ঢাকা ০৬:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে ঠাকুরগাঁও। রুহিয়া ঐতিহ্যবাহী বৈশাখী মেলা করোনাভাইরাস এর কারণে বন্ধ থাকায় আবারও পাঁচ বছর পর ১০ দিনব্যাপী বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়েছে রানীশংকৈলে নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত রায়পুরে পহেলা বৈশাখে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা নবাবগঞ্জে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ পালিত ঘাটাইলে ব্যবসায়ীর হাত-পায়ের রগ কেটে সর্বস্ব লুট টঙ্গীতে চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ীর উপর হামলা: তদন্তে গিয়ে সিসিটিভি আবদার করলো পুলিশ! আনোয়ারা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে ঈদ পূর্ণমিলনী ও মত বিনিময় সভা মোংলায় নিরুদ্দেশ মোতালেব জমাদ্দারের নাতিদের আকিকা অনুষ্ঠানে হাজারও লোকের ভিড় বহিষ্কার মোঃ রবিউল ইসলাম রবি কে দৈনিক সময়ের কন্ঠ পত্রিকা ও অনলাইন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে

গাজীপুরে করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ১০ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥

গাজীপুরে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১০জন মারা গেছেন এবং ১৩৮ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। গাজীপুরে ২৪ ঘন্টায় এ পর্যন্ত এটাই মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড। ইতোমধ্যে জেলার প্রতিটি উপজেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। শনিবার গাজীপুরের সিভিল সার্জন মোঃ খায়রুজ্জামান এ তথ্য জানিয়েছেন।

সিভিল সার্জন জানান, গাজীপুরে প্রতিনিয়ত বাড়ছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ। জেলার পাঁচটি উপজেলায় এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাড়িয়েছে ২৯২ জন এবং মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার ৩৯৩ জন। গত এক সপ্তাহে করোনায় ২০ জন মারা গেছেন এবং আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ২৭ জন। করোনা সংক্রমনের লক্ষণ দেখা দেওয়ায় জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ৪৪৯জনের নমূনা পরীক্ষা করা হয়।

তাদের মধ্যে ১৩৮জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। এরমধ্যে গাজীপুর মহানগরসহ সদর উপজেলায় এলাকায় ৯১জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ১৭জন, কালিয়াকৈরে ৮ জন, কাপাসিয়া উপজেলায় ২২ জন।

তিনি জানান, গাজীপুর জেলার ৫টি উপজেলায় উপজেলার প্রতিটি উপজেলা এলাকায় পৃথকভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। এরমধ্যে গাজীপুর মহানগরসহ সদর উপজেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশী। এ উপজেলায় এ পর্যন্ত ৯ হাজার ৭৫৬ জন। এ ছাড়াও এ পর্যন্ত জেলার শ্রীপুর উপজেলায় ১ হাজার ৮৫৯ জন, কালিয়াকৈর উপজেলায় ১ হাজার ৬৭২ জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ১ হাজার ৪১ জন ও কাপাসিয়া উপজেলায় ১ হাজার ৬৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে শুধুমাত্র জুলাই মাসে ১৭ দিনে গাজীপুরে করোনায় আক্রান্ত বৃদ্ধি পেয়েছে ২ হাজার ৭০৭জন এবং মৃত্যু বরণ করেছে ৫০ জন।

মোট সুস্থ্য হয়েছেন ১২ হাজার ৪৭২ জন। জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ২৯২ জন। এ পর্যন্ত ৯৮ হাজার ২৫৯ জনের নমূনা পরীক্ষা করা হয়। এদের মধ্যে ১৫ হাজার ৩৯৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

মনোহরদীতে নানা আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হয়েছে

গাজীপুরে করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরো ১০ জনের মৃত্যু

আপডেট টাইম : ০১:৪৪:০৭ অপরাহ্ণ, শনিবার, ১৭ জুলাই ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥

গাজীপুরে গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১০জন মারা গেছেন এবং ১৩৮ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। গাজীপুরে ২৪ ঘন্টায় এ পর্যন্ত এটাই মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড। ইতোমধ্যে জেলার প্রতিটি উপজেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। শনিবার গাজীপুরের সিভিল সার্জন মোঃ খায়রুজ্জামান এ তথ্য জানিয়েছেন।

সিভিল সার্জন জানান, গাজীপুরে প্রতিনিয়ত বাড়ছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ। জেলার পাঁচটি উপজেলায় এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাড়িয়েছে ২৯২ জন এবং মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ হাজার ৩৯৩ জন। গত এক সপ্তাহে করোনায় ২০ জন মারা গেছেন এবং আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ২৭ জন। করোনা সংক্রমনের লক্ষণ দেখা দেওয়ায় জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ৪৪৯জনের নমূনা পরীক্ষা করা হয়।

তাদের মধ্যে ১৩৮জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। এরমধ্যে গাজীপুর মহানগরসহ সদর উপজেলায় এলাকায় ৯১জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ১৭জন, কালিয়াকৈরে ৮ জন, কাপাসিয়া উপজেলায় ২২ জন।

তিনি জানান, গাজীপুর জেলার ৫টি উপজেলায় উপজেলার প্রতিটি উপজেলা এলাকায় পৃথকভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। এরমধ্যে গাজীপুর মহানগরসহ সদর উপজেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশী। এ উপজেলায় এ পর্যন্ত ৯ হাজার ৭৫৬ জন। এ ছাড়াও এ পর্যন্ত জেলার শ্রীপুর উপজেলায় ১ হাজার ৮৫৯ জন, কালিয়াকৈর উপজেলায় ১ হাজার ৬৭২ জন, কালীগঞ্জ উপজেলায় ১ হাজার ৪১ জন ও কাপাসিয়া উপজেলায় ১ হাজার ৬৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে শুধুমাত্র জুলাই মাসে ১৭ দিনে গাজীপুরে করোনায় আক্রান্ত বৃদ্ধি পেয়েছে ২ হাজার ৭০৭জন এবং মৃত্যু বরণ করেছে ৫০ জন।

মোট সুস্থ্য হয়েছেন ১২ হাজার ৪৭২ জন। জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ২৯২ জন। এ পর্যন্ত ৯৮ হাজার ২৫৯ জনের নমূনা পরীক্ষা করা হয়। এদের মধ্যে ১৫ হাজার ৩৯৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়।