ঢাকা ১২:৪৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগ এর সদস্য নির্বাচিত (২০২২) এর গনসংবর্ধনা চট্টগ্রামের আলোচিত শিশু আয়াত হত্যা: আসামি আবির দুই দিনের রিমান্ডে ফুলবাড়ীতে অগ্নিকাণ্ডে বিদেশি গরু সহ বাড়ি পুড়ে ভস্মীভূত। ক্ষয়ক্ষতি প্রায় ৯ লক্ষ টাকা কাশিমপুর প্রেসক্লাবে কার্ডধারী সাংবাদিক নেতা মাজহারুল ইসলাম প্রতিক সন্দ্বীপে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান  সংবর্ধনা মোংলা পৌর যুবলীগের সভাপতি/ সম্পাদকের অসাংগঠনিক কার্যকলাপের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন ঠাকুরগাঁওয়ে হানিফ কোচের ধাক্কায় সড়কে প্রাণ গেল বাবা-মা ও মেয়ের বিএমএসএফ নিজস্ব গঠনতন্ত্রে পরিচালিত ট্রাস্টিনামা দলিলের অন্তর্ভুক্ত নয় -সাধারণ সভায় নেতৃবৃন্দ শহর সমাজসেবা কার্যালয়(২)খুলনার কার্যক্রম উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি স্বাবলম্বী করতে মন্ত্রণালয় দৃষ্টি দিবেন কি?

টানা তৃতীয়বারের মতো ‘এক নম্বর মোবাইল ব্র্যান্ড’ স্যামসাং

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

[ঢাকা, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০] টানা তৃতীয়বারের মতো দেশের ‘এক নম্বর হ্যান্ডসেট ব্র্যান্ড’ হিসেবে স্যামসাং

বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিলো দিলো বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম।এর মধ্য দিয়ে দেশের ‘এক নম্বর হ্যান্ডসেট ব্র্যান্ড’

হিসেবে হ্যাটট্রিক করলো স্যামসাং। ব্র্যান্ডের উৎকর্ষ এবং গ্রাহকদের প্রতি প্রতিশ্রæতি প‚রণের কারণে গতকাল

ব্র্যান্ডফেস্টের মাধ্যমে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে স্যামসাংকে সম্মানস‚চক এই পুরস্কারে ভ‚ষিত করেছে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড

ফোরাম।

চলতি বছর, অধিকাংশ বড় ও ভারী শিল্প উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে বেশ প্রতিক‚লতার সম্মুখীন হতে হয়েছে।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব এবং বিশ্বজুড়ে লকডাউনের কারণে অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠানের ওপর নেতিবাচক

প্রভাব পড়েছে। এই পরিস্থিতি স্মার্টফোন তৈরিকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে নানা চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন করেছে। কেননা,

শ্রম শক্তি, উৎপাদন, সরবরাহ শৃঙ্খল (সাপ্লাই চেইন) ব্যাহত হওয়ার কারণে গবেষণার মাধ্যমে উদ্ভাবন ও নতুন

নতুন বাজার তৈরি প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। এত সব প্রতিক‚লতা সত্তে¡ও চলমান পরিস্থিতিতে স্যামসাংয়ের

ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি হয়েছ; বিশেষ করে, তৃতীয় ও চতুর্থ প্রান্তিকে এ প্রতিষ্ঠানটি ব্যবসায়িক সাফল্য অর্জন করতেও

সক্ষম হয়েছে।

২০১৯ সালে নিজেদের প্রতিষ্ঠার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করেছে স্যামসাং। উদ্ভাবনী ফিচার, দীর্ঘস্থায়ীত্ব, ক্রেতাদের

উন্নত সেবা প্রদান ও সাশ্রয়ের কারণে বাংলাদেশের ক্রেতাদের কাছে দক্ষিণ কোরিয়ার এই ব্র্যান্ডটি বেশ জনপ্রিয়।

বাজারে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরণের হ্যান্ডসেট নিয়ে আসছে স্যামসাং, যা বিভিন্ন বয়সী ও শ্রেণির ক্রেতাদের চাহিদা

প‚রণ করছে। এ কারণেই ২০১৮ সাল থেকে এ নিয়ে টানা তৃতীয়বার স্যামসাংকে ‘এক নম্বর হ্যান্ডসেট ব্র্যান্ড’

হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে আসছে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম। উল্লেখ্য, বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান নিয়েলসন দেশব্যাপী

জরিপ পরিচালনার মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম অ্যাওয়ার্ডের জন্য বাংলাদেশের টপ ব্র্যান্ডগুলোকে নির্বাচন

করে।

এ নিয়ে স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মো. ম‚য়ীদুর রহমান বলেন, ‘পুরনোকে পেছনে ফেলে সব সময়

নতুন কিছু করাই আমাদের ম‚ল উদ্দেশ্য। সম্মানিত ক্রেতাদের প‚র্ণ সহযোগিতা পেয়েই আমরা বৈশ্বিক মহামারির

কঠিন সময় অতিক্রম করতে পেরেছি; এজন্য তাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। আমরা সব সময়ই বাজারে নতুন পণ্য

নিয়ে আসার ক্ষেত্রে মানদÐ বজায় রেখেছি; যার স্বীকৃতিস্বরূপই আমাদের এ অর্জন। আমাদের এই সম্মানে ভ‚ষিত

করার জন্য বাংলাদেশে ব্র্যান্ড ফোরামেকে ধন্যবাদ জানাই; পাশাপাশি, আমাদের সাথে থাকার জন্য ক্রেতা, অংশীদার, কর্মী ও স্টেকহোল্ডারদের প্রতিও আমাদের কৃতজ্ঞতা।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগ এর সদস্য নির্বাচিত (২০২২) এর গনসংবর্ধনা

টানা তৃতীয়বারের মতো ‘এক নম্বর মোবাইল ব্র্যান্ড’ স্যামসাং

আপডেট টাইম : ১২:৫০:২০ অপরাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২০

সময়ের কন্ঠ রিপোর্ট।।

[ঢাকা, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০] টানা তৃতীয়বারের মতো দেশের ‘এক নম্বর হ্যান্ডসেট ব্র্যান্ড’ হিসেবে স্যামসাং

বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দিলো দিলো বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম।এর মধ্য দিয়ে দেশের ‘এক নম্বর হ্যান্ডসেট ব্র্যান্ড’

হিসেবে হ্যাটট্রিক করলো স্যামসাং। ব্র্যান্ডের উৎকর্ষ এবং গ্রাহকদের প্রতি প্রতিশ্রæতি প‚রণের কারণে গতকাল

ব্র্যান্ডফেস্টের মাধ্যমে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে স্যামসাংকে সম্মানস‚চক এই পুরস্কারে ভ‚ষিত করেছে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড

ফোরাম।

চলতি বছর, অধিকাংশ বড় ও ভারী শিল্প উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে বেশ প্রতিক‚লতার সম্মুখীন হতে হয়েছে।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব এবং বিশ্বজুড়ে লকডাউনের কারণে অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠানের ওপর নেতিবাচক

প্রভাব পড়েছে। এই পরিস্থিতি স্মার্টফোন তৈরিকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে নানা চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন করেছে। কেননা,

শ্রম শক্তি, উৎপাদন, সরবরাহ শৃঙ্খল (সাপ্লাই চেইন) ব্যাহত হওয়ার কারণে গবেষণার মাধ্যমে উদ্ভাবন ও নতুন

নতুন বাজার তৈরি প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। এত সব প্রতিক‚লতা সত্তে¡ও চলমান পরিস্থিতিতে স্যামসাংয়ের

ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি হয়েছ; বিশেষ করে, তৃতীয় ও চতুর্থ প্রান্তিকে এ প্রতিষ্ঠানটি ব্যবসায়িক সাফল্য অর্জন করতেও

সক্ষম হয়েছে।

২০১৯ সালে নিজেদের প্রতিষ্ঠার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করেছে স্যামসাং। উদ্ভাবনী ফিচার, দীর্ঘস্থায়ীত্ব, ক্রেতাদের

উন্নত সেবা প্রদান ও সাশ্রয়ের কারণে বাংলাদেশের ক্রেতাদের কাছে দক্ষিণ কোরিয়ার এই ব্র্যান্ডটি বেশ জনপ্রিয়।

বাজারে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরণের হ্যান্ডসেট নিয়ে আসছে স্যামসাং, যা বিভিন্ন বয়সী ও শ্রেণির ক্রেতাদের চাহিদা

প‚রণ করছে। এ কারণেই ২০১৮ সাল থেকে এ নিয়ে টানা তৃতীয়বার স্যামসাংকে ‘এক নম্বর হ্যান্ডসেট ব্র্যান্ড’

হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে আসছে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম। উল্লেখ্য, বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান নিয়েলসন দেশব্যাপী

জরিপ পরিচালনার মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম অ্যাওয়ার্ডের জন্য বাংলাদেশের টপ ব্র্যান্ডগুলোকে নির্বাচন

করে।

এ নিয়ে স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মো. ম‚য়ীদুর রহমান বলেন, ‘পুরনোকে পেছনে ফেলে সব সময়

নতুন কিছু করাই আমাদের ম‚ল উদ্দেশ্য। সম্মানিত ক্রেতাদের প‚র্ণ সহযোগিতা পেয়েই আমরা বৈশ্বিক মহামারির

কঠিন সময় অতিক্রম করতে পেরেছি; এজন্য তাদের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞ। আমরা সব সময়ই বাজারে নতুন পণ্য

নিয়ে আসার ক্ষেত্রে মানদÐ বজায় রেখেছি; যার স্বীকৃতিস্বরূপই আমাদের এ অর্জন। আমাদের এই সম্মানে ভ‚ষিত

করার জন্য বাংলাদেশে ব্র্যান্ড ফোরামেকে ধন্যবাদ জানাই; পাশাপাশি, আমাদের সাথে থাকার জন্য ক্রেতা, অংশীদার, কর্মী ও স্টেকহোল্ডারদের প্রতিও আমাদের কৃতজ্ঞতা।