ঢাকা ০৮:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩
সংবাদ শিরোনাম ::
রংপুর পীরগঞ্জের বড় আলমপুর ইউনিয়নের বর্ষপুতিতে কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হামলা চালিয়ে ভাঙ্চুর, মারপিট, টাকা ও অলঙ্কার লুট করে উল্টো হাসপাতালে ভর্তি হিরো আলমকে সমর্থন নতুনধারার ঢাকাস্থ ভাটারা সমিতির সহযোগিতায় জামালপুরে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ প্রভাবশালীর অত্যাচারে ৬ মাস বাড়ি ছাড়া বিচারের দাবিতে পথে পথে অসহায় পরিবার দুটি নাসিরনগরে বাস ও অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে ৯ জন আহত বান্দরবানের পাহাড়ের ঢালুতে বানিজ্যিক ভাবে চাষ হচ্ছে ঠান্ডা আলু বাংলাদেশ একটি সফল উন্নয়নের গল্প: বিশ্ব ব্যাংক বিরামপুর রেলস্টেশনে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান। টাকার অভাবে চিকিৎসা করতে পারছে না প্রতিবন্ধী জাকারিয়া। মোঃ আসাদুজ্জামান

গাজীপুরের অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ

গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি।।

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অপহরণের এক আসামীকে আটকের পর জিম্মায় দিলেও অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এ ঘটনার ৬ দিন বৃহস্পতিবার পেরিয়ে গেলেও ওই ছাত্রী উদ্ধার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরিবারসহ স্থানীয়রা।

এলাকাবাসী ও অপহৃত স্কুলছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার ফুলবাড়িয়া উত্তরপাড়া এলাকায় গত শনিবার সন্ধ্যায় এ অপহরণের ঘটনা ঘটে। ওই ছাত্রী স্থানীয় একটি মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীতে পড়ে। কিন্তু একই এলাকার আজাহার আলীর ছেলে নয়ন মিয়া (২০) বিভিন্ন সময় রাস্তা-ঘাট ও বিভিন্ন স্থানে তাকে উত্যক্ত করে আসছিল। ওই ছাত্রী বার বার উত্যাক্তের প্রতিবাদ করে এবং বিষয়টি পরিবারের লোকজনকে জানায়।

এতে ওই যুবক দীর্ঘদিন ধরে তার উপর ক্ষিপ্ত ছিল। গত শনিবার সন্ধ্যায় বাড়ীর পাশ রাস্তা থেকে নয়ন ও সৈকত ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপুর্বক মোটরসাইকেলে তোলে ওই ছাত্রীকে অপহরণ করে। এসময় তাদের সাথে আরো কয়েকজন অপহরণে সহযোগীতা করে।

এ ঘটনায় পরের দিন গত রোববার অপহৃত স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নয়ন, সৈকত, আজাহার আলী, খোদেজা বেগম, মোফাজ্জল হোসেন ও তোফাজ্জাল হোসেনের নাম উল্লেখ্য করে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে মোফাজ্জল হোসেনকে আটক করে ফুলবাড়িয়া ক্যাম্পের পুলিশ।

পরে স্বজন প্রভাবশালী মোস্তফা সরকার পুলিশের সাথে আততা করে তার জিম্মায় ছাড়িয়ে নেন। এদিকে ঘটনার ছয় দিন বৃহস্পতিবার পেরিয়ে গেলেও ওই ছাত্রী উদ্ধার না হওয়ায় ও অপহরণের আসামী আটকের পর জিম্মায় ছেড়ে দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরিবারসহ স্থানীয় লোকজন।

অপহৃত ছাত্রীর ক্ষতি হলে তার দায়বার নিতে অস্বীকার করে জিম্মাকারী স্বজন মোস্তফা সরকার বলেন, ওই ছাত্রীকে ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আটককৃত মোফাজ্জলকে ছাড়িয়ে নিয়েছি। অভিযোগের পরের দিন ছাত্রীকে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা থাকলেও এখনো তাকে খোঁজে পাইনি।

তবে আজ যদি ফিরিয়ে দিতে না পারি, তাহলে ওই আসামী মোফাজ্জলকে পুলিশের হাতে তুলে দিবো।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্ত একজনকে জিজ্ঞাবাদের জন্য আনা হয়েছিল। পরে ওই ছাত্রীকে ফিরিয়ে দেয়ার শর্তে জিম্মায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এছাড়া ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

রংপুর পীরগঞ্জের বড় আলমপুর ইউনিয়নের বর্ষপুতিতে কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত

গাজীপুরের অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ

আপডেট টাইম : ০৮:৫০:৫১ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ১৩ আগস্ট ২০২১

গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি।।

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অপহরণের এক আসামীকে আটকের পর জিম্মায় দিলেও অপহৃত ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এ ঘটনার ৬ দিন বৃহস্পতিবার পেরিয়ে গেলেও ওই ছাত্রী উদ্ধার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরিবারসহ স্থানীয়রা।

এলাকাবাসী ও অপহৃত স্কুলছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার ফুলবাড়িয়া উত্তরপাড়া এলাকায় গত শনিবার সন্ধ্যায় এ অপহরণের ঘটনা ঘটে। ওই ছাত্রী স্থানীয় একটি মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীতে পড়ে। কিন্তু একই এলাকার আজাহার আলীর ছেলে নয়ন মিয়া (২০) বিভিন্ন সময় রাস্তা-ঘাট ও বিভিন্ন স্থানে তাকে উত্যক্ত করে আসছিল। ওই ছাত্রী বার বার উত্যাক্তের প্রতিবাদ করে এবং বিষয়টি পরিবারের লোকজনকে জানায়।

এতে ওই যুবক দীর্ঘদিন ধরে তার উপর ক্ষিপ্ত ছিল। গত শনিবার সন্ধ্যায় বাড়ীর পাশ রাস্তা থেকে নয়ন ও সৈকত ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপুর্বক মোটরসাইকেলে তোলে ওই ছাত্রীকে অপহরণ করে। এসময় তাদের সাথে আরো কয়েকজন অপহরণে সহযোগীতা করে।

এ ঘটনায় পরের দিন গত রোববার অপহৃত স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নয়ন, সৈকত, আজাহার আলী, খোদেজা বেগম, মোফাজ্জল হোসেন ও তোফাজ্জাল হোসেনের নাম উল্লেখ্য করে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে মোফাজ্জল হোসেনকে আটক করে ফুলবাড়িয়া ক্যাম্পের পুলিশ।

পরে স্বজন প্রভাবশালী মোস্তফা সরকার পুলিশের সাথে আততা করে তার জিম্মায় ছাড়িয়ে নেন। এদিকে ঘটনার ছয় দিন বৃহস্পতিবার পেরিয়ে গেলেও ওই ছাত্রী উদ্ধার না হওয়ায় ও অপহরণের আসামী আটকের পর জিম্মায় ছেড়ে দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পরিবারসহ স্থানীয় লোকজন।

অপহৃত ছাত্রীর ক্ষতি হলে তার দায়বার নিতে অস্বীকার করে জিম্মাকারী স্বজন মোস্তফা সরকার বলেন, ওই ছাত্রীকে ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আটককৃত মোফাজ্জলকে ছাড়িয়ে নিয়েছি। অভিযোগের পরের দিন ছাত্রীকে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা থাকলেও এখনো তাকে খোঁজে পাইনি।

তবে আজ যদি ফিরিয়ে দিতে না পারি, তাহলে ওই আসামী মোফাজ্জলকে পুলিশের হাতে তুলে দিবো।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্ত একজনকে জিজ্ঞাবাদের জন্য আনা হয়েছিল। পরে ওই ছাত্রীকে ফিরিয়ে দেয়ার শর্তে জিম্মায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এছাড়া ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।