ঢাকা ০৪:২৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
পানি নিস্কাশনের রাস্তা বন্ধ করে পুকুর নির্মানের কারনে প্রায় শত বিঘা ফসলী জমি পানির নীচে ইবি শিক্ষার্থীকে গলাটিপে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে তদন্ত কমিটি গঠন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় বেগম জাহানারা হান্নান উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩য় বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্টিত জামালপুরে ভেজাল কীটনাশকে বাজার সয়লাব, কৃষি শিল্প ধ্বংসের পাঁয়তারা মোংলায় সিবিএ নির্বাচন নিয়ে শ্রমিক-কর্মচারীদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে নওগাঁ প্রাইভেট কার থেকে ৭২ কেজি গাঁজাসহ এক জন গ্রেপ্তার ভাষা সৈনিক মোস্তফা এম এ মতিন সাহিত্য পুরস্কার পেলেন হোসেনপুরের কবি শাহ আলম বিল্লাল গুজরাটের পোরবন্দরের জলসীমায় ২২০০০হাজার, কোটি টাকার মাদকদ্রব্য আটক করেছে নৌবাহিনী ও এনসিবি, গ্রেপ্তার পাঁচ পাক নাগরিক রায়পুরে অসামাজিক কার্যকলাপে আটক ৫ রাজধানীর ৪ হাসপাতালে র‍্যাবের অভিযান

মোংলা বন্দর সিবিএ নির্বাচনে নাসির সভাপতি ও পল্টু সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত

মোংলা থেকে ওমর ফারুক।।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের নির্বাচন ‘শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে। এবারের নির্বাচনে পৃথক দুই প্যানেল থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত একটানা বন্দর স্কুল এন্ড কলেজে কেন্দ্র, খুলনায় একটি, বন্দরের হিরণ পয়েন্ট এলাকায় একটি ও ঢাকায় একটিসহ মোট চারটি কেন্দ্রে নির্বাচনের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়।
এ নির্বাচনে ১৩ টি পদের অনুকুলে তিনটি প্যানেলের ৩৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্ধন্ধিতা করে। এর মধ্য থেকে নাসির – ফিরোজ প্যানেল থেকে নাসির উদ্দিন চৌধুরী সভাপতি ও মৃধা- পল্টু পরিষদ থেকে কাজী খুরশিদ আলম পল্টু সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন।
সভাপতি পদে নাসির উদ্দিন চৌধুরী ছাতা প্রতীক নিয়ে ৩৮৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী মোঃ নাসির উদ্দিন মৃধা চেয়ার প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৬২ ভোট। সাধারন সম্পাদক পদে কাজী খুরশিদ আলম পল্টু গরুর গাড়ী প্রতীক নিয়ে ৩৭৪ ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মোঃ এস,এম ফিরোজ দোয়াত কলম প্রতীক পেয়েছেন ৩৫৬ ভোট। এছাড়া কার্যকারী সভাপতি মোঃ মুসফিকুর রহমান ও সহ-সভাপতি এ,কে,এম ফারুকুজ্জামান, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সরোযার হোসেন খোকন ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক মোঃ ওমর ফিরোজ, প্রচার সম্পাদক হাবিবুর রহমান, সমাজ কল্যান সম্পাদক মোঃ নাসির উদ্দন পাটোয়ারী, কোষাধ্যক্ষ পদে মনিরুজ্জামান চৌধুরী ও সদস্য মোঃ ফজলুল হক নির্বাচিত হয়েছেন।
বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের এ নির্বাচনে ৮শ ৪৩ জন ভোটারের মধ্যে ঢাকাসহ ৪টি কেন্দ্রে ৭ শ ৮৬ জন ভোটার উপস্থিত হয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন, বাগেরহাট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট ভূইয়া হেমায়েত উদ্দিন। নির্বাচনে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মাদ মুসা, খুলনা শ্রম অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মোঃ মাকরুজ্জামান মুন্সী, সদস্য মাসুদ উল্লাহসহ নির্বাচন কমিটির অন্যান্য সদস্য ও বন্দরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরেপক্ষতা বজায় রাখতে বন্দরের নিরাপত্তারক্ষীর পাশাপাশী আনসার, পুলিশ ও র্যার সদস্যরা সকাল থেকেই নির্বাচনীয় কেন্দ্র ও এর আশপাশ এলাকাগুলোতে শান্তিশৃংঙ্খলা রক্ষায় টহল জোরদার রেখে সতর্ক অবস্থায় নিয়োজিত ছিলেন।
মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান বলেন, মোংলা বন্দরের সিবিএ নির্বাচন অত্যন্ত সুন্দর, অবাধ নিরেপক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখানে যারা ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন তারা উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়েছেন। ভোট শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কোন প্রার্থীর কাছ থেকে কোন প্রকার অভিযোগ পাওয়া যায়নি এবং এ নির্বাচনে কেউকেই অনিয়ম করার সুযোগ দেয়া হয়নি।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

পানি নিস্কাশনের রাস্তা বন্ধ করে পুকুর নির্মানের কারনে প্রায় শত বিঘা ফসলী জমি পানির নীচে

মোংলা বন্দর সিবিএ নির্বাচনে নাসির সভাপতি ও পল্টু সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত

আপডেট টাইম : ০১:৫৪:৪৪ পূর্বাহ্ণ, সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১

মোংলা থেকে ওমর ফারুক।।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের নির্বাচন ‘শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে। এবারের নির্বাচনে পৃথক দুই প্যানেল থেকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত একটানা বন্দর স্কুল এন্ড কলেজে কেন্দ্র, খুলনায় একটি, বন্দরের হিরণ পয়েন্ট এলাকায় একটি ও ঢাকায় একটিসহ মোট চারটি কেন্দ্রে নির্বাচনের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়।
এ নির্বাচনে ১৩ টি পদের অনুকুলে তিনটি প্যানেলের ৩৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্ধন্ধিতা করে। এর মধ্য থেকে নাসির – ফিরোজ প্যানেল থেকে নাসির উদ্দিন চৌধুরী সভাপতি ও মৃধা- পল্টু পরিষদ থেকে কাজী খুরশিদ আলম পল্টু সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন।
সভাপতি পদে নাসির উদ্দিন চৌধুরী ছাতা প্রতীক নিয়ে ৩৮৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী মোঃ নাসির উদ্দিন মৃধা চেয়ার প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৬২ ভোট। সাধারন সম্পাদক পদে কাজী খুরশিদ আলম পল্টু গরুর গাড়ী প্রতীক নিয়ে ৩৭৪ ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী মোঃ এস,এম ফিরোজ দোয়াত কলম প্রতীক পেয়েছেন ৩৫৬ ভোট। এছাড়া কার্যকারী সভাপতি মোঃ মুসফিকুর রহমান ও সহ-সভাপতি এ,কে,এম ফারুকুজ্জামান, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সরোযার হোসেন খোকন ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ফরহাদ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক মোঃ ওমর ফিরোজ, প্রচার সম্পাদক হাবিবুর রহমান, সমাজ কল্যান সম্পাদক মোঃ নাসির উদ্দন পাটোয়ারী, কোষাধ্যক্ষ পদে মনিরুজ্জামান চৌধুরী ও সদস্য মোঃ ফজলুল হক নির্বাচিত হয়েছেন।
বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের এ নির্বাচনে ৮শ ৪৩ জন ভোটারের মধ্যে ঢাকাসহ ৪টি কেন্দ্রে ৭ শ ৮৬ জন ভোটার উপস্থিত হয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন, বাগেরহাট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট ভূইয়া হেমায়েত উদ্দিন। নির্বাচনে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মাদ মুসা, খুলনা শ্রম অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মোঃ মাকরুজ্জামান মুন্সী, সদস্য মাসুদ উল্লাহসহ নির্বাচন কমিটির অন্যান্য সদস্য ও বন্দরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরেপক্ষতা বজায় রাখতে বন্দরের নিরাপত্তারক্ষীর পাশাপাশী আনসার, পুলিশ ও র্যার সদস্যরা সকাল থেকেই নির্বাচনীয় কেন্দ্র ও এর আশপাশ এলাকাগুলোতে শান্তিশৃংঙ্খলা রক্ষায় টহল জোরদার রেখে সতর্ক অবস্থায় নিয়োজিত ছিলেন।
মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ কর্মচারী সংঘের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান বলেন, মোংলা বন্দরের সিবিএ নির্বাচন অত্যন্ত সুন্দর, অবাধ নিরেপক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখানে যারা ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন তারা উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়েছেন। ভোট শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কোন প্রার্থীর কাছ থেকে কোন প্রকার অভিযোগ পাওয়া যায়নি এবং এ নির্বাচনে কেউকেই অনিয়ম করার সুযোগ দেয়া হয়নি।