ঢাকা ০৯:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
সুনামগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ  গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান আত্রাইয়ে থানাপুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৫০গ্রাম গাঁজাসহ আটক এক সাভারে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপ-প্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কিশোরের হত্যাকান্ডকে আত্মহত্যা হিসেবে প্রচারণা,করায় মা ও তার, মামা গ্রেফতার গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ২ নং ওয়ার্ডে রাস্তা ঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন নাজিরপুরে হার্ডওয়্যার এর দোকানে বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিটে আগুন পূর্বের বিরোধকে কেন্দ্র করে স্ব মিলে আগুন দেওয়ার অভিযোগ মংলা উপজেলার মিঠু ফকির আর নেই মোংলায় নাসা অ্যাপস চ্যালেঞ্জ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলনেতা সুমিত’র সংবর্ধনা

চাঁপাই-নবাবগঞ্জে বজ্রপাতে নিহতদের লাশ চুরির আতঙ্কে এলাকাবাসী

শেখ সিরাজুল ইসলাম।।

চাঁপাই-নবাবগঞ্জে বজ্রপাতে নিহতদের লাশ চুরির আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী। চুরি ঠেকাতে রড ডিমেন্ট দিয়ে কবর বাঁধাই এর কাজে নেমে পড়েছে এলাকাবাসী।বজ্রপাতে কারও মৃত্যু হলে সেই মরদেহ মূল্যবান কোনো বস্তুতে পরিণত হয়। এমন ধারণা থেকে দেশে বজ্রপাতে নিহতদের লাশ চুরির ঘটনা ঘটে। চাঁপাইনবাবগঞ্জে সেই আশঙ্কা থেকেই গ্রামবাসীর এই উদ্যোগ।
গত বুধবার (৪ আগষ্ট) চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের পদ্মা নদীর তেলিখাড়ি ঘাটে বজ্রপাত হলে, সদর উপজেলার সূর্য নারায়নপুর গ্রামের ১৪ জন, চরবাগডাঙ্গার একজন এবং শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের আরও দুইজন মারা যায়। তাদের প্রত্যেকের কবর বাঁধাই করতে স্বেচ্ছাই এগিয়ে আসেন গ্রামবাসী।
সূর্য নারায়নপুর গ্রামের আল মামুন চারদিন আগেই বিয়ে করেন শিবগঞ্জের দক্ষিণ পাকার সুমি খাতুনকে। বিয়ের তিনদিন পর, বুধবার কনের বাড়ি থেকে বর-কনে আনতে যাচ্ছিলো মামুনের বাবা-মা সহ নিকট আত্মীয় স্বজনরা। বেলা ১২টার দিকে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে পদ্মা পার হয়ে বরযাত্রীদের নৌকা শিবগঞ্জের পাঁকা নারায়ণপুর ঘাটে পৌঁছালে, শুরু হয় বজ্রপাত। ঘটনাস্থলেই বজ্রপাতে আল মামুনের পরিবারের ১৪ জনসহ ১৭ জনের মৃত্যু হয়।
মামুনের পিতাকে দাফন করা হয়েছে বাড়ির পেছনের দরজার পাশে। আর নানা-নানীসহ একই পরিবারের ছয়জনের দাফন সম্পন্ন করেছেন রাস্তা ঘেঁষা ঐ বাড়ির সামনের প্রধান দরজার পাশে। কিন্তু বুধবার রাতে ও বৃহস্পতিবার সকালে মরদেহগুলো দাফনের পর সংসারের চিন্তা বাদ দিয়ে কবরগুলো পাহারা দিতে হয়েছে তাকে। স্থানীয়দের স্বেচ্ছাশ্রমে সারাদিন চলেছে কবর বাঁধায় শেষে কবরের উপরে রড সিমেন্ট দিয়ে ঢালাই দেওয়ার কাজ চলেছে সন্ধ্যা পর্যন্ত। কাজ শেষ করে কিছুটা নিশ্চিত হন তারা।
নারায়নপুর ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ১৩ নং ওয়ার্ড সদস্য আজিম হোসেন জানান, সরকারের অনুদানের পাশাপাশি লাশগুলোর চুরি ঠেকাতে কবরগুলো বাঁধাই করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সহায়তা করার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সুনামগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ 

চাঁপাই-নবাবগঞ্জে বজ্রপাতে নিহতদের লাশ চুরির আতঙ্কে এলাকাবাসী

আপডেট টাইম : ১০:০২:০৭ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ৬ আগস্ট ২০২১

শেখ সিরাজুল ইসলাম।।

চাঁপাই-নবাবগঞ্জে বজ্রপাতে নিহতদের লাশ চুরির আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী। চুরি ঠেকাতে রড ডিমেন্ট দিয়ে কবর বাঁধাই এর কাজে নেমে পড়েছে এলাকাবাসী।বজ্রপাতে কারও মৃত্যু হলে সেই মরদেহ মূল্যবান কোনো বস্তুতে পরিণত হয়। এমন ধারণা থেকে দেশে বজ্রপাতে নিহতদের লাশ চুরির ঘটনা ঘটে। চাঁপাইনবাবগঞ্জে সেই আশঙ্কা থেকেই গ্রামবাসীর এই উদ্যোগ।
গত বুধবার (৪ আগষ্ট) চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের পদ্মা নদীর তেলিখাড়ি ঘাটে বজ্রপাত হলে, সদর উপজেলার সূর্য নারায়নপুর গ্রামের ১৪ জন, চরবাগডাঙ্গার একজন এবং শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের আরও দুইজন মারা যায়। তাদের প্রত্যেকের কবর বাঁধাই করতে স্বেচ্ছাই এগিয়ে আসেন গ্রামবাসী।
সূর্য নারায়নপুর গ্রামের আল মামুন চারদিন আগেই বিয়ে করেন শিবগঞ্জের দক্ষিণ পাকার সুমি খাতুনকে। বিয়ের তিনদিন পর, বুধবার কনের বাড়ি থেকে বর-কনে আনতে যাচ্ছিলো মামুনের বাবা-মা সহ নিকট আত্মীয় স্বজনরা। বেলা ১২টার দিকে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে পদ্মা পার হয়ে বরযাত্রীদের নৌকা শিবগঞ্জের পাঁকা নারায়ণপুর ঘাটে পৌঁছালে, শুরু হয় বজ্রপাত। ঘটনাস্থলেই বজ্রপাতে আল মামুনের পরিবারের ১৪ জনসহ ১৭ জনের মৃত্যু হয়।
মামুনের পিতাকে দাফন করা হয়েছে বাড়ির পেছনের দরজার পাশে। আর নানা-নানীসহ একই পরিবারের ছয়জনের দাফন সম্পন্ন করেছেন রাস্তা ঘেঁষা ঐ বাড়ির সামনের প্রধান দরজার পাশে। কিন্তু বুধবার রাতে ও বৃহস্পতিবার সকালে মরদেহগুলো দাফনের পর সংসারের চিন্তা বাদ দিয়ে কবরগুলো পাহারা দিতে হয়েছে তাকে। স্থানীয়দের স্বেচ্ছাশ্রমে সারাদিন চলেছে কবর বাঁধায় শেষে কবরের উপরে রড সিমেন্ট দিয়ে ঢালাই দেওয়ার কাজ চলেছে সন্ধ্যা পর্যন্ত। কাজ শেষ করে কিছুটা নিশ্চিত হন তারা।
নারায়নপুর ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ১৩ নং ওয়ার্ড সদস্য আজিম হোসেন জানান, সরকারের অনুদানের পাশাপাশি লাশগুলোর চুরি ঠেকাতে কবরগুলো বাঁধাই করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সহায়তা করার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।