ঢাকা ০১:২২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
নান্দাইলে বিদ্যুৎপৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু বাংলাদেশী তৈরি টুটু পিস্তল,চাইনিজ কুড়াল ৫০০ গ্রাম গাঁজা সহ ০৪ জন কিশোর গ্যাং এর সদস্য গ্রেফতার বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জে মটরসাইকেল চালককে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা, ছেলের অবস্থা আশঙ্কাজনক নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ এর মিজমিজি এলাকায় বৈধ গ্যাস লাইন পুনঃ সংযোগ এর দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন মোংলায় ২৮৪ জন বনদস্যুকে ঈদ উপহার দিলো র‌্যাব-৮ লক্ষ্মীপুরে টাকা আত্মসাতের মামলায় চেয়ারম্যান কারাগারে লক্ষ্মীপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বীজ ব্যবসায়ীর জরিমানা কুয়াকাটা সৈকতে পদ্মার ঢেউ, পর্যটকরা এখন দক্ষিণমুখী নিজ প্রতিভার বিকাশ ঘটিয়ে দর্শকদের দৃষ্টি কেড়েছে ৩য় শ্রেণির ছাত্রী লাবিবা ৮৫কেজি গাঁজা সহ আটক ০২ মাদক ব্যবসায়ী আটক

পি কে হালদারের বক্তব্য মিডিয়ায় প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা চাইল দুদক লিখিত আবেদন দিন, আদেশ দেওয়া হবে : হাইকোর্ট

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।
হাজার হাজার কোটি টাকা পাচারের সঙ্গে জড়িত প্রশান্ত কুমার হালদারের (পি কে) বক্তব্য সোমবার প্রচার করে বেসরকারি একাত্তর টেলিভিশন। দুর্নীতির মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত ঐ আসামির বক্তব্য মিডিয়ায় প্রচারের সুযোগ নেই মর্মে হাইকোর্টকে জানান দুদক কৌঁসুলি খুরশীদ আলম খান। একই সঙ্গে এ সংক্রান্ত নিউজের ভিডিও ক্লিপ সংগ্রহের জন্য আদালতের নির্দেশনা চান।তখন হাইকোর্ট বলেন, আপনি যদি সংক্ষুব্ধ হয়ে থাকেন তাহলে লিখিত আবেদন করুন। ঐ আবেদনের ওপর অ্যাটর্নি জেনারেল ও সিনিয়র আইনজীবীদের বক্তব্য শুনে প্রয়োজনীয় আদেশ দেওয়া হবে। বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল মঙ্গলবার এই মন্তব্য করেন। থার্টি ফার্স্টে কয়েক এলাকায় চলাচলে নির্দেশনা
আদালত বলেন, গণমাধ্যমে পলাতক ব্যক্তির বক্তব্য প্রচারে কোনো নিষেধাজ্ঞা আছে কি না? জবাবে খুরশীদ আলম খান বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করেছিলেন। পরে হাইকোর্ট তার বক্তব্য মিডিয়ায় প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল। তারেক রহমান ঐ সময়ে ছিলেন একজন পরোয়ানাভুক্ত দণ্ডিত আসামি। এ ক্ষেত্রেও পি কে হালদারের বক্তব্য প্রচারের সুযোগ নেই। কারণ হাইকোর্টের এই বেঞ্চ থেকে পি কে হালদারকে দেশে ফেরানোর বিষয়ে দুদকের পদক্ষেপ কি সে বিষয়ে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে আদেশ দেওয়া হয়েছে। আমরা ইতিমধ্যে দুদকের পক্ষ থেকে অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করেছি। সেখানে পি কে হালদারের বিরুদ্ধে নিম্ন আদালতের জারিকৃত গ্রেফতারি পরোয়ানা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ইন্টারপোলে পাঠানো হয়েছে। এখন যদি একজন পি কে হালদারকে টিভি মিডিয়ার সামনে এনে তার বক্তব্য প্রচারের সুযোগ করে দেওয়া হয় নিশ্চয়ই তা আইনসংগত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। ঐ বক্তব্য প্রচার করে তাকে ডিফেন্ড করার সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে।

জাতীয় আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নান্দাইলে বিদ্যুৎপৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু

পি কে হালদারের বক্তব্য মিডিয়ায় প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা চাইল দুদক লিখিত আবেদন দিন, আদেশ দেওয়া হবে : হাইকোর্ট

আপডেট টাইম : ০৭:৩৭:৫৫ পূর্বাহ্ণ, বুধবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২০

সময়ের কন্ঠ রিপোর্টার।।
হাজার হাজার কোটি টাকা পাচারের সঙ্গে জড়িত প্রশান্ত কুমার হালদারের (পি কে) বক্তব্য সোমবার প্রচার করে বেসরকারি একাত্তর টেলিভিশন। দুর্নীতির মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত ঐ আসামির বক্তব্য মিডিয়ায় প্রচারের সুযোগ নেই মর্মে হাইকোর্টকে জানান দুদক কৌঁসুলি খুরশীদ আলম খান। একই সঙ্গে এ সংক্রান্ত নিউজের ভিডিও ক্লিপ সংগ্রহের জন্য আদালতের নির্দেশনা চান।তখন হাইকোর্ট বলেন, আপনি যদি সংক্ষুব্ধ হয়ে থাকেন তাহলে লিখিত আবেদন করুন। ঐ আবেদনের ওপর অ্যাটর্নি জেনারেল ও সিনিয়র আইনজীবীদের বক্তব্য শুনে প্রয়োজনীয় আদেশ দেওয়া হবে। বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল মঙ্গলবার এই মন্তব্য করেন। থার্টি ফার্স্টে কয়েক এলাকায় চলাচলে নির্দেশনা
আদালত বলেন, গণমাধ্যমে পলাতক ব্যক্তির বক্তব্য প্রচারে কোনো নিষেধাজ্ঞা আছে কি না? জবাবে খুরশীদ আলম খান বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করেছিলেন। পরে হাইকোর্ট তার বক্তব্য মিডিয়ায় প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল। তারেক রহমান ঐ সময়ে ছিলেন একজন পরোয়ানাভুক্ত দণ্ডিত আসামি। এ ক্ষেত্রেও পি কে হালদারের বক্তব্য প্রচারের সুযোগ নেই। কারণ হাইকোর্টের এই বেঞ্চ থেকে পি কে হালদারকে দেশে ফেরানোর বিষয়ে দুদকের পদক্ষেপ কি সে বিষয়ে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে আদেশ দেওয়া হয়েছে। আমরা ইতিমধ্যে দুদকের পক্ষ থেকে অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করেছি। সেখানে পি কে হালদারের বিরুদ্ধে নিম্ন আদালতের জারিকৃত গ্রেফতারি পরোয়ানা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ইন্টারপোলে পাঠানো হয়েছে। এখন যদি একজন পি কে হালদারকে টিভি মিডিয়ার সামনে এনে তার বক্তব্য প্রচারের সুযোগ করে দেওয়া হয় নিশ্চয়ই তা আইনসংগত হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। ঐ বক্তব্য প্রচার করে তাকে ডিফেন্ড করার সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে।