ঢাকা ০৮:০২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

সীতাকুন্ডে পুলিশের সহযোগিতায় প্রবাসীর জায়গা দখলের অভিযোগ

চট্টগ্রাম অফিস তৌহিদ ॥

চট্টগ্রামের সীতাকু- পুলিশের সহযোগিতায় এক ভূমিদস্যু জায়গার জালদলিল করে জোরপূর্বক ঘর নির্মাণ করার অভিযোগ সংবাদ সম্মলনে করেছেন প্রবাসী জাহাঙ্গীর আলম।

বধুবার দুপুর সীতাকু- প্রেসক্লাবে প্রবাসী লিখিত বক্তব্যে বলেন,“সে ২০০৭সালে বিদেশে চলে যান। ২০১১সালে এসে উপজেলার বাঁশবাড়িয়া মৌজা বি,এস ৯১১৩দাগে ১.৪০শতক জমি ক্রয় করে গাছপালা লাগান। এরপর ২০১৩ সালে বিদেশে গিয়ে ফের ২০১৬ ফিরে আসি। এরই মধ্যে এক প্রতারকচক্র আব্দুল মালেক গং আমি জাঙ্গগীর আলম নামে এক ব্যক্তি সাজিয়ে আমি বিদেশ থাকাকালীন ২০১৪ সালে অপ্রত্যাহার যোগ্য পাওয়ার অব অ্যার্টনী জাল দলিল সৃজিত করেন। গত বছর করোনাকালী অক্টোবর মাসে বিদেশ থেকে এসে দেখতে পায় আমার জায়গার উপর পাকা ঘর নির্মাণ হচ্ছে। পরে আমি প্রতারকচক্র বিরুদ্ধে মাননীয় অতিরিক্তি চীফ জুড়িশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত মামলা দায়ের করেন। মামলাটি আদালতকতৃক ঈওউ পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন। এইদিকে তার জায়গা উপর ঘর নির্মাণ করার বাধা প্রদান করিলে, তাকে বিভিন্ন ধরনে হুমকি প্রদান করেন।

এই বিষয়েও আমি চট্টগ্রাম মাননীয় অতিরিক্তি ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত, উত্তর মিচ মামলা দায়ের করি। মামলাটি আমলে নিয়ে মাননীয় আদালত সীতাকু- থানা পুলিশ আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। কিন্তু অদৃশ্য কারণে পুলিশ আইন-শৃঙ্গলা বজায় না রেখে প্রতারক চক্রটিকে আমার ক্রয়কৃত জায়গার উপর ঘর নিমার্ণের সুযোগ করে দেন। আমি নিরুপায় হয়ে একজন অসহায় রেমিটেন্স যোদ্ধা (সাংবাদিক)দের লিখনির মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জয়নাল আবেদিন,হোসনে আরা,মাজেদা বেগম,আলমগীর,আনোয়ার আজিজ ও আকরাম হোসেন।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

সীতাকুন্ডে পুলিশের সহযোগিতায় প্রবাসীর জায়গা দখলের অভিযোগ

আপডেট টাইম : ১১:১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ, বুধবার, ২ জুন ২০২১

চট্টগ্রাম অফিস তৌহিদ ॥

চট্টগ্রামের সীতাকু- পুলিশের সহযোগিতায় এক ভূমিদস্যু জায়গার জালদলিল করে জোরপূর্বক ঘর নির্মাণ করার অভিযোগ সংবাদ সম্মলনে করেছেন প্রবাসী জাহাঙ্গীর আলম।

বধুবার দুপুর সীতাকু- প্রেসক্লাবে প্রবাসী লিখিত বক্তব্যে বলেন,“সে ২০০৭সালে বিদেশে চলে যান। ২০১১সালে এসে উপজেলার বাঁশবাড়িয়া মৌজা বি,এস ৯১১৩দাগে ১.৪০শতক জমি ক্রয় করে গাছপালা লাগান। এরপর ২০১৩ সালে বিদেশে গিয়ে ফের ২০১৬ ফিরে আসি। এরই মধ্যে এক প্রতারকচক্র আব্দুল মালেক গং আমি জাঙ্গগীর আলম নামে এক ব্যক্তি সাজিয়ে আমি বিদেশ থাকাকালীন ২০১৪ সালে অপ্রত্যাহার যোগ্য পাওয়ার অব অ্যার্টনী জাল দলিল সৃজিত করেন। গত বছর করোনাকালী অক্টোবর মাসে বিদেশ থেকে এসে দেখতে পায় আমার জায়গার উপর পাকা ঘর নির্মাণ হচ্ছে। পরে আমি প্রতারকচক্র বিরুদ্ধে মাননীয় অতিরিক্তি চীফ জুড়িশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত মামলা দায়ের করেন। মামলাটি আদালতকতৃক ঈওউ পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন। এইদিকে তার জায়গা উপর ঘর নির্মাণ করার বাধা প্রদান করিলে, তাকে বিভিন্ন ধরনে হুমকি প্রদান করেন।

এই বিষয়েও আমি চট্টগ্রাম মাননীয় অতিরিক্তি ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত, উত্তর মিচ মামলা দায়ের করি। মামলাটি আমলে নিয়ে মাননীয় আদালত সীতাকু- থানা পুলিশ আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। কিন্তু অদৃশ্য কারণে পুলিশ আইন-শৃঙ্গলা বজায় না রেখে প্রতারক চক্রটিকে আমার ক্রয়কৃত জায়গার উপর ঘর নিমার্ণের সুযোগ করে দেন। আমি নিরুপায় হয়ে একজন অসহায় রেমিটেন্স যোদ্ধা (সাংবাদিক)দের লিখনির মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জয়নাল আবেদিন,হোসনে আরা,মাজেদা বেগম,আলমগীর,আনোয়ার আজিজ ও আকরাম হোসেন।