ঢাকা ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা যাবে মোবাইলে: মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ১১:৫৬:২৮ পূর্বাহ্ণ, সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১
  • ২৯৫ ০.০০০ বার পাঠক

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের সব সেবা ডিজিটালাইজড করা হচ্ছে। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতাও এখন মোবাইলে পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

Nogod

সোমবার সকালে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘সেবা সপ্তাহ ২০২১’ উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সামনের সড়কে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আরও পড়ুন: করোনা ভাইরাসে আরও ১৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬৯৭

Ad by Valueimpression

মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী বলেন, ২৬ মার্চের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রণয়ন করা হবে। ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে তৈরি হবে খসড়া তালিকা। নতুন তালিকায় সব মিলিয়ে মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ২ লাখের বেশি হবে না। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন পাসের পর রাজাকারের তালিকা প্রণয়ন করা হবে। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সহায়তা দেওয়া ব্যক্তিদের তালিকা করার কথা ভাবছে সরকার।

এ সময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষসহ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল এবং মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং বীর মুক্তিযোদ্ধারা উপস্থিত ছিলেন।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

পাকুন্দিয়ায় পুলিশের অভিজানে চোরাই মোটরসাইকেল সহ ১ জন আটক

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা যাবে মোবাইলে: মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী

আপডেট টাইম : ১১:৫৬:২৮ পূর্বাহ্ণ, সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের সব সেবা ডিজিটালাইজড করা হচ্ছে। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতাও এখন মোবাইলে পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

Nogod

সোমবার সকালে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘সেবা সপ্তাহ ২০২১’ উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সামনের সড়কে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আরও পড়ুন: করোনা ভাইরাসে আরও ১৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬৯৭

Ad by Valueimpression

মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী বলেন, ২৬ মার্চের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রণয়ন করা হবে। ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে তৈরি হবে খসড়া তালিকা। নতুন তালিকায় সব মিলিয়ে মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ২ লাখের বেশি হবে না। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন পাসের পর রাজাকারের তালিকা প্রণয়ন করা হবে। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সহায়তা দেওয়া ব্যক্তিদের তালিকা করার কথা ভাবছে সরকার।

এ সময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষসহ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল এবং মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং বীর মুক্তিযোদ্ধারা উপস্থিত ছিলেন।