ঢাকা ০৪:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
কোটা সংস্কারের পক্ষে সরকার নীতিগতভাবে একমত: আইনমন্ত্রী ঘোষণার পর মানছেন না কোটা আন্দোলনকারীরা আমার ভাইদের ফেরত দেওয়া হোক আগে রায়পুরে বালু উত্তোলনে ভাঙন আতঙ্ক সরকারের কাছ থেকে দৃশ্যমান পদক্ষেপ ও সমাধানের পথ তৈরির প্রত্যাশা করে বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন শনির আখড়া-যাত্রাবাড়ী সড়কে চলছে সংঘর্ষ, যান চলালাচল অচল করে দিচ্ছেন ফেসবুক লাইভে এসে পদত্যাগের ঘোষণা ছাত্রলীগ নেতার উত্তরায় গুলিতে নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ শিক্ষার্থী নিহত কমপ্লিট শাটডাউন ঢাকার সঙ্গে সব জেলার যোগাযোগ বন্ধ, টার্মিনাল থেকে ছাড়ছে না কোনো বাস ফুলবাড়ীর দৌলতপুর ইউনিয়নে গরু চুরির হিড়িক দেশবাসীর প্রতি মির্জা ফখরুলের আহ্বান, শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ান অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঢাবি, ৬টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ

মাঘের শেষে শোভা ছড়াচ্ছে স্বর্নালী মুকুল

সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৪:৩৭:৫৫ অপরাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  • / ১৮৫ ৫০০.০০০ বার পাঠক

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি।।
শীত শেষ হয়নি,ফালগুনও আসেনি। এরই মধ্যে স্বর্নালী মুকুলের দেখা মিলেছে আম গাছে। শীতের ¯িœগ্ধতার মধ্যেই শোভা ছড়াচ্ছে স্বর্নালী মুকুল। আমগাছের পাতার ফাঁকে ফাঁকে উঁকি দেওয়া মুকুলের ঘ্রান কাছে টানছে মৌমাছিদের। রাজশাহীর বাঘায় বেশ কিছু আম গাছে মাঘের শেষে এই মুকুল ফুটতে শুরু করেছে। আর আশায় বুক বেঁধে পরিচর্যা শুরু করেছেন আম ব্যবসায়ী ও চাষিরাও। উপজেলার বাউসা গ্রামের হযরত আলী বলেন, গাছের মুকুল দেখে মনটা ভরে উঠেছে। তবে আগাম আসা মুকুল স্থায়ী হবে কি-না, তা নিয়ে শঙ্কায় আছি। মনে করছি আবহাওয়া জনিত কারণে মুকুলের ক্ষতি না হলে এ বছর আমের উৎপাদন বেশি হবে।
উপজেলার মনিগ্রাম এলাকার আম চাষি জিল্লুর রহমান বলেন,প্রতিবছরই কিছু কিছু আম গাছে আগাম মুকুল আসে। আবহাওয়া জনিত কারণে এসব মুকুল অনেক সময় নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তবে নিয়ম মেনে শেষ মাঘে যেসব গাছে মুকুল আসবে, সেসব গাছের মুকুল স্থায়ী হবে।
বাঘা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শফিউল্লাহ সুলতান বলেন, নির্ধারিত সময়ের আগেই আবহাওয়া ও জাতের কারনেই মূলত আমের মুকুল আসতে শুরু করেছে। আবহাওয়া পরিবর্তন অর্থাৎ যে আবহাওয়াটা মুকুলের জন্য প্রয়োজন,সেটা আগেই পেয়ে গেছে,তাই মুকুল এসেছে। তবে ঘন কুয়াশা ও বেশি শৈত প্রবাহে আগাম মুকুলের ক্ষতি হতে পারে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে চলতি মৌসুমে সব গাছে মুকুল দেখা যাবে। নিরাপদ আম উৎপাদনে উপজেলার আম চাষিদের উন্নত প্রযুক্তিতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে বলে জানান কৃষি কর্মকর্তা । বাঘা উপজেলায় ৮ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমিতে আমের বাগান রয়েছে বলে জানান এই কৃষি কর্মকর্তা। ##

আরো খবর.......

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মাঘের শেষে শোভা ছড়াচ্ছে স্বর্নালী মুকুল

আপডেট টাইম : ০৪:৩৭:৫৫ অপরাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২২

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি।।
শীত শেষ হয়নি,ফালগুনও আসেনি। এরই মধ্যে স্বর্নালী মুকুলের দেখা মিলেছে আম গাছে। শীতের ¯িœগ্ধতার মধ্যেই শোভা ছড়াচ্ছে স্বর্নালী মুকুল। আমগাছের পাতার ফাঁকে ফাঁকে উঁকি দেওয়া মুকুলের ঘ্রান কাছে টানছে মৌমাছিদের। রাজশাহীর বাঘায় বেশ কিছু আম গাছে মাঘের শেষে এই মুকুল ফুটতে শুরু করেছে। আর আশায় বুক বেঁধে পরিচর্যা শুরু করেছেন আম ব্যবসায়ী ও চাষিরাও। উপজেলার বাউসা গ্রামের হযরত আলী বলেন, গাছের মুকুল দেখে মনটা ভরে উঠেছে। তবে আগাম আসা মুকুল স্থায়ী হবে কি-না, তা নিয়ে শঙ্কায় আছি। মনে করছি আবহাওয়া জনিত কারণে মুকুলের ক্ষতি না হলে এ বছর আমের উৎপাদন বেশি হবে।
উপজেলার মনিগ্রাম এলাকার আম চাষি জিল্লুর রহমান বলেন,প্রতিবছরই কিছু কিছু আম গাছে আগাম মুকুল আসে। আবহাওয়া জনিত কারণে এসব মুকুল অনেক সময় নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তবে নিয়ম মেনে শেষ মাঘে যেসব গাছে মুকুল আসবে, সেসব গাছের মুকুল স্থায়ী হবে।
বাঘা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শফিউল্লাহ সুলতান বলেন, নির্ধারিত সময়ের আগেই আবহাওয়া ও জাতের কারনেই মূলত আমের মুকুল আসতে শুরু করেছে। আবহাওয়া পরিবর্তন অর্থাৎ যে আবহাওয়াটা মুকুলের জন্য প্রয়োজন,সেটা আগেই পেয়ে গেছে,তাই মুকুল এসেছে। তবে ঘন কুয়াশা ও বেশি শৈত প্রবাহে আগাম মুকুলের ক্ষতি হতে পারে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে চলতি মৌসুমে সব গাছে মুকুল দেখা যাবে। নিরাপদ আম উৎপাদনে উপজেলার আম চাষিদের উন্নত প্রযুক্তিতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে বলে জানান কৃষি কর্মকর্তা । বাঘা উপজেলায় ৮ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমিতে আমের বাগান রয়েছে বলে জানান এই কৃষি কর্মকর্তা। ##