ঢাকা ০৯:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান আত্রাইয়ে থানাপুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৫০গ্রাম গাঁজাসহ আটক এক সাভারে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপ-প্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কিশোরের হত্যাকান্ডকে আত্মহত্যা হিসেবে প্রচারণা,করায় মা ও তার, মামা গ্রেফতার গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ২ নং ওয়ার্ডে রাস্তা ঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন নাজিরপুরে হার্ডওয়্যার এর দোকানে বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিটে আগুন পূর্বের বিরোধকে কেন্দ্র করে স্ব মিলে আগুন দেওয়ার অভিযোগ মংলা উপজেলার মিঠু ফকির আর নেই মোংলায় নাসা অ্যাপস চ্যালেঞ্জ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলনেতা সুমিত’র সংবর্ধনা স্বামী ছাড়া পাগলী এখন সন্তানের জননী

বিএসএফ’র ছোড়া ককটেলে এক বাংলাদেশীসহ দুই যুবক আহত

জেলা প্রতিনিধি দিনাজপুর ।।

দিনাজপুরের বিরামপুর সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) এর ছোড়া ককটেলের ছারায় এক ভারতীয় যুবকসহ কাজল হোসেন (২০) এক যুবক ডান চোখ, মুখমন্ডল, বুক, হাত ও পিটে আঁঘাত প্রাপ্তহয়ে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমারজেন্সি বিভাগে ভর্তি হয়েছেন। এ সময় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমারজেন্সি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ককটেলের আঁঘাতে ওই যুবকের আহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আহত যুবক উপজেলার কাটলা ইউনিয়নের দক্ষিণ দাউদপুর গ্রামের ফারুক হোসেনের ছেলে বলে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে।

আহত কাজল জানান, ১২ মে বুধবার সকাল ১১ টায় উপজেলার দাউদপুর সীমান্তের ভারতীয় গবিন্দপুর এলাকায় ভারতীয় মৃত: রফিক মিয়ার ছেলে আসরাফুর ইসলাম ওরফে কালু মিয়া(২৫) এর সাথে কথা বলছিলাম। এ সময় গবিন্দপুর  বলপাড়া বিএসএফ সীমান্ত ফাঁড়ির টহলদল তাদের অনুসরণ করে। বিএসএফ সদস্যদের উপস্থিতি টেরপেয়ে আমরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্ঠা করলে বিএসএফ আমাদের লক্ষকরে ককটেল ছুড়ে মারলে উভয়েই আহত হই।

আহত অবস্থায় বাড়িতে আসলে পরিবারের সদস্যরা তাকে ভ্যানগাড়িতে করে চিকিৎসার জন্য দুপুরে বিরামপুর উপজেলা স্বস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমারজেন্সিতে ভর্তি করিয়ে দেয় বলে কাজলের এক আত্নীয় জানিয়েছেন।

ঘটনার বিষয়ে মোবাইলে খোঁজ খবর নিতে ওই সীমান্তের জনৈক ব্যক্তির নিকট জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিএসএফের ছোড়া ককটেলের আঁঘাতে গুরুতর আহত ভারতীয় হিলি থানার ধলপাড়া অঞ্চলের গবিন্দপুর গ্রামের মৃত: রফিক মিয়ার ছেলে আসরাফুল ইসলাম ওরফে কালু মিয়াকে প্রতিবেশীরা হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। কালু মিয়ার অবস্থা আসংখাজনক বলে তিনি জানিয়েছেন।

২০ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ব্যাটালিয়নের অর্ন্তভুক্ত দাউদপুর সীমান্ত ফাড়ির কমান্ডার নায়েব সুবেদার আফজাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ঘটনার দিন এ বিষয়ে বেলা ১ টার পর ভারতীয় গবিন্দপুর এলাকার একটি ইউক্যালিপর্টআস বাগানে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষীবাহিনী(বিএসএফ) এর সাথে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি’র)  পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বিএসএফ ককটেল ছোড়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

ঘটনার বিষয়ে জানতে ২০ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ব্যাটালিয়নের অধিনায়কের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্ঠা করলে তিনি ফোন রিসিব করেন নাই।।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান

বিএসএফ’র ছোড়া ককটেলে এক বাংলাদেশীসহ দুই যুবক আহত

আপডেট টাইম : ০৩:০৮:১৬ অপরাহ্ণ, বুধবার, ১২ মে ২০২১

জেলা প্রতিনিধি দিনাজপুর ।।

দিনাজপুরের বিরামপুর সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) এর ছোড়া ককটেলের ছারায় এক ভারতীয় যুবকসহ কাজল হোসেন (২০) এক যুবক ডান চোখ, মুখমন্ডল, বুক, হাত ও পিটে আঁঘাত প্রাপ্তহয়ে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমারজেন্সি বিভাগে ভর্তি হয়েছেন। এ সময় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমারজেন্সি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ককটেলের আঁঘাতে ওই যুবকের আহত হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আহত যুবক উপজেলার কাটলা ইউনিয়নের দক্ষিণ দাউদপুর গ্রামের ফারুক হোসেনের ছেলে বলে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে।

আহত কাজল জানান, ১২ মে বুধবার সকাল ১১ টায় উপজেলার দাউদপুর সীমান্তের ভারতীয় গবিন্দপুর এলাকায় ভারতীয় মৃত: রফিক মিয়ার ছেলে আসরাফুর ইসলাম ওরফে কালু মিয়া(২৫) এর সাথে কথা বলছিলাম। এ সময় গবিন্দপুর  বলপাড়া বিএসএফ সীমান্ত ফাঁড়ির টহলদল তাদের অনুসরণ করে। বিএসএফ সদস্যদের উপস্থিতি টেরপেয়ে আমরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্ঠা করলে বিএসএফ আমাদের লক্ষকরে ককটেল ছুড়ে মারলে উভয়েই আহত হই।

আহত অবস্থায় বাড়িতে আসলে পরিবারের সদস্যরা তাকে ভ্যানগাড়িতে করে চিকিৎসার জন্য দুপুরে বিরামপুর উপজেলা স্বস্থ্য কমপ্লেক্সের ইমারজেন্সিতে ভর্তি করিয়ে দেয় বলে কাজলের এক আত্নীয় জানিয়েছেন।

ঘটনার বিষয়ে মোবাইলে খোঁজ খবর নিতে ওই সীমান্তের জনৈক ব্যক্তির নিকট জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিএসএফের ছোড়া ককটেলের আঁঘাতে গুরুতর আহত ভারতীয় হিলি থানার ধলপাড়া অঞ্চলের গবিন্দপুর গ্রামের মৃত: রফিক মিয়ার ছেলে আসরাফুল ইসলাম ওরফে কালু মিয়াকে প্রতিবেশীরা হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। কালু মিয়ার অবস্থা আসংখাজনক বলে তিনি জানিয়েছেন।

২০ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ব্যাটালিয়নের অর্ন্তভুক্ত দাউদপুর সীমান্ত ফাড়ির কমান্ডার নায়েব সুবেদার আফজাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ঘটনার দিন এ বিষয়ে বেলা ১ টার পর ভারতীয় গবিন্দপুর এলাকার একটি ইউক্যালিপর্টআস বাগানে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষীবাহিনী(বিএসএফ) এর সাথে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি’র)  পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বিএসএফ ককটেল ছোড়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

ঘটনার বিষয়ে জানতে ২০ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ব্যাটালিয়নের অধিনায়কের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্ঠা করলে তিনি ফোন রিসিব করেন নাই।।