ঢাকা ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
তথ্য প্রকাশ হওয়ার পর রাজস্ব কর্মকর্তার মতিউর রহমানের অবৈধ সম্পদের খোঁজ মিলেছে এবার দুদক ভারতের সঙ্গে সই হতে পারে ১০টির বেশি চুক্তি ও এমওইউ প্রধানমন্ত্রী নয়াদিল্লি যাচ্ছে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংক থেকে বাংলাদেশিদের অর্থ তুলে নেওয়ার হার গত কয়েক বছর ধরে বাড়ছে ভাঙা কালভার্টের সড়কে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত দেশের ক্ষতি চায় বিএনপি’ভারতের সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক সৃষ্টি করে রাশিয়ার দুটি জ্বালানি ডিপোতে ড্রোন হামলায় আগুন যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেনজীর ও আছাদুজ্জামানের সম্পদ নিয়ে এবার মুখ খুললেন বছরে ৯২ হাজার কোটি টাকা পাচার হয়: সাবেক পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী মতিউর রহমান একজন জাতীয় রাজস্ব কর্মকর্তা। বর্তমানে কাস্টমস তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদের পাহাড় রয়েছে

প্রেমের ফাঁদে ফেলে ১১ লাখ টাকা আত্মসাৎ, প্রতারক গ্রেফতার

রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি।।

রাজশাহীর পবা থানা পুলিশের অভিযানে ইমো একাউন্টের মেসেজিংয়ের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া এক প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়েছে। সাইফুল খান শামীম ওরফে জুম্মন খান (৪০) নামের এই অভিযুক্ত ব্যক্তি মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার খাসেরহাটের বজরুসার গ্রামের আজিজুল খাঁন ওরফে আজগর খানের ছেলে। জুম্মন বর্তমানে রাজধানীর মুগদা থানার মুগদাপাড়া ১ নম্বর গলিতে বসবাস করেন। রবিবার গভীর রাতে জুম্মনকে ঢাকার মতিঝিল এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।পবা থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।   

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রতারক জুম্মন নিজেকে আমেরিকা প্রবাসী বলে দাবি করেন। কিন্তু বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে বসবাসে আগ্রহ প্রকাশ করে পবা থানার এক নারীর সঙ্গে ইমো একাউন্টের মেসেজিংয়ের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এরপর জুম্মন ওই নারীকে ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক গত জুন মাসে বিয়ে করেন।প্রেমের সম্পর্ক থাকাকালীন ও বিয়ে পরবর্তী সময়ে আসামী জুম্মন ওই নারীর কাছ থেকে ব্যবসায়িক সমস্যার কথা বলে বিভিন্ন সময়ে ১১ লাখ ৩৯ হাজার ৫০০ টাকা হাতিয়ে নেয়।
ওই নারী জুম্মনের প্রতারণা বুঝতে পেরে পবা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে পবা থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের হয়। মামলাটি দায়েরের পর পরই আরএমপি পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিকের নির্দেশে পবা থানার একটি টিম এসআই শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে আসামিকে মতিঝিল এলাকা থেকে গ্রেফতার করে।
পবা থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি তার নাম-ঠিকানা এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয় স্বীকার করেছেন। সোমবার বিকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

তথ্য প্রকাশ হওয়ার পর রাজস্ব কর্মকর্তার মতিউর রহমানের অবৈধ সম্পদের খোঁজ মিলেছে এবার দুদক

প্রেমের ফাঁদে ফেলে ১১ লাখ টাকা আত্মসাৎ, প্রতারক গ্রেফতার

আপডেট টাইম : ০৪:০৪:৩৩ অপরাহ্ণ, সোমবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২০

রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি।।

রাজশাহীর পবা থানা পুলিশের অভিযানে ইমো একাউন্টের মেসেজিংয়ের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া এক প্রতারককে গ্রেফতার করা হয়েছে। সাইফুল খান শামীম ওরফে জুম্মন খান (৪০) নামের এই অভিযুক্ত ব্যক্তি মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার খাসেরহাটের বজরুসার গ্রামের আজিজুল খাঁন ওরফে আজগর খানের ছেলে। জুম্মন বর্তমানে রাজধানীর মুগদা থানার মুগদাপাড়া ১ নম্বর গলিতে বসবাস করেন। রবিবার গভীর রাতে জুম্মনকে ঢাকার মতিঝিল এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।পবা থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।   

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, প্রতারক জুম্মন নিজেকে আমেরিকা প্রবাসী বলে দাবি করেন। কিন্তু বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে বসবাসে আগ্রহ প্রকাশ করে পবা থানার এক নারীর সঙ্গে ইমো একাউন্টের মেসেজিংয়ের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এরপর জুম্মন ওই নারীকে ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক গত জুন মাসে বিয়ে করেন।প্রেমের সম্পর্ক থাকাকালীন ও বিয়ে পরবর্তী সময়ে আসামী জুম্মন ওই নারীর কাছ থেকে ব্যবসায়িক সমস্যার কথা বলে বিভিন্ন সময়ে ১১ লাখ ৩৯ হাজার ৫০০ টাকা হাতিয়ে নেয়।
ওই নারী জুম্মনের প্রতারণা বুঝতে পেরে পবা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে পবা থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের হয়। মামলাটি দায়েরের পর পরই আরএমপি পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিকের নির্দেশে পবা থানার একটি টিম এসআই শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে আসামিকে মতিঝিল এলাকা থেকে গ্রেফতার করে।
পবা থানার ওসি গোলাম মোস্তফা বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি তার নাম-ঠিকানা এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয় স্বীকার করেছেন। সোমবার বিকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।