ঢাকা ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২
সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জের শায়েস্তাঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ১বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার দিন দিন বেড়েই চলছে পণ্য, বাজারজুড়ে দীর্ঘশ্বাস পারমাণবিক চুক্তির দ্বারপ্রান্তে ইরান ও পশ্চিমা দেশগুলো  পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের ব্যাখ্যা চাই: মির্জা ফখরুল কসবায় চার হাজার পিস ইয়াবাসহ যুবক গ্রেফতার যশোরের শার্শার রুদ্রপুর সীমান্তে সোনারবারসহ পাচারকারী আটক গাজীপুর মহানগর পুলিশ কর্তৃক ২৪ ঘন্টার উদ্ধার অভিযান কাশিমপুরে ৭ বছরের এক মাদ্রাসার। ছাত্র কে বলাৎকারে এক মুদি, দোকানদার আটক আশুলিয়া থানা যুবলীগের আয়োজনে জাতিয় শোক দিবস পালন অপশাসন কী, অপশাসনের ফল কী হতে পারে, বাংলাদেশের মানুষ তা প্রত্যক্ষ করেছে ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত

খুলনা বিভাগে জুলাইয়ের শুরুতেই করোনায় প্রাণ গেলো রেকর্ড ৩৯ জনের

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ খুলনা বিভাগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু কানেভাবেই থামছেনা। করোনায় মৃত্যুপুরী হয়ে উঠেছে খুলনা বিভাগ। গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা বিভাগে রেকর্ড সংখ্যক ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা এই বিভাগে একদিনে করোনায় এ যাবতকালের সর্বোচ্চ মৃত্যু। জুলাই মাসের শুরুতে এটা করোনায় মৃত্যুর বড় ধাক্কা। একই সময়ে বিভাগের ১০ জেলায় করোনায় শনাক্ত হয়েছে ১হাজার ২৪৫ জন।

আজ বৃহস্পতিবার খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেয়া প্রথম প্রতিবেদনে মৃত্যুর সংখ্যা বলা হয় ৩৫ জন। পরে পাঠানো প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, মৃত্যুর সংখ্যা ৩৯ জন। কারোনাভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় ৫৭ হাজার ৫২০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১হাজার ১০৯ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৩৮ হাজার ৯৩০ জন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে খুলনা জেলায় ৮ জন, বাগেরহাটে ১ জন, সাতক্ষীরায় ৪জন, যশোরে ৭জন, নড়াইল জেলায় ৩ জন, ঝিনাইদহে ৪জন, কুষ্টিয়ায় ৭ জন, চুয়াডাঙ্গায় ২ জন এবং মেহেরপুরে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতরের প্রতিবেদন অনুযায়ী এ সময়ে মাগুরা জেলায় কোন মৃত্যু নেই।

বিাভাগীয় স্বাস্থ্য দফতরের দেয়া তথ্য অনুযয়ী গত ২৪ ঘন্টায় করোনভাইরাসে সংক্রমণ শাণাক্ত হয়েছে খুলনা জেলায় ২৪২জন, বাগেরহাটে ১২৩জন, সাতক্ষীরায় ৫২ জন, যশোরে ১৪২ জন, নড়াইল জেলায় ৯২ জন, মাগুরায় ২০ জন, ঝিনাইদহে ৯৭ জন, কুষ্টিয়ায় ৩২৪ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৮৬ জন ও মেহেরপুর জেলায় ৬৭ জন।

উল্লেখ্য, এর আগে খুলনা বিভাগে ৩০ জুন ২৭ জন, ২৯জুন ৩২ জন, ২৮ জুন ৩০ জন, ২৭ জুন ২৮ জন, ২৬ জুন ১৪ জন, ২৫ জুন ২৩ জন, ২৪ জুন ২০ জন, ২৩ জুন প্রথম রেকর্ড সংখ্যক ৩২ জনের মৃত্যু হয়। তার আগেরদিন ২২ জুন মারা যান ২৭জন।

আরো খবর.......
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

হবিগঞ্জের শায়েস্তাঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ১বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার

খুলনা বিভাগে জুলাইয়ের শুরুতেই করোনায় প্রাণ গেলো রেকর্ড ৩৯ জনের

আপডেট টাইম : ১০:০০:০৫ পূর্বাহ্ণ, বৃহস্পতিবার, ১ জুলাই ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা অফিস ॥ খুলনা বিভাগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু কানেভাবেই থামছেনা। করোনায় মৃত্যুপুরী হয়ে উঠেছে খুলনা বিভাগ। গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা বিভাগে রেকর্ড সংখ্যক ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা এই বিভাগে একদিনে করোনায় এ যাবতকালের সর্বোচ্চ মৃত্যু। জুলাই মাসের শুরুতে এটা করোনায় মৃত্যুর বড় ধাক্কা। একই সময়ে বিভাগের ১০ জেলায় করোনায় শনাক্ত হয়েছে ১হাজার ২৪৫ জন।

আজ বৃহস্পতিবার খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের দেয়া প্রথম প্রতিবেদনে মৃত্যুর সংখ্যা বলা হয় ৩৫ জন। পরে পাঠানো প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, মৃত্যুর সংখ্যা ৩৯ জন। কারোনাভাইরাসের সংক্রমণের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত খুলনা বিভাগের ১০ জেলায় ৫৭ হাজার ৫২০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১হাজার ১০৯ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৩৮ হাজার ৯৩০ জন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে খুলনা জেলায় ৮ জন, বাগেরহাটে ১ জন, সাতক্ষীরায় ৪জন, যশোরে ৭জন, নড়াইল জেলায় ৩ জন, ঝিনাইদহে ৪জন, কুষ্টিয়ায় ৭ জন, চুয়াডাঙ্গায় ২ জন এবং মেহেরপুরে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতরের প্রতিবেদন অনুযায়ী এ সময়ে মাগুরা জেলায় কোন মৃত্যু নেই।

বিাভাগীয় স্বাস্থ্য দফতরের দেয়া তথ্য অনুযয়ী গত ২৪ ঘন্টায় করোনভাইরাসে সংক্রমণ শাণাক্ত হয়েছে খুলনা জেলায় ২৪২জন, বাগেরহাটে ১২৩জন, সাতক্ষীরায় ৫২ জন, যশোরে ১৪২ জন, নড়াইল জেলায় ৯২ জন, মাগুরায় ২০ জন, ঝিনাইদহে ৯৭ জন, কুষ্টিয়ায় ৩২৪ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৮৬ জন ও মেহেরপুর জেলায় ৬৭ জন।

উল্লেখ্য, এর আগে খুলনা বিভাগে ৩০ জুন ২৭ জন, ২৯জুন ৩২ জন, ২৮ জুন ৩০ জন, ২৭ জুন ২৮ জন, ২৬ জুন ১৪ জন, ২৫ জুন ২৩ জন, ২৪ জুন ২০ জন, ২৩ জুন প্রথম রেকর্ড সংখ্যক ৩২ জনের মৃত্যু হয়। তার আগেরদিন ২২ জুন মারা যান ২৭জন।