ঢাকা ০১:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ইসরাইলের বাধা, কুরবানি দিতে পারেননি গাজাবাসীর অনেকেই দলীয় নেতাদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করলেন প্রধানমন্ত্রী কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসে মালগাড়ির ধাক্কা, নিহত ৫ জাতীয় ঈদগাহে ঈদের প্রধান জামাতে অংশ নেন হাজারো তাসলিমা স্ত্রীর বিরুদ্ধে লিঙ্গ কাটার অভিযোগে সাংবাদিক সম্মেলন ঈদ উপলক্ষ্যে ঘরমুখী মানুষ ঝুঁকি নিয়ে পিকআপ ট্রাক ও বাসের ছাদে ঢাকা মহানগর পুলিশের দুই কর্মকর্তা বদলি গতকাল শুক্রবার বিকেল চারটায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন আহমেদের গাড়ি্ বহরে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে বিএমপি কাউনিয়া থানার অভিযানে ০৫ কেজি গাঁজাসহ আটক ০১ জন লাব্বাঈক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’এই ধনীতে প্রকম্পিত আরাফাতের ময়দান

সাংবাদিক শাকিল আহমেদ এর বাড়িতে ঢুকে পরিবারের স্বজনদের উপর সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনায় দুই জন   গ্রেপ্তার  ।

আবদুল্লাহ আল সুমন বিশেষ প্রতিনিধি।।

ঠাকুরগাঁও রোববার রাতে শহরের বিসিক শিল্প নগরী এলাকা থেকে একজনকে ও সোমবার সকালে সদর হাসপাতালের সামনে থেকে আরেক জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, শহরের কলেজপাড়া (আদম নগর) এলাকার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে বুলবুল ওরফে বুলু (৪৮) ও তার ছোট ভাই রুবেল (২৪)।

মামলার বিবরণে বলা হয়, গত ২৩ ফেব্রয়ারি বিকেলে শহরের কলেজপাড়া (আদম নগর) এলাকায় সাংবাদিক শাকিল আহমেদ এর বাড়ির পাশে টাঙ্গন নদীর ধারে একটি বড়ই গাছে বড়ই পাড়তে যায় তার চাচাতো ভাই শিশু আবিদ (১০)। এসময় প্রতিবেশী রেজাউল, রইসুল সহ তার ভায়েরা শিশু আবিদকে চরথাপ্পর দেয়।

 

খবর পেয়ে সাংবাদিক শাকিল তাৎক্ষনিক বাড়িতে এসে পরিবারের সদস্যদের সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে শুরু করে। এসময় রেজাউল, রইসুল, বুলবুল ওরফে বুলু সহ তার ৮ ভাই ও বেশকিছু সন্ত্রাসী ধারালো দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সাংবাদিক শাকিলের বাড়িতে ঢুকে তার উপর অতর্কিতভাবে হামলা করে। এসময় সাংবাদিক শাকিলকে বাচাঁতে এগিয়ে আসলে তার বাবা আদম আলী, মা শাকিলা আক্তার, বড় চাচা আলম আলী ও চাচাতো ভাই লাবুকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে রেজাউল, রইসুল, বুলু সহ তার ৮ ভাই ও বেশকিছু সন্ত্রাসী।

 

পরে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে রেজাউল, রইসুল, বুলু সহ তার ৮ ভাই ও বেশকিছু সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায় এবং পরে স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় আহতদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। আহতদের মধ্যে আলম আলীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে কর্তব্যরত চিকৎসক তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে।

 

এ ঘটনায় পরদিন ২৪ ফেব্রয়ারি সাংবাদিক শাকিল আহমেদ বাদী হয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় ৮ জনের নাম উল্লেখ করে ও ৭ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়।ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তানভিরুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত এ মামলায় ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তার করার জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সেই সাথে মামলার তদন্ত চলছে।

 

সাংবাদিক শাকিল আহমেদ বলেন, পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে রেজাউল, রইসুল, বুলু সহ তার ৮ ভাই ও বেশকিছু সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমার ও আমার পরিবারের উপর হামলা করেছে। এতে আমার বাবা, মা, চাচা ও চাচাতো ভাই গুরুতর ভাবে আহত হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ইসরাইলের বাধা, কুরবানি দিতে পারেননি গাজাবাসীর অনেকেই

সাংবাদিক শাকিল আহমেদ এর বাড়িতে ঢুকে পরিবারের স্বজনদের উপর সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনায় দুই জন   গ্রেপ্তার  ।

আপডেট টাইম : ১২:২০:০৬ অপরাহ্ণ, সোমবার, ১ মার্চ ২০২১

আবদুল্লাহ আল সুমন বিশেষ প্রতিনিধি।।

ঠাকুরগাঁও রোববার রাতে শহরের বিসিক শিল্প নগরী এলাকা থেকে একজনকে ও সোমবার সকালে সদর হাসপাতালের সামনে থেকে আরেক জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, শহরের কলেজপাড়া (আদম নগর) এলাকার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে বুলবুল ওরফে বুলু (৪৮) ও তার ছোট ভাই রুবেল (২৪)।

মামলার বিবরণে বলা হয়, গত ২৩ ফেব্রয়ারি বিকেলে শহরের কলেজপাড়া (আদম নগর) এলাকায় সাংবাদিক শাকিল আহমেদ এর বাড়ির পাশে টাঙ্গন নদীর ধারে একটি বড়ই গাছে বড়ই পাড়তে যায় তার চাচাতো ভাই শিশু আবিদ (১০)। এসময় প্রতিবেশী রেজাউল, রইসুল সহ তার ভায়েরা শিশু আবিদকে চরথাপ্পর দেয়।

 

খবর পেয়ে সাংবাদিক শাকিল তাৎক্ষনিক বাড়িতে এসে পরিবারের সদস্যদের সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে শুরু করে। এসময় রেজাউল, রইসুল, বুলবুল ওরফে বুলু সহ তার ৮ ভাই ও বেশকিছু সন্ত্রাসী ধারালো দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সাংবাদিক শাকিলের বাড়িতে ঢুকে তার উপর অতর্কিতভাবে হামলা করে। এসময় সাংবাদিক শাকিলকে বাচাঁতে এগিয়ে আসলে তার বাবা আদম আলী, মা শাকিলা আক্তার, বড় চাচা আলম আলী ও চাচাতো ভাই লাবুকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে রেজাউল, রইসুল, বুলু সহ তার ৮ ভাই ও বেশকিছু সন্ত্রাসী।

 

পরে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসলে রেজাউল, রইসুল, বুলু সহ তার ৮ ভাই ও বেশকিছু সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায় এবং পরে স্থানীয়রা রক্তাক্ত অবস্থায় আহতদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। আহতদের মধ্যে আলম আলীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে কর্তব্যরত চিকৎসক তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে।

 

এ ঘটনায় পরদিন ২৪ ফেব্রয়ারি সাংবাদিক শাকিল আহমেদ বাদী হয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় ৮ জনের নাম উল্লেখ করে ও ৭ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়।ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তানভিরুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত এ মামলায় ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তার করার জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সেই সাথে মামলার তদন্ত চলছে।

 

সাংবাদিক শাকিল আহমেদ বলেন, পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে রেজাউল, রইসুল, বুলু সহ তার ৮ ভাই ও বেশকিছু সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমার ও আমার পরিবারের উপর হামলা করেছে। এতে আমার বাবা, মা, চাচা ও চাচাতো ভাই গুরুতর ভাবে আহত হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।