ঢাকা ০৫:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
বোরো মৌসুমে জামালপুরে চালের বাজার চড়া দ্বিতীয় ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: বৈদ্যুতিক বাল্ব মার্কার প্রচারণায় গণমানুষের ঢল বাড়ির উঠানে ধান শুকানোর সময় বজ্রপাতে গৃহবধূর মৃত্যু পটুয়াখালী আমখোলা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম দুর্নীতি অভিযোগ রাজধানীর কালশীতে ট্রাফিক পুলিশের বক্সে আগুন দিয়েছে আন্দোলনরত অটোরিকশা চালকরা জামালপুরে পাট চাষে হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নতুন পরিবেশবান্ধব আসবাবপত্র তৈরি হচ্ছে পরিত্যক্ত সুপারির খোলসে পার্বতীপুরে সেচ মৌসুম গভীর নলকূপের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন, বিপাকে কৃষকরা মোংলায় ফ্যামিলি সাইকেল র‍্যালি নরসিংদীতে বজ্রপাতের পৃথক ঘটনায় মা-ছেলেসহ ৪ জনের মৃত্যু

বগুড়ায় ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের ধাওয়া পাল্টাধাওয়া

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৮:১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ, রবিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১
  • ২৩৫ ০.০০০ বার পাঠক

বগুড়ায়,জেলা,প্রতিনিধি।

বগুড়ায় শহীদ মিনারে ফুল দেওয়া নিয়ে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ছাত্রদলের চারজন কর্মী আহত হয়েছেন। ২১ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টার দিকে বগুড়া শহরের শহীদ খোকন পার্কে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সকাল ৮টার আগে শহীদ মিনারে বিএনপির নেতাদের শ্রদ্ধা নিবেদন করার কথা থাকলেও তারা সঠিক সময়ের পর আসেন। এ সময় জেলা বিএনপির আহ্বায়ক সদরের আসনের এমপি জিএম সিরাজের নেতৃত্বে বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ফুল দিতে আসেন।

এর আগে সকাল ৮টায় বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু ও সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপুর নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে খোকন শিশু উদ্যানে অবস্থান নেন। জেলা ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে থাকে, স্লোগান দেওয়ার একপর্যায়ে হট্টগোলের সৃষ্টি হয়। পরে উভয়পক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম রিগ্যান ঢাকা পোস্টকে জানান, আমরা শান্তিপূর্ণভাবে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যাই। এ সময় সরকারদলীয় সমর্থকরা স্লোগান দিতে দিতে ধাওয়া করে নবাববাড়ি সড়কে ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মারপিট করে। মারপিটে ছাত্রদলের ৪ জন আহত। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।এদিকে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাস জানান, শহীদ মিনারে জেলা বিএনপি ফুল দিতে এসে হট্টগোলের চেষ্টা করে। এ সময় জেলা ছাত্রলীগের নেতারা তা প্রতিহত করে।

বগুড়া সদর ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) খোরশেদ বলেন, শহীদ মিনারে ফুল দেওয়ার পর ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মাঝে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় এমপি জিএম সিরাজকে সদর ফাঁড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় নিরাপত্তার জন্য। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। বর্তমানে শহীদ মিনার এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বগুড়া সদর আসনের এমপি জিএম সিরাজের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

বোরো মৌসুমে জামালপুরে চালের বাজার চড়া

বগুড়ায় ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের ধাওয়া পাল্টাধাওয়া

আপডেট টাইম : ০৮:১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ, রবিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১

বগুড়ায়,জেলা,প্রতিনিধি।

বগুড়ায় শহীদ মিনারে ফুল দেওয়া নিয়ে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ছাত্রদলের চারজন কর্মী আহত হয়েছেন। ২১ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯টার দিকে বগুড়া শহরের শহীদ খোকন পার্কে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সকাল ৮টার আগে শহীদ মিনারে বিএনপির নেতাদের শ্রদ্ধা নিবেদন করার কথা থাকলেও তারা সঠিক সময়ের পর আসেন। এ সময় জেলা বিএনপির আহ্বায়ক সদরের আসনের এমপি জিএম সিরাজের নেতৃত্বে বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা ফুল দিতে আসেন।

এর আগে সকাল ৮টায় বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু ও সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপুর নেতৃত্বে জেলা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এ সময় জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে খোকন শিশু উদ্যানে অবস্থান নেন। জেলা ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে থাকে, স্লোগান দেওয়ার একপর্যায়ে হট্টগোলের সৃষ্টি হয়। পরে উভয়পক্ষের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম রিগ্যান ঢাকা পোস্টকে জানান, আমরা শান্তিপূর্ণভাবে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যাই। এ সময় সরকারদলীয় সমর্থকরা স্লোগান দিতে দিতে ধাওয়া করে নবাববাড়ি সড়কে ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মারপিট করে। মারপিটে ছাত্রদলের ৪ জন আহত। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।এদিকে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাস জানান, শহীদ মিনারে জেলা বিএনপি ফুল দিতে এসে হট্টগোলের চেষ্টা করে। এ সময় জেলা ছাত্রলীগের নেতারা তা প্রতিহত করে।

বগুড়া সদর ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) খোরশেদ বলেন, শহীদ মিনারে ফুল দেওয়ার পর ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মাঝে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় এমপি জিএম সিরাজকে সদর ফাঁড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় নিরাপত্তার জন্য। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। বর্তমানে শহীদ মিনার এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বগুড়া সদর আসনের এমপি জিএম সিরাজের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।