ঢাকা ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ইপিজেড থানা পুলিশের অভিযানে (৫০)লিটার দেশীয় তৈরী চোলাই মদ সহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার আবারো বাংলাদেশি যুবক আশিকের বিশ্ব রেকর্ড বিমান বাহিনীর নতুন প্রধান হাসান মাহমুদ খাঁন আজ ঘূর্ণিঝড় রেমাল বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে ২৫ লাখ গ্রাহক মোংলায় ঘূর্ণিঝড় রিমেল মোকাবেলায় ব্যাপক কাজ করছে উপজেলা প্রশাসন রায়পুরে সেপটিক ট্যাংকে নেমে আবারও দুই যুবকে মৃত্যু জামালপুরে সবজি চাষে জৈব সার ব্যবহারের উদ্যোগ ঘূর্ণিঝড় রেমাল সতর্কতায় কোস্টগার্ডের মাইকিং টঙ্গীতে রাজনীতির ছত্রছায়ায় ফকির মার্কেটের সুলতানার মাদক ব্যবসা জমজমাট। সবকিছুই জানে, এখনো কেন গ্রেফতার হয়নি, প্রশ্ন আনারকন্যার

টাংগাইলের সখিপুরে স্কুল এবং মাদরাসার ২ শিশুকে এক সাথে ধর্ষণ 

টাংগাইলে  প্রতিনিধি।।

সখীপুরে প্রলোভন দেখিয়ে দুই শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ করেছে শিশু ২জনের অভিভাবক। 

অভিযুক্ত হায়দার আলী (৪৮) উপজেলার দামিয়া এলাকার মৃত আবদুল কদ্দুস মিয়ার ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে কচুয়া বাজারের দক্ষিণ পাশে মনোহারী দোকান করে আসছিল। এ ঘটনায় গত সোমবার বিকালে ধর্ষণের শিকার এক শিশুর বাবা বাদী হয়ে সখীপুর থানায় মামলা করেছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সখীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ওসমান গনি জানান, ব্যবসায়ী হায়দার আলী প্রতিবেশী দুই শিশুকে দোকানের মুখরোচক খাবার দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ফুঁসলিয়ে তার নিজ ঘরে ডেকে নেয়। সেখানে প্রথমে শিশু দু’টিকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ আনা হয়েছে।
পরে একাধিকবার ধর্ষণের চেষ্টা করলে শিশু দুজন অভিভাবকদের বিষয়টি জানায়। শিশুদের একজনের বয়স ৯ বছর। সে স্থানীয় একটি কিণ্ডারগার্টেনের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। অপর শিশুর বয়স ৬ বছর। সে স্থানীয় একটি মাদ্রায় পড়াশুনা করে। তারা দুজনেই খেলার সাথী। শিশুরা অভিযুক্ত ধর্ষক হায়দার আলীর প্রতিবেশী হওয়ায় বিভিন্ন সময় দোকানে মুখরোচক খাবার কিনতে যেতেন। এ সুযোগে শিশুদের নানা প্রলোভন দেখাতেন অভিযুক্ত দোকানি হায়দার আলী।

সখীপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই বদিউজ্জামান বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। শিশু দু’টিকে ডাক্তারি পরীক্ষা জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে ওই দুই শিশু অভিভাবকদের হেফাজতে রয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত হায়দার আলীকে গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা করছে।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ইপিজেড থানা পুলিশের অভিযানে (৫০)লিটার দেশীয় তৈরী চোলাই মদ সহ একজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

টাংগাইলের সখিপুরে স্কুল এবং মাদরাসার ২ শিশুকে এক সাথে ধর্ষণ 

আপডেট টাইম : ০৬:৩৫:০৩ অপরাহ্ণ, শুক্রবার, ৫ মার্চ ২০২১

টাংগাইলে  প্রতিনিধি।।

সখীপুরে প্রলোভন দেখিয়ে দুই শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ করেছে শিশু ২জনের অভিভাবক। 

অভিযুক্ত হায়দার আলী (৪৮) উপজেলার দামিয়া এলাকার মৃত আবদুল কদ্দুস মিয়ার ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে কচুয়া বাজারের দক্ষিণ পাশে মনোহারী দোকান করে আসছিল। এ ঘটনায় গত সোমবার বিকালে ধর্ষণের শিকার এক শিশুর বাবা বাদী হয়ে সখীপুর থানায় মামলা করেছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সখীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ওসমান গনি জানান, ব্যবসায়ী হায়দার আলী প্রতিবেশী দুই শিশুকে দোকানের মুখরোচক খাবার দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ফুঁসলিয়ে তার নিজ ঘরে ডেকে নেয়। সেখানে প্রথমে শিশু দু’টিকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ আনা হয়েছে।
পরে একাধিকবার ধর্ষণের চেষ্টা করলে শিশু দুজন অভিভাবকদের বিষয়টি জানায়। শিশুদের একজনের বয়স ৯ বছর। সে স্থানীয় একটি কিণ্ডারগার্টেনের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। অপর শিশুর বয়স ৬ বছর। সে স্থানীয় একটি মাদ্রায় পড়াশুনা করে। তারা দুজনেই খেলার সাথী। শিশুরা অভিযুক্ত ধর্ষক হায়দার আলীর প্রতিবেশী হওয়ায় বিভিন্ন সময় দোকানে মুখরোচক খাবার কিনতে যেতেন। এ সুযোগে শিশুদের নানা প্রলোভন দেখাতেন অভিযুক্ত দোকানি হায়দার আলী।

সখীপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই বদিউজ্জামান বলেন, ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। শিশু দু’টিকে ডাক্তারি পরীক্ষা জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে ওই দুই শিশু অভিভাবকদের হেফাজতে রয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত হায়দার আলীকে গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা করছে।