রিনের গোপনীয়তার সর্বোচ্চনিশ্চয়তা প্রদান করে। ভাইবারের ব্যবহারকারীদের সেলফ-ডেস্ট্রাক্টিং বার্তা পাঠানোর সুযোগ রয়েছে। পাশাপাশি,

বার্তা আদান-প্রদানের সময় ব্যবহারকারীরা চাইলেই পুরো কথোপকথনটি গোপন করতে পারবেন, যা শুধুমাত্র পিন

কোডের মাধ্যমেই দেখা যাবে। ভাইবারে ব্যবহারকারীর তথ্য কখনো ফেসবুকের সাথে শেয়ার করা হয় না। ভাইবার

ফেসবুকের সাথে সমস্তব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। আর তাই, ব্যবহারকারীদের তথ্য (ফোন নাম্বার এবং

ব্যক্তিগত তথ্য) কখনোই ফেসবুকের সাথে শেয়ার করা হবে না।

রাকুতেন ভাইবারের প্রধান নির্বাহী জ্যামেল আগাওয়া বলেন, ‘হোয়াটসঅ্যাপের গোপনীয়তা সংক্রান্তনীতিমালায়

সাম্প্রতিক আপত্তিকর আপডেটটি গোপনীয়তার মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে একটি হাস্যকর বিষয়ে পরিণত করেছে।

হোয়াটসঅ্যাপের কাছে ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা কতটা অর্থহীন আপডেটটি কেবল তাই প্রদর্শন করে না, এটি

ব্যবহারকারীদের তথ্য অবমাননার ক্ষেত্রে একটি নতুন রেকর্ড বলা যায় এবং নিঃসন্দেহে ভবিষ্যতে এই রেকর্ড আরও

ভাঙতে থাকবে। আজ আমি ভাইবারের গোপনীয়তা সংক্রান্তনীতিমালা নিয়ে সবচেয়ে বেশি গর্ববোধ করছি এবং

যেসকল নারী-পুরুষ নিজেদের সর্বাধিক নিলামকারীর কাছে বিক্রিযোগ্য তথ্যের চেয়ে বেশি কিছু মনে করেন, তাদের

সকলকে মেসেজিং ও কল করার ক্ষেত্রে ভাইবার ব্যবহারের আহ্বান জানাচ্ছি।’

-শেষ-

রাকুতেন ভাইবার:

বিশ্বজুড়েই সবাইকে কানেক্টেড রাখতে কাজ করে রাকুতেন ভাইবার। এক্ষেত্রে, ব্যবহারকারীর পরিচয় এবং তাদের অবস্থান বিবেচ্য

নয়। সারাবিশ্বেআমাদের ব্যবহারকারীরা ওয়ান-অন-ওয়ান চ্যাট, ভিডিও কল এবং গ্রুপ মেসেজিং ফিচার ব্যবহারের সুবিধা উপভোগ

করেন। এছাড়াও, তারা তাদের পছন্দের ব্র্যান্ড এবং সেলেব্রেটিদের সাথে আলোচনা এবং তাদের সাম্প্রতিক কর্মকা- সম্পর্কে খোঁজ-

খবর নিতে পারেন এ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে। ভাইবার এর ব্যবহারকারীদের জন্য নিরাপদ ও সুরক্ষিত পরিবেশ নিশ্চিত করে, যেনো তারা

কোনো সংশয় ছাড়াই তাদের অনুভূতিগুলো শেয়ার করতে পারেন।

রাকুতেন ভাইবার বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স এবং আর্থিক সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান রাকুতেন ইনকরপোরেটের একটি অংশ। ভাইবরি

বিশ্বের জনপ্রিয় ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনার অফিশিয়াল কমিউনিকেশন চ্যানেল এবং গোল্ডেন স্টেট ওয়ারিয়রস -এর অফিসিয়াল ইন্সট্যান্ট

মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ পার্টনার।

তাই, বিরামহীন যোগাযোগে অভিজ্ঞতা পেতে আজইযুক্ত হোন ভাইবাস

বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন:

মিডিয়া তথ্যের জন্য যোগাযোগ: ফারহাত আহমেদ; অ্যাসিসট্যান্ট ম্যানেজার, ।

আরো খবর.......

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি আপডেট নিয়ে ভাইবার সিইও’র ক্ষোভ প্রকাশ

আপডেট টাইম : ০৭:২৬:৪৬ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারি ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

ব্যবহারকারীদের বিকল্প প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারের  আহ্বান বিনামূল্যে এবং সহজে যোগাযোগের জন্য বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় অ্যাপ রাকুতেন

ভাইবার হোয়াটসঅ্যাপের সর্বশেষ গোপনীয়তা সংক্রান্তআপডেট নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। আগে হোয়াটসঅ্যাপ

ব্যবহারকারীরা তাদের ফোন নাম্বার ফেসবুকের সাথে শেয়ার করবে কিনা তা নির্বাচন করার সুযোগ পেত। কিন্তু

সামনে এটি ব্যবহারকারীদের জন্য বাধ্যতামূলক করা হবে। ব্যবহারকারীদের অবশ্যই ৩০ দিনের মধ্যে নতুন

শর্তাদিতে সম্মতি প্রদান করতে হবে, অন্যথায় তারা তাদের অ্যাকাউন্ট আর ব্যবহার করতে পারবেন না।

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের এই দোদুল্যমান অবস্থা বোঝার জন্য আমরা ২০১৮ সালে হোয়াটসঅ্যাপের সহ-

প্রতিষ্ঠাতা ব্রায়ান অ্যাক্টনের পার্মি ওলসেনের সাথে ফোর্বসে দেয়া সাক্ষাৎকারটি পড়ে দেখতে পারি। ওই

সাক্ষাৎকারে তিনি তার চলে যাওয়ার পেছনের কারণ নিয়ে আলোচনা করেছিলেন এবং তার টুইটে সবাইকে ফেসবুক

ডিলিট করে দেয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘আমি আমার ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা অনেক বড়

স্বার্থের জন্য বিক্রি করেছি। আমি এ সিদ্ধান্তনিয়েছি এবং এর সাথে আমাকে আপস করতে হয়েছে। এখন

প্রতিদিনই আমি বিষয়টি নিয়ে ভাবছি।’

সর্বশেষ আপডেটের মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ফেসবুকের সাথে একীভূত যাওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। ফেসবুক

এবং হোয়াটসঅ্যাপের এই এক হয়ে যাওয়ার ফলে মেসেজিং অ্যাপ ব্যবহারকারীদের আগের তুলনায় অনেক বেশি

মানিটাইজ করা হচ্ছে। বিষয়টি ব্যক্তিগত মেসেজিং করতে যারা আগ্রহী, তাদের জন্য বেশ উদ্বেগজনক।

৪ জানুয়ারি, ২০২১ -এর আপডেটের আগ পর্যন্ত, হোয়াটসঅ্যাপের চুক্তি সংক্রান্তশর্তাদিতে বলা হতো- ‘আপনার

গোপনীয়তার প্রতি আমরা সর্বাত্মকভাবে শ্রদ্ধাশীল। হোয়াটসঅ্যাপের যাত্রার শুরু থেকেই আমরা গোপনীয়তা

সংক্রান্তনীতিমালা মাথায় রেখে আমাদের সেবা তৈরি করতে চেয়েছি।’

‘আপনার হোয়াটসঅ্যাপের মেসেজগুলো অন্যদের দেখার জন্য ফেসবুকে শেয়ার করা হবে না। ফেসবুক আমাদের

সেবা পরিচালনা ও প্রদানে সহায়তা করা ব্যতীত অন্য কোন উদ্দেশ্যে আপনার হোয়াটসঅ্যাপের মেসেজ ব্যবহার

করবে না।’

স্বাভাবিকভাবেই এই দুইটি বিবৃতি ইতিমধ্যে মুছে ফেলা হয়েছে।

তথ্য সংক্রান্তগোপনীয়তা নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপের এই অনিশ্চয়তাপূর্ণ নীতির সম্পূর্ণ বিপরীতে ভাইবার অনন্য নজির

স্থাপন করেছে। ব্যবহারকারীদের তথ্যের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা সুনিশ্চিত করতে ভাইবারে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফিচার

রয়েছে। এই ফিচারগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- বিনামূল্যে ব্যক্তিগত কল এবং চ্যাটের জন্য ডিফল্টস্বরূপ এন্ড-

টু-এন্ড এনক্রিপশন, যেখানে বিশেষ কোন সেটিংসের প্রয়োজন নেই। ভাইবারে অংশগ্রহণকারী ব্যতীত ভাইবার

নিজেও কোনো ব্যবহারকারীর কল এবং চ্যাট অ্যাক্সেস করতে পারবে না।

প্রেরিত কোন মেসেজ ভাইবার সংরক্ষণ করে না এবং ক্লাউড ব্যাকআপ ডিফল্টভাবে বন্ধ থাকে। যেসব

ব্যবহারকারীরা তাদের বার্তা ব্যাক আপ রাখতে চান, তারা চাইলে ক্লাউড ব্যাকআপ সক্রিয় করতে পারেন। তবে,

ভাইবার ব্যবহারকারীদের মেসেজ এবং কলের কোন অনুলিপি রাখে না। ভাইবার স্ক্রিনের গোপনীয়তার সর্বোচ্চনিশ্চয়তা প্রদান করে। ভাইবারের ব্যবহারকারীদের সেলফ-ডেস্ট্রাক্টিং বার্তা পাঠানোর সুযোগ রয়েছে। পাশাপাশি,

বার্তা আদান-প্রদানের সময় ব্যবহারকারীরা চাইলেই পুরো কথোপকথনটি গোপন করতে পারবেন, যা শুধুমাত্র পিন

কোডের মাধ্যমেই দেখা যাবে। ভাইবারে ব্যবহারকারীর তথ্য কখনো ফেসবুকের সাথে শেয়ার করা হয় না। ভাইবার

ফেসবুকের সাথে সমস্তব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। আর তাই, ব্যবহারকারীদের তথ্য (ফোন নাম্বার এবং

ব্যক্তিগত তথ্য) কখনোই ফেসবুকের সাথে শেয়ার করা হবে না।

রাকুতেন ভাইবারের প্রধান নির্বাহী জ্যামেল আগাওয়া বলেন, ‘হোয়াটসঅ্যাপের গোপনীয়তা সংক্রান্তনীতিমালায়

সাম্প্রতিক আপত্তিকর আপডেটটি গোপনীয়তার মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে একটি হাস্যকর বিষয়ে পরিণত করেছে।

হোয়াটসঅ্যাপের কাছে ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা কতটা অর্থহীন আপডেটটি কেবল তাই প্রদর্শন করে না, এটি

ব্যবহারকারীদের তথ্য অবমাননার ক্ষেত্রে একটি নতুন রেকর্ড বলা যায় এবং নিঃসন্দেহে ভবিষ্যতে এই রেকর্ড আরও

ভাঙতে থাকবে। আজ আমি ভাইবারের গোপনীয়তা সংক্রান্তনীতিমালা নিয়ে সবচেয়ে বেশি গর্ববোধ করছি এবং

যেসকল নারী-পুরুষ নিজেদের সর্বাধিক নিলামকারীর কাছে বিক্রিযোগ্য তথ্যের চেয়ে বেশি কিছু মনে করেন, তাদের

সকলকে মেসেজিং ও কল করার ক্ষেত্রে ভাইবার ব্যবহারের আহ্বান জানাচ্ছি।’

-শেষ-

রাকুতেন ভাইবার:

বিশ্বজুড়েই সবাইকে কানেক্টেড রাখতে কাজ করে রাকুতেন ভাইবার। এক্ষেত্রে, ব্যবহারকারীর পরিচয় এবং তাদের অবস্থান বিবেচ্য

নয়। সারাবিশ্বেআমাদের ব্যবহারকারীরা ওয়ান-অন-ওয়ান চ্যাট, ভিডিও কল এবং গ্রুপ মেসেজিং ফিচার ব্যবহারের সুবিধা উপভোগ

করেন। এছাড়াও, তারা তাদের পছন্দের ব্র্যান্ড এবং সেলেব্রেটিদের সাথে আলোচনা এবং তাদের সাম্প্রতিক কর্মকা- সম্পর্কে খোঁজ-

খবর নিতে পারেন এ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে। ভাইবার এর ব্যবহারকারীদের জন্য নিরাপদ ও সুরক্ষিত পরিবেশ নিশ্চিত করে, যেনো তারা

কোনো সংশয় ছাড়াই তাদের অনুভূতিগুলো শেয়ার করতে পারেন।

রাকুতেন ভাইবার বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স এবং আর্থিক সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান রাকুতেন ইনকরপোরেটের একটি অংশ। ভাইবরি

বিশ্বের জনপ্রিয় ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনার অফিশিয়াল কমিউনিকেশন চ্যানেল এবং গোল্ডেন স্টেট ওয়ারিয়রস -এর অফিসিয়াল ইন্সট্যান্ট

মেসেজিং ও কলিং অ্যাপ পার্টনার।

তাই, বিরামহীন যোগাযোগে অভিজ্ঞতা পেতে আজইযুক্ত হোন ভাইবাস

বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন:

মিডিয়া তথ্যের জন্য যোগাযোগ: ফারহাত আহমেদ; অ্যাসিসট্যান্ট ম্যানেজার, ।