ঢাকা ০৯:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
কলাপাড়ায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া মিলাদ মাহফিল সাভারে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপ-প্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ সুনামগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ  গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান আত্রাইয়ে থানাপুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৫০গ্রাম গাঁজাসহ আটক এক কিশোরের হত্যাকান্ডকে আত্মহত্যা হিসেবে প্রচারণা,করায় মা ও তার, মামা গ্রেফতার গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ২ নং ওয়ার্ডে রাস্তা ঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন নাজিরপুরে হার্ডওয়্যার এর দোকানে বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিটে আগুন পূর্বের বিরোধকে কেন্দ্র করে স্ব মিলে আগুন দেওয়ার অভিযোগ মংলা উপজেলার মিঠু ফকির আর নেই

একজন কর্তব্যপরায়ন থানার অবিভাবক ওসি সুমন কুমার মহন্ত বিরামপুর থানা।।

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম,

জেলা প্রতিনিধি, দিনাজ পুর।।

দিনাজপুর জেলার বিরামপুর থানায় গত ২৬/০৫/২০২১ইং তারিখে অফিসার ইনচার্জ হিসেবে যোগদান করেন ওসি সুমন কুমার মহন্ত। যোগদানের পরেই থানার সকল পুলিশ সদস্যগনকে নিয়ে তিনি বিরামপুর থানার আইনশৃঙ্খলা বিষয় নিয়ে কঠর দিকনির্দেশনা দেন, এবং সেই থেকে কর্ম পরিকল্পনামাফিক শক্ত হাতে পরিচালনা করে আসছেন থানার সকল পুলিশ অফিসার ও সদস্য গনকে। যার ফলশ্রুতিতে বিরামপুর থানার আইনশৃঙ্খলা ক্রমেই উন্নত হতে শুরু করেছে।
যোগদানের শুরুতেই তিনি দু একটি বিপত্তির মুখে পড়েন, সততার কারনে সেই বিপত্তি কেটে বর্তমানে জনগনের নিকট একজন ভাল পুলিশ অফিসার হিসেবে গ্রহনযোগ্য হন।
তার যোগদানের পর তিনি মাদককের উপর কঠিন পদক্ষেপ গ্রহন করেন, মাদক কারবারি ও মাদকসেবিদের নিকট তিনি হয়ে উঠেন মুর্তিমান আতংক। যার কারনে বিরামপুর থানায় মাদকের কারবার ও সেবন অনেকাংশে লোপ পেয়েছে।
তিনি ভালোর নিকট ভালো মন্দের নিকট আতংক। দেখা গেছে মাদক কারবারির কোনো গোপন সংবাদ পাইলে তিনি থানার সাহসী অফিসারদের নিয়ে নিজেই অভিযান পরিচালনা করেন।
তিনি বলেন, আইনানুগভাবে সমাজের অসংগতি দুর করা ও জনগনের পাহারা দেওয়াই পুলিশের দ্বায়িত্ব। বর্তমান সরকারের উন্নয়নের একটি অংশ মাদকমুক্ত সমাজ গড়া আমি সেই উন্নয়নের অংশিদার হতে চাই। বিরামপুর থানায় তা বাস্তবায়ন করতে আমাকে আইনানুগভাবে যে পদক্ষেপ নিতে হবে আমি সেই পদক্ষেপ নিতে কুন্ঠাবোধ করবোনা।
তা ছাড়াও বিরামপুর থানায় অন্যান্ন সকল অপরাধ দমনে আইনানুসারে সকল পদক্ষেপ নিতে পিছুপা হবোনা।
আমি বিরামপুর থানায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করে যেতে চাই।
তিনি এমন একজন পুলিশ অফিসার, তার অফিস জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত, যে কোনোসময় যে কোনো ব্যক্তি তার নিকট গিয়ে স্ব-সমস্যার কথা উপস্থাপন করতে পারেন। তিনি জনগনের সমস্যার ধরনানুসারে তড়িত ব্যবস্থা গ্রহন করেন।
ওসি সুমন কুমার মহন্ত বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের সেই উপদেশ মুলক ভাষন আমাকে অনুপ্রেরণা যোগায়। ” বাংলার সাধারণ মানুষ এই প্রজাতন্ত্রের মালিক, অতএব তাদের কে সম্মান করতে হবে, তাদের সমস্যার সমাধান করতে কার্পুন্যতা করা যাবেনা “। তাই আমার অভিপ্রায় বিরামপুর থানার আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে আমি কঠরতম পদক্ষেপ নিতে দ্বিধাবোধ করবোনা।
ওসি সুমন কুমার মহন্তের মতো একজন কর্তব্যপরায়ন, আইন ও জনগনের সেবক পুলিশ অফিসার দেশের প্রতিটি থানায় দ্বায়িত্ব পাইলে দেশের আইনশৃঙ্খলা উন্নয়ন তরান্বিত হবে এবং অপরাধ দমন সহজ হবে বলে মনে করেন বিরামপুর উপজেলার সচেতন মহল।।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কলাপাড়ায় জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া মিলাদ মাহফিল

একজন কর্তব্যপরায়ন থানার অবিভাবক ওসি সুমন কুমার মহন্ত বিরামপুর থানা।।

আপডেট টাইম : ০৭:২১:২৩ পূর্বাহ্ণ, বুধবার, ৪ আগস্ট ২০২১

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম,

জেলা প্রতিনিধি, দিনাজ পুর।।

দিনাজপুর জেলার বিরামপুর থানায় গত ২৬/০৫/২০২১ইং তারিখে অফিসার ইনচার্জ হিসেবে যোগদান করেন ওসি সুমন কুমার মহন্ত। যোগদানের পরেই থানার সকল পুলিশ সদস্যগনকে নিয়ে তিনি বিরামপুর থানার আইনশৃঙ্খলা বিষয় নিয়ে কঠর দিকনির্দেশনা দেন, এবং সেই থেকে কর্ম পরিকল্পনামাফিক শক্ত হাতে পরিচালনা করে আসছেন থানার সকল পুলিশ অফিসার ও সদস্য গনকে। যার ফলশ্রুতিতে বিরামপুর থানার আইনশৃঙ্খলা ক্রমেই উন্নত হতে শুরু করেছে।
যোগদানের শুরুতেই তিনি দু একটি বিপত্তির মুখে পড়েন, সততার কারনে সেই বিপত্তি কেটে বর্তমানে জনগনের নিকট একজন ভাল পুলিশ অফিসার হিসেবে গ্রহনযোগ্য হন।
তার যোগদানের পর তিনি মাদককের উপর কঠিন পদক্ষেপ গ্রহন করেন, মাদক কারবারি ও মাদকসেবিদের নিকট তিনি হয়ে উঠেন মুর্তিমান আতংক। যার কারনে বিরামপুর থানায় মাদকের কারবার ও সেবন অনেকাংশে লোপ পেয়েছে।
তিনি ভালোর নিকট ভালো মন্দের নিকট আতংক। দেখা গেছে মাদক কারবারির কোনো গোপন সংবাদ পাইলে তিনি থানার সাহসী অফিসারদের নিয়ে নিজেই অভিযান পরিচালনা করেন।
তিনি বলেন, আইনানুগভাবে সমাজের অসংগতি দুর করা ও জনগনের পাহারা দেওয়াই পুলিশের দ্বায়িত্ব। বর্তমান সরকারের উন্নয়নের একটি অংশ মাদকমুক্ত সমাজ গড়া আমি সেই উন্নয়নের অংশিদার হতে চাই। বিরামপুর থানায় তা বাস্তবায়ন করতে আমাকে আইনানুগভাবে যে পদক্ষেপ নিতে হবে আমি সেই পদক্ষেপ নিতে কুন্ঠাবোধ করবোনা।
তা ছাড়াও বিরামপুর থানায় অন্যান্ন সকল অপরাধ দমনে আইনানুসারে সকল পদক্ষেপ নিতে পিছুপা হবোনা।
আমি বিরামপুর থানায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করে যেতে চাই।
তিনি এমন একজন পুলিশ অফিসার, তার অফিস জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত, যে কোনোসময় যে কোনো ব্যক্তি তার নিকট গিয়ে স্ব-সমস্যার কথা উপস্থাপন করতে পারেন। তিনি জনগনের সমস্যার ধরনানুসারে তড়িত ব্যবস্থা গ্রহন করেন।
ওসি সুমন কুমার মহন্ত বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের সেই উপদেশ মুলক ভাষন আমাকে অনুপ্রেরণা যোগায়। ” বাংলার সাধারণ মানুষ এই প্রজাতন্ত্রের মালিক, অতএব তাদের কে সম্মান করতে হবে, তাদের সমস্যার সমাধান করতে কার্পুন্যতা করা যাবেনা “। তাই আমার অভিপ্রায় বিরামপুর থানার আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে আমি কঠরতম পদক্ষেপ নিতে দ্বিধাবোধ করবোনা।
ওসি সুমন কুমার মহন্তের মতো একজন কর্তব্যপরায়ন, আইন ও জনগনের সেবক পুলিশ অফিসার দেশের প্রতিটি থানায় দ্বায়িত্ব পাইলে দেশের আইনশৃঙ্খলা উন্নয়ন তরান্বিত হবে এবং অপরাধ দমন সহজ হবে বলে মনে করেন বিরামপুর উপজেলার সচেতন মহল।।