ঢাকা ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ইংল্যান্ড বিএনপি’র সভাপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পিসা বিএনপি’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পারভেজ মোশারফ কোস্টগার্ড কর্তৃক বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান কিশোরগঞ্জে দৈনিক নাগরিক ভাবনার ৪র্থ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত যুব উন্নয়ন থেকে দর্জি বিজ্ঞান প্রশিক্ষণ নিয়ে জামালপুরের যুব মহিলারা আত্ম নির্ভরশীল এমপি হবার শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রতিপাদ্য নিয়ে ময়মনসিংহ রেলওয়ে ষ্টেশনে চাঞ্চল্যকর খুনের প্রধান আসামী মোহাম্মদ আলী গ্রেফতার ইপিজেড থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে(দুইশত চার) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ এক মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার পাকুন্দিয়ায় ৬ষ্ট বার্ষিকী ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্টিত টঙ্গীতে কিশোর গ্যাং লিডার মাইদুল গ্রেফতার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অস্ট্রিয়াতে দুই বাংলাদেশী প্রবাসীর মধ্যে মারামারি গ্রেফতার এক

জগন্নাথপুরে শিক্ষকের শারীরিক নির্যাতনের শিকার মাদ্রাসা শিক্ষার্থী এলাকায় ক্ষোভ

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০২:৩০:৩৯ অপরাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১
  • ২৬২ ০.০০০ বার পাঠক

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি।।

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার ৬ নং রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের কুবাজপুর শাহজালাল (রঃ) সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক নিজাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ছাত্র নির্যাতন, ক্ষমতার অপব্যবহার, অশালিন আচরণ সহ প্রাণনাশের হুমকি প্রদানের অভিযোগে পাওয়া গেছে।
এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগে জানাযায়, ইউনিয়নের কুবাজপুর গ্রামের রানা মিয়ার ছেলে কুবাজপুর শাহজালাল (রঃ) সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী হিফজুর রহমানকে প্রাইভেট না পড়ায় গত ২২ নভেম্বর ক্লাস রোমে বেত দিয়ে আঘাত করে শারীরিক নির্যাতন করেন মাদ্রাসা শিক্ষক নিজাম উদ্দিন। তার পাশবিক ও শারিরীক নির্যাতনের বিষয়ে জানাজানি হয়ে গেলে এলাকায় ক্ষোভের সঞ্চার হয়। একপর্যায়ে বিষয়টি সুরাহা না হওয়ায় তার পিতা রানা মিয়া গত ২৩ নভেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এব্যপারে ছাত্র হিফজুর রহমান কান্নাজড়িত কন্ঠে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন আমি কৃষক পরিবারের ছেলে । স্যার (নিজাম উদ্দিন) আমাকে গণিত পড়ার জন্য চাপসৃষ্টি করেন। প্রাইভেট পড়ার ক্ষমতা আমার নেই বললে তিনি আমাকে বেত দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে আহত করেন। তিনির নিকট শিক্ষার্থীরা জিম্মি হয়ে অনেকেই প্রাইভেট পড়েন। তিনি মাদ্রাসার শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করেছেন। তার কারণে অনেকের শিক্ষা জীবন অনিশ্চিত।
দুস্তপুর গ্রামের আরেক শিক্ষার্থী শিহাবুর রহমান একই অভিযোগ করে বলেন তিনি আমার স্যার কিন্তু উনি যা করেন তা বলতে আমার লজ্জা হচ্ছে। তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করে মাদ্রাসায় অনিয়মকে নিয়মে পরিনত করেছেন। তার কাছে প্রাইভেট না পড়লে মার্ক কম দেয়ার হুমকি দেন, আবার মার্ক বাড়িয়ে দেয়ার নামে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হন। তার এহেন কর্মকান্ডের কারণে অনেক শিক্ষার্থী মাদ্রাসা থেকে বেড়িয়ে গেছে।
এদিকে অফিস সহায়ক থেকে গণিতের শিক্ষক হওয়া নিজাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে এলাকাবাসী, মাদ্রাসার সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা নানা অভিযোগ তুলেছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাজেদুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এ কে মুখলেছুর রহমান বলেন একটি অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (স্যার) বরাবরে দাখিল করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্তের জন্য আমাকে বলা হয়েছে । তদন্ত ও পর্যালোচনাক্রমে প্রতিবেদন দেয়া হবে।
কুবাজপুর শাহজালাল (রঃ) সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসা নির্বাহী কমিটির সভাপতি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম রানা বলেন ছাত্র নির্যাতনের ঘটনা আমাদের কেউ জানায়নি। শুনেছি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে অভিযোগ দেয়া হয়েছে। ঘটনায় যেই জড়িত থাকুক অবশ্যই তদন্তে সত্যতা প্রকাশ পাইবে।
অভিযুক্ত শিক্ষক নিজাম উদ্দিন বলেন আমার কিছু বলার নেই। আমি কি বলবো, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়া হয়েছে ঠিক, তবে সবগুলো সঠিক নয়।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

ইংল্যান্ড বিএনপি’র সভাপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন পিসা বিএনপি’র আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পারভেজ মোশারফ

জগন্নাথপুরে শিক্ষকের শারীরিক নির্যাতনের শিকার মাদ্রাসা শিক্ষার্থী এলাকায় ক্ষোভ

আপডেট টাইম : ০২:৩০:৩৯ অপরাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি।।

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার ৬ নং রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের কুবাজপুর শাহজালাল (রঃ) সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক নিজাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ছাত্র নির্যাতন, ক্ষমতার অপব্যবহার, অশালিন আচরণ সহ প্রাণনাশের হুমকি প্রদানের অভিযোগে পাওয়া গেছে।
এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগে জানাযায়, ইউনিয়নের কুবাজপুর গ্রামের রানা মিয়ার ছেলে কুবাজপুর শাহজালাল (রঃ) সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী হিফজুর রহমানকে প্রাইভেট না পড়ায় গত ২২ নভেম্বর ক্লাস রোমে বেত দিয়ে আঘাত করে শারীরিক নির্যাতন করেন মাদ্রাসা শিক্ষক নিজাম উদ্দিন। তার পাশবিক ও শারিরীক নির্যাতনের বিষয়ে জানাজানি হয়ে গেলে এলাকায় ক্ষোভের সঞ্চার হয়। একপর্যায়ে বিষয়টি সুরাহা না হওয়ায় তার পিতা রানা মিয়া গত ২৩ নভেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এব্যপারে ছাত্র হিফজুর রহমান কান্নাজড়িত কন্ঠে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন আমি কৃষক পরিবারের ছেলে । স্যার (নিজাম উদ্দিন) আমাকে গণিত পড়ার জন্য চাপসৃষ্টি করেন। প্রাইভেট পড়ার ক্ষমতা আমার নেই বললে তিনি আমাকে বেত দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে আহত করেন। তিনির নিকট শিক্ষার্থীরা জিম্মি হয়ে অনেকেই প্রাইভেট পড়েন। তিনি মাদ্রাসার শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করেছেন। তার কারণে অনেকের শিক্ষা জীবন অনিশ্চিত।
দুস্তপুর গ্রামের আরেক শিক্ষার্থী শিহাবুর রহমান একই অভিযোগ করে বলেন তিনি আমার স্যার কিন্তু উনি যা করেন তা বলতে আমার লজ্জা হচ্ছে। তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করে মাদ্রাসায় অনিয়মকে নিয়মে পরিনত করেছেন। তার কাছে প্রাইভেট না পড়লে মার্ক কম দেয়ার হুমকি দেন, আবার মার্ক বাড়িয়ে দেয়ার নামে অনৈতিক কাজে লিপ্ত হন। তার এহেন কর্মকান্ডের কারণে অনেক শিক্ষার্থী মাদ্রাসা থেকে বেড়িয়ে গেছে।
এদিকে অফিস সহায়ক থেকে গণিতের শিক্ষক হওয়া নিজাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে এলাকাবাসী, মাদ্রাসার সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা নানা অভিযোগ তুলেছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাজেদুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এ কে মুখলেছুর রহমান বলেন একটি অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (স্যার) বরাবরে দাখিল করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্তের জন্য আমাকে বলা হয়েছে । তদন্ত ও পর্যালোচনাক্রমে প্রতিবেদন দেয়া হবে।
কুবাজপুর শাহজালাল (রঃ) সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসা নির্বাহী কমিটির সভাপতি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম রানা বলেন ছাত্র নির্যাতনের ঘটনা আমাদের কেউ জানায়নি। শুনেছি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে অভিযোগ দেয়া হয়েছে। ঘটনায় যেই জড়িত থাকুক অবশ্যই তদন্তে সত্যতা প্রকাশ পাইবে।
অভিযুক্ত শিক্ষক নিজাম উদ্দিন বলেন আমার কিছু বলার নেই। আমি কি বলবো, আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়া হয়েছে ঠিক, তবে সবগুলো সঠিক নয়।