ঢাকা ০৬:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সন্ত্রাসবাদবিরোধী সতর্কতা জারি

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৫:৩৩:১৩ পূর্বাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১
  • ২৩৫ ০.০০০ বার পাঠক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক থেকে।।

 জো বাইডেনকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে মেনে নিতে না পারা সরকারবিরোধী চরমপন্থিদের সম্ভাব্য হুমকির কথা উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ দেশজুড়ে সন্ত্রাসবিরোধী সতর্কতা জারি করেছে।

বুধবার এ সতর্কর্তা জারি করে দেশটির নিরাপত্তা প্রধানরা বলেছেন, নবেম্বরের নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে অসন্তুষ্ট লোকদের মধ্য থেকে অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদের উচ্চ ঝুঁকি আছে।

হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ বলেছে, ৬ জানুয়ারি মার্কিন ক্যাপিটলে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলা কিছু চরমপন্থিকে সাহসী করে তুলতে পারে।

‘সরকারি কর্তৃপক্ষগুলোর কার্যক্রম নিয়ে হতাশ ব্যক্তিদের’ থেকে হুমকি আসতে পারে বলে এক ঘোষণায় সতর্ক করেছে তারা। তবে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো ‘চক্রান্তের’ তথ্য পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে।

নির্বাচনে জো বাইডেনের জয়ের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিতে কংগ্রেসের বৈঠক চলাকালে মার্কিন ক্যাপিটল ভবনে হামলা চালানো হয়েছিল। এর আগে হোয়াইট হাউসের সামনে নিজের কয়েক হাজার সমর্থকের উপস্থিতিতে দেওয়া ভাষণে ট্রাম্প, তার কাছ থেকে নির্বাচন চুরি করে নেওয়া হয়েছে বলে ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলেছিলেন।

সমর্থকদের তিনি বলেন, “তোমরা যদি প্রাণপণ লড়াই না কর তাহলে তোমাদের আর কোনো দেশ থাকবে না।”

এরপর তার একদল সমর্থক ক্যাপিটলের দিকে মিছিল নিয়ে গিয়ে নিরাপত্তারক্ষীদের বাধা তুচ্ছ করে ভবনটিতে হামলা চালায়। এই দাঙ্গায় ক্যাপিটলের এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ পাঁচ জন নিহত হন।

এ হামলায় উস্কানি দেওয়ার জন্য মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ ট্রাম্পকে অভিশংসিত করেছে। আগামী মাসে উচ্চকক্ষ সেনেটে তার বিচার হওয়ার কথা রয়েছে।

ঘোষণায় হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ বলেছে, ‘সফলভাবে প্রেসিডেন্টের অভিষেক শেষ হওয়ার পরবর্তী সপ্তাহগুলোতে’ উচ্চতর হুমকি অব্যাহত থাকবে বলে তাদের বিশ্বাস।

“বিভিন্ন তথ্যে ধারণা পাওয়া যাচ্ছে, ক্ষমতা হস্তান্তর ও সরকারি কর্তৃপক্ষের কার্যক্রম নিয়ে আপত্তি থাকা আদর্শিকভাবে অনুপ্রাণিত সহিংস চরমপন্থিরা ও মিথ্যা বর্ণনায় বিভ্রান্ত লোকজন একত্রিত হয়ে সহিংসতা চালাতে বা উস্কানি দেওয়ার চেষ্টা করতে পারে,” বলেছে তারা।

ক্যাপিটল ভবনে ঢুকে সহিংসতা চালানোর পর এ থেকে উৎসাহিত হয়ে কিছু ‘অভ্যন্তরীণ সহিংস চরমপন্থি নির্বাচিত কর্মকর্তাদের ও সরকারি স্থাপনাগুলোকে’ লক্ষ্যস্থল করতে পারে বলে এতে সতর্ক করা হয়েছে।

প্রায় এক বছরের মধ্যে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ এই প্রথম এ ধরনের সতর্কতা জারি করল বলে বিবিসি জানিয়েছে।

ক্যাপিটলে হামলার ঘটনা পুরো যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ধাক্কা হয়ে দেখা দেয় আর কর্তৃপক্ষ দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে দায়ীদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করা শুরু করে।

তারপর থেকে ওই ঘটনায় জড়িত বলে সন্দেহভাজন ৪০০ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে এবং সহিংসতায় জড়িত থাকার অভিযোগে ১৩৫ জনকে গ্রেফতার করেছে।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

পাকুন্দিয়ায় পুলিশের অভিজানে চোরাই মোটরসাইকেল সহ ১ জন আটক

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সন্ত্রাসবাদবিরোধী সতর্কতা জারি

আপডেট টাইম : ০৫:৩৩:১৩ পূর্বাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক থেকে।।

 জো বাইডেনকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে মেনে নিতে না পারা সরকারবিরোধী চরমপন্থিদের সম্ভাব্য হুমকির কথা উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ দেশজুড়ে সন্ত্রাসবিরোধী সতর্কতা জারি করেছে।

বুধবার এ সতর্কর্তা জারি করে দেশটির নিরাপত্তা প্রধানরা বলেছেন, নবেম্বরের নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে অসন্তুষ্ট লোকদের মধ্য থেকে অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদের উচ্চ ঝুঁকি আছে।

হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ বলেছে, ৬ জানুয়ারি মার্কিন ক্যাপিটলে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলা কিছু চরমপন্থিকে সাহসী করে তুলতে পারে।

‘সরকারি কর্তৃপক্ষগুলোর কার্যক্রম নিয়ে হতাশ ব্যক্তিদের’ থেকে হুমকি আসতে পারে বলে এক ঘোষণায় সতর্ক করেছে তারা। তবে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো ‘চক্রান্তের’ তথ্য পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে।

নির্বাচনে জো বাইডেনের জয়ের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিতে কংগ্রেসের বৈঠক চলাকালে মার্কিন ক্যাপিটল ভবনে হামলা চালানো হয়েছিল। এর আগে হোয়াইট হাউসের সামনে নিজের কয়েক হাজার সমর্থকের উপস্থিতিতে দেওয়া ভাষণে ট্রাম্প, তার কাছ থেকে নির্বাচন চুরি করে নেওয়া হয়েছে বলে ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলেছিলেন।

সমর্থকদের তিনি বলেন, “তোমরা যদি প্রাণপণ লড়াই না কর তাহলে তোমাদের আর কোনো দেশ থাকবে না।”

এরপর তার একদল সমর্থক ক্যাপিটলের দিকে মিছিল নিয়ে গিয়ে নিরাপত্তারক্ষীদের বাধা তুচ্ছ করে ভবনটিতে হামলা চালায়। এই দাঙ্গায় ক্যাপিটলের এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ পাঁচ জন নিহত হন।

এ হামলায় উস্কানি দেওয়ার জন্য মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ ট্রাম্পকে অভিশংসিত করেছে। আগামী মাসে উচ্চকক্ষ সেনেটে তার বিচার হওয়ার কথা রয়েছে।

ঘোষণায় হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ বলেছে, ‘সফলভাবে প্রেসিডেন্টের অভিষেক শেষ হওয়ার পরবর্তী সপ্তাহগুলোতে’ উচ্চতর হুমকি অব্যাহত থাকবে বলে তাদের বিশ্বাস।

“বিভিন্ন তথ্যে ধারণা পাওয়া যাচ্ছে, ক্ষমতা হস্তান্তর ও সরকারি কর্তৃপক্ষের কার্যক্রম নিয়ে আপত্তি থাকা আদর্শিকভাবে অনুপ্রাণিত সহিংস চরমপন্থিরা ও মিথ্যা বর্ণনায় বিভ্রান্ত লোকজন একত্রিত হয়ে সহিংসতা চালাতে বা উস্কানি দেওয়ার চেষ্টা করতে পারে,” বলেছে তারা।

ক্যাপিটল ভবনে ঢুকে সহিংসতা চালানোর পর এ থেকে উৎসাহিত হয়ে কিছু ‘অভ্যন্তরীণ সহিংস চরমপন্থি নির্বাচিত কর্মকর্তাদের ও সরকারি স্থাপনাগুলোকে’ লক্ষ্যস্থল করতে পারে বলে এতে সতর্ক করা হয়েছে।

প্রায় এক বছরের মধ্যে হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ এই প্রথম এ ধরনের সতর্কতা জারি করল বলে বিবিসি জানিয়েছে।

ক্যাপিটলে হামলার ঘটনা পুরো যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ধাক্কা হয়ে দেখা দেয় আর কর্তৃপক্ষ দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে দায়ীদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করা শুরু করে।

তারপর থেকে ওই ঘটনায় জড়িত বলে সন্দেহভাজন ৪০০ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে এবং সহিংসতায় জড়িত থাকার অভিযোগে ১৩৫ জনকে গ্রেফতার করেছে।