ঢাকা ০২:৩৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম ::
ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি কালিয়াকৈরে পালিত হলো প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী-২০২৪ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী মেলা অনুষ্ঠিত রায়পুরে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত সেভ দ্য রোডের ১৫ দিনব্যাপী সচেতনতা ক্যাম্পেইন সমাপ্ত জামালপুরে কৃষককূল লাউ চাষে স্বাবম্বিতা অর্জন করেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অস্ত্রাগারের ভিডিও সম্প্রচার এক পুলিশ সুপারকে বাধ্যতামূলক অবসর মাদক কারবার-মানি লন্ডারিংয়ে বদির দুই ভাইয়ের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে ঠাকুরগাঁওয়ে চেতনা নাশক স্প্রে ব্যবহার করে চুরি এলাকায় আতঙ্ক পরিবারের সংবাদ সম্মেলন মামলা সুষ্ঠু তদন্তের দাবি কলেজ ছাত্রকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর দাবি

সারাদেশব্যাপী লকডাউন এর কারণে বিরামপুর আমের বাজারে ধস

এস এম মাসুদ রানা  (দিনাজপুর) প্রতিনিধি।।বিরামপুরে উপজেলায় গত ১ লা জুলাই থেকে করোনা সংক্রমণের উর্ধগতির কারণে সরকার ঘোশিত কঠোর লকডাউন ও টানা বৃষ্টির হওয়ার আমের বাজারে ধস নেমেছে।

২জুলাই) শুক্রবার উপজেলার অবসরমোড়, কলেজবাজার,বাসষ্ট্যান্ড,নতুনবাজারসহ বিভিন্ন হাট-বাজার ঘুরে জানা যায় যে,গত সপ্তাহে লকডাউনের আগে যে আম বিক্রি করত ৪০-৪৫ টাকা কেজিতে সেই আম এখন ২০-২৫ টাকা কেজিতে বিক্রি করছে খুচরা ব্যবসায়ীরা।

বাগান মালিক মোরশেদ জাহান চৌধুরী বলেন,

লকডাউনের কারণে দুর দুরান্ত থেকে পাইকাররা না আসায় বাহিরে আম যাচ্ছে না।

সেক্ষেত্রে আম গুলি স্থানীয় ভাবে বিক্রি হচ্ছে কিছুটা। কিন্তু বেশির আম পাইকার না থানায় বাগানের আম বাগানেই থেকে পঁচে যাচ্ছে।

আমের ফুল আসার আগে বাগান মালিকগণরা যে খরচ করছে সেই লকডাউনের কারণে সেই খরচ উঠছে। তারা আর্থিক দিক দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানান।

 

খুচরা আম ব্যবসায়ী শ্রী: স্বদেশ চন্দ্র সরকার বলেন-লকডাউনের আগে আমি হাড়িভাঙ্গা আম ৪০টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি,কিন্তু গেল কয়েকদিনের কঠোর লকডাউন আর বৃষ্টির কারণে সেই আম ২০টাকা কেজিতে বিক্রি করছি। এছাড়াও গোপাল ভোগ, মিশ্রিভোগ,নেংরা,ফজলি আম ও দেশী জাতের আম বিক্রি করছি ২০টাকা কেজি দরে।

আরো খবর.......

জনপ্রিয় সংবাদ

ডিএমপির ৬ কর্মকর্তার বদলি

সারাদেশব্যাপী লকডাউন এর কারণে বিরামপুর আমের বাজারে ধস

আপডেট টাইম : ০৩:১৯:৪৭ অপরাহ্ণ, শুক্রবার, ২ জুলাই ২০২১

এস এম মাসুদ রানা  (দিনাজপুর) প্রতিনিধি।।বিরামপুরে উপজেলায় গত ১ লা জুলাই থেকে করোনা সংক্রমণের উর্ধগতির কারণে সরকার ঘোশিত কঠোর লকডাউন ও টানা বৃষ্টির হওয়ার আমের বাজারে ধস নেমেছে।

২জুলাই) শুক্রবার উপজেলার অবসরমোড়, কলেজবাজার,বাসষ্ট্যান্ড,নতুনবাজারসহ বিভিন্ন হাট-বাজার ঘুরে জানা যায় যে,গত সপ্তাহে লকডাউনের আগে যে আম বিক্রি করত ৪০-৪৫ টাকা কেজিতে সেই আম এখন ২০-২৫ টাকা কেজিতে বিক্রি করছে খুচরা ব্যবসায়ীরা।

বাগান মালিক মোরশেদ জাহান চৌধুরী বলেন,

লকডাউনের কারণে দুর দুরান্ত থেকে পাইকাররা না আসায় বাহিরে আম যাচ্ছে না।

সেক্ষেত্রে আম গুলি স্থানীয় ভাবে বিক্রি হচ্ছে কিছুটা। কিন্তু বেশির আম পাইকার না থানায় বাগানের আম বাগানেই থেকে পঁচে যাচ্ছে।

আমের ফুল আসার আগে বাগান মালিকগণরা যে খরচ করছে সেই লকডাউনের কারণে সেই খরচ উঠছে। তারা আর্থিক দিক দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানান।

 

খুচরা আম ব্যবসায়ী শ্রী: স্বদেশ চন্দ্র সরকার বলেন-লকডাউনের আগে আমি হাড়িভাঙ্গা আম ৪০টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি,কিন্তু গেল কয়েকদিনের কঠোর লকডাউন আর বৃষ্টির কারণে সেই আম ২০টাকা কেজিতে বিক্রি করছি। এছাড়াও গোপাল ভোগ, মিশ্রিভোগ,নেংরা,ফজলি আম ও দেশী জাতের আম বিক্রি করছি ২০টাকা কেজি দরে।