ঢাকা ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
তথ্য প্রকাশ হওয়ার পর রাজস্ব কর্মকর্তার মতিউর রহমানের অবৈধ সম্পদের খোঁজ মিলেছে এবার দুদক ভারতের সঙ্গে সই হতে পারে ১০টির বেশি চুক্তি ও এমওইউ প্রধানমন্ত্রী নয়াদিল্লি যাচ্ছে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংক থেকে বাংলাদেশিদের অর্থ তুলে নেওয়ার হার গত কয়েক বছর ধরে বাড়ছে ভাঙা কালভার্টের সড়কে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত দেশের ক্ষতি চায় বিএনপি’ভারতের সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক সৃষ্টি করে রাশিয়ার দুটি জ্বালানি ডিপোতে ড্রোন হামলায় আগুন যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেনজীর ও আছাদুজ্জামানের সম্পদ নিয়ে এবার মুখ খুললেন বছরে ৯২ হাজার কোটি টাকা পাচার হয়: সাবেক পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী মতিউর রহমান একজন জাতীয় রাজস্ব কর্মকর্তা। বর্তমানে কাস্টমস তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদের পাহাড় রয়েছে

এপ্রিলের মধ্যেই খাল জঞ্জালমুক্ত করতে চায় ডিএসসিসি

  • সময়ের কন্ঠ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : ০৭:০৪:৪৪ পূর্বাহ্ণ, সোমবার, ৪ জানুয়ারি ২০২১
  • ২৭৭ ০.০০০ বার পাঠক

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

রাজধানীতে বৃষ্টি হলেই সড়কে দেখা দেয় জলাবদ্ধতা। বৃষ্টি শেষ হলেও ঘণ্টার পর ঘণ্টা জমে থাকে পানি। নগরীর বেশিরভাগ কালভার্ট ও খাল দখল এবং ভরাটের কারণে দেখা দেয় এমন জলাবদ্ধতা। জলাবদ্ধতা দূরীকরণের দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসার থাকলেও নগরী থেকে কোনোভাবেই দূর হচ্ছিল না জলাবদ্ধতা।

যার কারণে গত বৃহস্পতিবার জলাবদ্ধতা দূরীকরণে ঢাকা ওয়াসা থেকে খালের দায়িত্ব দুই সিটি করপোরেশনকে হস্তান্তর করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। আর দায়িত্ব গ্রহণের পরেই খাল পরিষ্কার করে জলাবদ্ধতা দূরীকরণে কাজ শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

আগামী এপ্রিলে বর্ষার আগেই খাল পরিষ্কার করে ঢাকাবাসীকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিতে চায় ডিএসসিসি। গত শনিবার পান্থপথ বক্স কালভার্টের পাঁচটি ড্রেনেজ পিট থেকে ৭৪ টন বর্জ্য অপসারণের মাধ্যমে কালভার্ট পরিষ্কার শুরু করে তারা। হাতিরঝিল থেকে রাসেল স্কয়ার পর্যন্ত বিস্তৃত পান্থপথ বক্স কালভার্টে মোট ২৪টি মুখ (ড্রেনেজ পিট) রয়েছে। এটি পরিষ্কার করতে প্রায় সপ্তাহখানেক সময় লাগবে বলে জানা গেছে।

গতকালও পান্থকুঞ্জ পার্কের অভ্যন্তরে এবং রাতের বেলায় কাঠালবাগান ঢাল থেকে পান্থপথ মোড় পর্যন্ত পিটগুলোর মধ্যবর্তী অংশে ড্রেজারের মাধ্যমে বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। এই কালভার্ট পরিষ্কারের বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী বলেন, করপোরেশনের সক্ষমতার ওপর ভিত্তি করে আমরা কাজ শুরু করেছি। আমাদের কিছু সক্ষমতা রয়েছে, তারপরও দীর্ঘদিন ধরে যেহেতু এই কাজগুলো ওয়াসার হাতে ছিল তাই আমরা ওয়াসার কারিগরি সহযোগিতা নেব।

ওয়াসার সঙ্গে আমাদের যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে, সে মোতাবেক আমরা শুরুতে ওয়াসার কারিগরি সহযোগিতা, যন্ত্রপাতি ও জনবল সহযোগিতা নেব। ওরা দুই বছর আমাদের সঙ্গে কাজ করবে, পর্যায়ক্রমে আমরা সক্ষমতা অর্জন করব। তিনি আরো বলেন, এই কালভার্টের অভ্যন্তরে কী আছে তা দেখার পর পরবর্তী কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করা হবে।

আমরা মার্চের মধ্যে দুটি বক্স কালভার্ট ও তিনটি খাল থেকে বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম শেষ করতে চাই। যাতে আমরা এপ্রিলের শুরু থেকে ঢাকা শহরকে জলাবদ্ধতা মুক্তি দিতে পারি। সে পরিকল্পনা নিয়েই আমরা কাজ শুরু করেছি। আশা করছি, মার্চের মধ্যে আমরা তিনটি খাল এবং দুই কালভার্ট পরিপূর্ণভাবে পরিষ্কার করতে পারব। যদি আমরা এ সময়ের মধ্যে খাল এবং কালভার্ট পরিষ্কার করতে পারি, তাহলে আমরা বিশ্বাস করি, এ বছর আমরা জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাব।

ডিএসসিসির সংশ্লিষ্টরা জানান, পান্থকুঞ্জ পার্কের ভেতরের বক্স কালভার্টটির গভীরতা দুই রকমের। এর গভীরতা কোথাও ১১ ফুট আবার কোথাও ২০ থেকে ২২ ফুট। এক্ষেত্রে কারিগরি কমিটির সহযোগিতার মাধ্যমে সঠিক মাপ বের করতে কাজ করছেন তারা।

তারা জানান, শুধু কালভার্ট (ড্রেনেজ পিট) পরিষ্কার করলে হবে না। ভেতরে পরিচ্ছন্নতা কর্মী ও মেশিন প্রবেশ করাতে হবে। ক্রেন প্রবেশ করাতে হবে। পানি প্রবাহ বাড়ানোর জন্য অত্যাধুনিক মেশিন ব্যবহার করে আবর্জনা উঠানো হবে। কালভার্টের ভেতরের সংযোগ মুখগুলো বন্ধ হয়ে রয়েছে। মুখগুলো পরিষ্কার করতে হবে। প্রথমে ২০০ মিটার করে পরিষ্কার করা হবে। পরবর্তীতে অন্য অংশ পরিষ্কার করা হবে। কালভার্টের ওপর অবৈধ স্থাপনার বিষয়ে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমডোর মো. বদরুল আমিন বলেন, কালভার্টের ওপর কোনো অবৈধ স্থাপনা নেই। সীমানা নির্ধারণপূর্বক বুঝা যাবে কালভার্টের বাইরে কোনো অবৈধ স্থাপনা আছে কি না।

আরো খবর.......

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

তথ্য প্রকাশ হওয়ার পর রাজস্ব কর্মকর্তার মতিউর রহমানের অবৈধ সম্পদের খোঁজ মিলেছে এবার দুদক

এপ্রিলের মধ্যেই খাল জঞ্জালমুক্ত করতে চায় ডিএসসিসি

আপডেট টাইম : ০৭:০৪:৪৪ পূর্বাহ্ণ, সোমবার, ৪ জানুয়ারি ২০২১

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

রাজধানীতে বৃষ্টি হলেই সড়কে দেখা দেয় জলাবদ্ধতা। বৃষ্টি শেষ হলেও ঘণ্টার পর ঘণ্টা জমে থাকে পানি। নগরীর বেশিরভাগ কালভার্ট ও খাল দখল এবং ভরাটের কারণে দেখা দেয় এমন জলাবদ্ধতা। জলাবদ্ধতা দূরীকরণের দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসার থাকলেও নগরী থেকে কোনোভাবেই দূর হচ্ছিল না জলাবদ্ধতা।

যার কারণে গত বৃহস্পতিবার জলাবদ্ধতা দূরীকরণে ঢাকা ওয়াসা থেকে খালের দায়িত্ব দুই সিটি করপোরেশনকে হস্তান্তর করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। আর দায়িত্ব গ্রহণের পরেই খাল পরিষ্কার করে জলাবদ্ধতা দূরীকরণে কাজ শুরু করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

আগামী এপ্রিলে বর্ষার আগেই খাল পরিষ্কার করে ঢাকাবাসীকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিতে চায় ডিএসসিসি। গত শনিবার পান্থপথ বক্স কালভার্টের পাঁচটি ড্রেনেজ পিট থেকে ৭৪ টন বর্জ্য অপসারণের মাধ্যমে কালভার্ট পরিষ্কার শুরু করে তারা। হাতিরঝিল থেকে রাসেল স্কয়ার পর্যন্ত বিস্তৃত পান্থপথ বক্স কালভার্টে মোট ২৪টি মুখ (ড্রেনেজ পিট) রয়েছে। এটি পরিষ্কার করতে প্রায় সপ্তাহখানেক সময় লাগবে বলে জানা গেছে।

গতকালও পান্থকুঞ্জ পার্কের অভ্যন্তরে এবং রাতের বেলায় কাঠালবাগান ঢাল থেকে পান্থপথ মোড় পর্যন্ত পিটগুলোর মধ্যবর্তী অংশে ড্রেজারের মাধ্যমে বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে। এই কালভার্ট পরিষ্কারের বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী বলেন, করপোরেশনের সক্ষমতার ওপর ভিত্তি করে আমরা কাজ শুরু করেছি। আমাদের কিছু সক্ষমতা রয়েছে, তারপরও দীর্ঘদিন ধরে যেহেতু এই কাজগুলো ওয়াসার হাতে ছিল তাই আমরা ওয়াসার কারিগরি সহযোগিতা নেব।

ওয়াসার সঙ্গে আমাদের যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে, সে মোতাবেক আমরা শুরুতে ওয়াসার কারিগরি সহযোগিতা, যন্ত্রপাতি ও জনবল সহযোগিতা নেব। ওরা দুই বছর আমাদের সঙ্গে কাজ করবে, পর্যায়ক্রমে আমরা সক্ষমতা অর্জন করব। তিনি আরো বলেন, এই কালভার্টের অভ্যন্তরে কী আছে তা দেখার পর পরবর্তী কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করা হবে।

আমরা মার্চের মধ্যে দুটি বক্স কালভার্ট ও তিনটি খাল থেকে বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম শেষ করতে চাই। যাতে আমরা এপ্রিলের শুরু থেকে ঢাকা শহরকে জলাবদ্ধতা মুক্তি দিতে পারি। সে পরিকল্পনা নিয়েই আমরা কাজ শুরু করেছি। আশা করছি, মার্চের মধ্যে আমরা তিনটি খাল এবং দুই কালভার্ট পরিপূর্ণভাবে পরিষ্কার করতে পারব। যদি আমরা এ সময়ের মধ্যে খাল এবং কালভার্ট পরিষ্কার করতে পারি, তাহলে আমরা বিশ্বাস করি, এ বছর আমরা জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাব।

ডিএসসিসির সংশ্লিষ্টরা জানান, পান্থকুঞ্জ পার্কের ভেতরের বক্স কালভার্টটির গভীরতা দুই রকমের। এর গভীরতা কোথাও ১১ ফুট আবার কোথাও ২০ থেকে ২২ ফুট। এক্ষেত্রে কারিগরি কমিটির সহযোগিতার মাধ্যমে সঠিক মাপ বের করতে কাজ করছেন তারা।

তারা জানান, শুধু কালভার্ট (ড্রেনেজ পিট) পরিষ্কার করলে হবে না। ভেতরে পরিচ্ছন্নতা কর্মী ও মেশিন প্রবেশ করাতে হবে। ক্রেন প্রবেশ করাতে হবে। পানি প্রবাহ বাড়ানোর জন্য অত্যাধুনিক মেশিন ব্যবহার করে আবর্জনা উঠানো হবে। কালভার্টের ভেতরের সংযোগ মুখগুলো বন্ধ হয়ে রয়েছে। মুখগুলো পরিষ্কার করতে হবে। প্রথমে ২০০ মিটার করে পরিষ্কার করা হবে। পরবর্তীতে অন্য অংশ পরিষ্কার করা হবে। কালভার্টের ওপর অবৈধ স্থাপনার বিষয়ে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমডোর মো. বদরুল আমিন বলেন, কালভার্টের ওপর কোনো অবৈধ স্থাপনা নেই। সীমানা নির্ধারণপূর্বক বুঝা যাবে কালভার্টের বাইরে কোনো অবৈধ স্থাপনা আছে কি না।