ঢাকা ০৯:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান আত্রাইয়ে থানাপুলিশ অভিযান চালিয়ে ২৫০গ্রাম গাঁজাসহ আটক এক সাভারে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপ-প্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কিশোরের হত্যাকান্ডকে আত্মহত্যা হিসেবে প্রচারণা,করায় মা ও তার, মামা গ্রেফতার গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ২ নং ওয়ার্ডে রাস্তা ঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন নাজিরপুরে হার্ডওয়্যার এর দোকানে বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিটে আগুন পূর্বের বিরোধকে কেন্দ্র করে স্ব মিলে আগুন দেওয়ার অভিযোগ মংলা উপজেলার মিঠু ফকির আর নেই মোংলায় নাসা অ্যাপস চ্যালেঞ্জ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দলনেতা সুমিত’র সংবর্ধনা স্বামী ছাড়া পাগলী এখন সন্তানের জননী

খুলনায় করোনা হাসপাতালে রেকর্ড ২৭ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা॥

খুলনা মহানগরীর সরকারী ও বেসরকারী চার হাসপাতালের করোনা ইউনিটে করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর সংখ্যায় পূর্বের রেকর্ড ভেঙ্গেছে। গত ২৪ ঘন্টায় এ চারটি হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে এযাবত কালের রেকর্ড ২৭ জনের। আগের দু’দিন খুলনা শহরের চার করোনা হাসপাতালে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল সমান সংখ্যক সর্বোচ্চ ২২ জন।

মৃতদের মধ্যে খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে রেড জোনে সাত জন ও ইয়োলো জোনো চার জন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে পাঁচজন, শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজন এবং বেসরকারী গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দশজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে ১০টর মধ্যে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানান।

হাসপাতাল সমূহের দেয়া তথ্য অনুযায়ী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে খুলনা মহানগরী ও জেলার ১৫জন, বাগেরহাট জেলার দুইজন, যশোরের পাঁচজন এবং একজন নড়াইল, জেলার বাসিন্দা। ডেডিকেটেড কারোনা হাসপাতালের ইয়োলো জোনে (উপসর্গে ) মৃত চার জনের পরিচয় পাওয়া যায় নি।

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডাঃ সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রেড জোনে সাত জন ও ইয়োলো জোনে চার জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। রেড জোনে মৃত সাত জনের চার জন খুলনা মহানগরী ও জেলার এবং অপর তিন জনের একজন করে যশোর, নড়াইল ও বাগেরহাট জেলার বাসিন্দা।

তিনি জানান, ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে বেড সংখ্যা ১৫০। এখানে চিকিৎসাধীন আছেন ১৮৫ জন। এর মধ্যে রেড জোনে ১২৬ জন, ইয়োলো জোনে ৩১জন, আইসিইউতে ১৯ জন এবং এইচডিইউতে ১৯ জন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে রোগী ভর্তি হয়েছেন ৪৬জন। আর ডিসচার্জ দেয়া হয়েছে ২৯ জনকে।

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডাঃ কাজী আবু রাশেদ জানান, এ হাসপালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে পাঁচজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। মৃতদের মধ্যে খুলনা মহানগরী ও জেলার চারজন এবং একজন নড়াইল জেলার বাসিন্দা। এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটেবেড সংখ্যা বর্তমানে ৮০। ভর্তি আছেন মোট ৭১ জন রোগী। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন রোগী ভর্তি হন ২৪ জন এবং সুস্থ হয়ে ফিরে গেছেন ১৬জন।

শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ও করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডাঃ প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ জানান, গত ২৪ ঘন্টায় এ হাসপাতালের ৪৫ বেডের করোনা ইউনিটে বাগেরহাট জেলার একজন রোগী মারা গেছেন। ১০টি আইসিইউসহ ৪৫ বেডের এ করোনা ইউনিটে ভর্তি রোগী আছেন ৪৫ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে ভর্তি ১০ জন। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন রোগী ভর্তি হন পাঁচজন, ডিসচার্জ দেয়া হয়েছে তিন জনকে।

বেসরকারী গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী গাজী মিজানুর রহমান জানান, ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের সাতজন খুলনা মহানগরী ও জেলার এবং তিনজন যশোর জেলার বাসিন্দা। তিনি জানান এ হাসপাতালে করোনা ইউনিটে বেড সংখ্যা ১৫০। ভর্তি আছেন ১২৯ জন রোগী। এদের মধ্যে আইসিইউতে আটজন এবং এইচডিইউতে ১০ জন রয়েছেন। ২৪ ঘন্টায় নতুন ভর্তি হয়েছেন ৩৬ জন রোগী এবং ডিসচার্জ দেয়া হয়েছে ২১ জনকে।

  • খুলনা সিভিল সার্জন দফতরের কর্মকর্তা ডাঃ সাদিয়া মনোয়ারা ঊষা জানান, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নমুনা পরীক্ষা ৬৫৬ টি। এর মধ্যে আক্রান্ত শণাক্ত হয় ২৯৬ জন। মৃত্যূ ২৩ জন।
আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান

খুলনায় করোনা হাসপাতালে রেকর্ড ২৭ জনের মৃত্যু

আপডেট টাইম : ০৭:৫০:২৩ পূর্বাহ্ণ, শুক্রবার, ৯ জুলাই ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা॥

খুলনা মহানগরীর সরকারী ও বেসরকারী চার হাসপাতালের করোনা ইউনিটে করোনা ও উপসর্গে মৃত্যুর সংখ্যায় পূর্বের রেকর্ড ভেঙ্গেছে। গত ২৪ ঘন্টায় এ চারটি হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে এযাবত কালের রেকর্ড ২৭ জনের। আগের দু’দিন খুলনা শহরের চার করোনা হাসপাতালে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল সমান সংখ্যক সর্বোচ্চ ২২ জন।

মৃতদের মধ্যে খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে রেড জোনে সাত জন ও ইয়োলো জোনো চার জন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে পাঁচজন, শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজন এবং বেসরকারী গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দশজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে ১০টর মধ্যে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানান।

হাসপাতাল সমূহের দেয়া তথ্য অনুযায়ী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে খুলনা মহানগরী ও জেলার ১৫জন, বাগেরহাট জেলার দুইজন, যশোরের পাঁচজন এবং একজন নড়াইল, জেলার বাসিন্দা। ডেডিকেটেড কারোনা হাসপাতালের ইয়োলো জোনে (উপসর্গে ) মৃত চার জনের পরিচয় পাওয়া যায় নি।

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডাঃ সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রেড জোনে সাত জন ও ইয়োলো জোনে চার জন রোগীর মৃত্যু হয়েছে। রেড জোনে মৃত সাত জনের চার জন খুলনা মহানগরী ও জেলার এবং অপর তিন জনের একজন করে যশোর, নড়াইল ও বাগেরহাট জেলার বাসিন্দা।

তিনি জানান, ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে বেড সংখ্যা ১৫০। এখানে চিকিৎসাধীন আছেন ১৮৫ জন। এর মধ্যে রেড জোনে ১২৬ জন, ইয়োলো জোনে ৩১জন, আইসিইউতে ১৯ জন এবং এইচডিইউতে ১৯ জন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে রোগী ভর্তি হয়েছেন ৪৬জন। আর ডিসচার্জ দেয়া হয়েছে ২৯ জনকে।

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডাঃ কাজী আবু রাশেদ জানান, এ হাসপালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে পাঁচজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। মৃতদের মধ্যে খুলনা মহানগরী ও জেলার চারজন এবং একজন নড়াইল জেলার বাসিন্দা। এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটেবেড সংখ্যা বর্তমানে ৮০। ভর্তি আছেন মোট ৭১ জন রোগী। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন রোগী ভর্তি হন ২৪ জন এবং সুস্থ হয়ে ফিরে গেছেন ১৬জন।

শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ও করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডাঃ প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ জানান, গত ২৪ ঘন্টায় এ হাসপাতালের ৪৫ বেডের করোনা ইউনিটে বাগেরহাট জেলার একজন রোগী মারা গেছেন। ১০টি আইসিইউসহ ৪৫ বেডের এ করোনা ইউনিটে ভর্তি রোগী আছেন ৪৫ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে ভর্তি ১০ জন। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন রোগী ভর্তি হন পাঁচজন, ডিসচার্জ দেয়া হয়েছে তিন জনকে।

বেসরকারী গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী গাজী মিজানুর রহমান জানান, ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের সাতজন খুলনা মহানগরী ও জেলার এবং তিনজন যশোর জেলার বাসিন্দা। তিনি জানান এ হাসপাতালে করোনা ইউনিটে বেড সংখ্যা ১৫০। ভর্তি আছেন ১২৯ জন রোগী। এদের মধ্যে আইসিইউতে আটজন এবং এইচডিইউতে ১০ জন রয়েছেন। ২৪ ঘন্টায় নতুন ভর্তি হয়েছেন ৩৬ জন রোগী এবং ডিসচার্জ দেয়া হয়েছে ২১ জনকে।

  • খুলনা সিভিল সার্জন দফতরের কর্মকর্তা ডাঃ সাদিয়া মনোয়ারা ঊষা জানান, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নমুনা পরীক্ষা ৬৫৬ টি। এর মধ্যে আক্রান্ত শণাক্ত হয় ২৯৬ জন। মৃত্যূ ২৩ জন।